সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন সমালোচক (২৫-১১-২০১৩ ০৮:১৫)

টপিকঃ কিছু রিমিক্স তথা সেকেন্ড জেনারেশন জোকস

যুগ বদলেছে, সঙ্গে বদলেছে অনেক কিছু। টাইপরাইটারের জায়গায় এসেছে কম্পিউটার। সব কিছুই বদলে গেছে এমন কি জোকস পর্যন্ত...... 
একটা গল্প ছোট বেলায় শুনাতাম একজন টুপি ব্যবসায়ী টুপি বিক্রি করে ফেরায় সময় একটা জঙলের মধ্য দিয়ে ফিরছিলেন। তো তিনি বিশ্রাম নেবার জন্য একটা গাছের নিচে বসলেন। ক্লান্ত থাকায় কখন ঘুমিয়েছেন টের পাননি। তো যখন টের পেলেন তখন উঠে দেখেন তার সাড়ে সর্বনাশ হয়ে গেছে। তার সব টুপি বানরেরা দখল করে ফেলেছে... শুধু তাই না সেটা মাথায় দিয়ে বিচিত্র অঙ্গী ভঙ্গি করছে। তো তিনি তাদের অনেক বোঝালেন কেউ কিছু বোঝেনা মূর্খ শাখামৃগরা শুধু ক্যাচ ক্যাচ করে। তিনি ক্ষেপে গিয়ে মারলেন ঢিল দেখাগেল বানরেরাও পাল্টা বিভিন্ন গাছের ডাল ও ফল দিয়ে ঢিল দিচ্ছে... তো চালাক ব্যবসায়ী করলেন কি নিজের মাথায় যে টুপিটা ছিল সেটা খুলেই ঢিল দিলেন সব বানর সেটা নকল করে তাদের মাথার টুপি খুলেই ঢিল দিলো। উনি সব টুপি তুলে ব্যাগে ভরে বাসায় ফিরে এলেন সাথে নিয়ে এলেন অভিজ্ঞতা। তো সেই ব্যক্তি এরপর ভুলেও কখনো জঙ্গলে ঘুমান নি বা বিশ্রাম নেন নি।
হাততালি দেন হাসির গল্প শোনালাম।
এর প্রায় ৩০ বছর পরের ঘটনা এক তরুণ ব্যাক্তি টুপি বিক্রি করে ফেরার পথে সেই জঙ্গলে বিশ্রাম নেবার সিদ্ধান্ত নিলেন। যথারীতি ঘুমিয়েও পড়লেন। তো ঘুম থেকে উঠার পর একই কাণ্ড ওনার কোন টুপি নাই ... তো উনি ওনার দাদার মুখ থেকে গল্প শুনেছিলেন... এবং উনি ডাইরেক্ট টুপি খুলে ঢিল দিলেন বানরদের দিকে। ঠিক তখনি একটা বানর নেমে এসে ওনাকে চড় মারল.... এরপর সেই বানর বলল তোমার হিসেবে দাদা কি শুধু তোমার একারই আছে......??

এর অনেকদিন পরের ঘটনা মিঃ ও মিসেস কাউয়া গেছেন থাইল্যান্ডে তো এক শপিং কমপ্লেক্সসে হঠাৎ মিঃ কাউয়া দাঁড়িয়ে পরে খুব হেসে হেসে এক সুন্দরী মহিলার সাথে কথা বলছিলেন।
অনেক্ষণ কথা বলে ফিরে এলে মিসেস কাউয়া জানতে চাইলেন মেয়েটি কে?
কাউয়া বললেন তোমার চেনার কথা নয় পেশাগত কারণে ওর সঙ্গে আমার পরিচয় আছে।
মিসেস কাউয়া আবারো জানতে চাইলেন পেশাটা কার তোমার না ওই মেয়েটির?

এরপর কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে দুজন দুদিকে চলে যান। কিছুদূর গিয়ে মিঃ কাউয়ার মনে হলো কাজটা মোটেই বুদ্ধিমানের মতো হয়নি কারন মিসেসের বিদেশে থাকার ও ঘোরাঘুরির অভ্যাস থাকলেও তিনি এব্যাপারে নিতান্ত শিশু... শপিং মল থেকে হোটেলে কিভাবে ফিরবেন সেটাও বুঝতেছেন না আবার এদিকে কাপুরুষের মতো হার মেনে মিসেসের পিছু পিছু আসবেন সেটাও ঠিক মানতে পারছিলেন না, এছাড়া মিসেসকে কাছে কোথাও দেখতে পেলেন না......  সম্ভবত মিঃ কাউয়া হায়িয়ে ফেলেছেন মিসেসকে অথবা নিজেই হারিয়ে গেছেন। উনি ডিটেইলস সেই ফ্লোর ম্যানেজারকে জানালেন মুচকি হেসে সেই ভদ্রলোক বললেন এটা রোজকার প্রবলেম আমাদের কাছে সমাধান আছে। আপনি ফ্লোরের যে কোন মহিলা সেলসম্যান এর সাথে গল্প শুরু করে দিন আপনার মিসেস পাঁচ মিনিটের ভিতর চলে আসবেন। আর আমাদের সেলসগার্ল গুলোও বেশ সুন্দরী ( চোখ টিপি wink )

আরও কিছুদিন পরের কথা মিঃ সাইফ তার রুমে নতুন কেনা ভায়োলিনে সুর তোলার চেষ্টা করছে। হঠাৎ তার রুমে আংকেল ঢুকে বলল তুমি বেহালা বাজানো শিখতেছ সেটা আগে বলবে না?? এদিকে আমি বারান্দার দরজার কব্জাগুলোতে তেল তেল দিতে হয়রান হয়ে যাচ্ছি...

এর কিছুদিন আগের ঘটনা মিঃ পলাশ আর মিঃ মরুভূমির দস্যু গল্প করছে...
পলাশঃ সেবার সুন্দরবন গিয়ে একটা বে-আইনি বাংলোতে ছিলাম। এত ভিতরে রেস্ট হাউস করার পার্মিশন দেয়না বুঝলেন দস্যু ভাই একেবারে সুন্দর বনের মাঝে। তো রেস্ট হাউজের লোকেরা নিষেধ করলেও আমি না মেনে হাওয়া খেতে বেরিয়ে পড়ি। কিছুদূর গিয়েই পড়লাম বাঘের সামনে...  cry আমি সঙ্গে সঙ্গে পিছন ফিরে দিলাম ভো-দৌড়। বাঘও আমার পিছন পিছন দৌড়ানো শুরু করল...  ghusi কিন্তু বাঘ আমাকে ছুঁই ছুঁই করেও ছুতে পারছিল না... বারবার পিছলা খেয়ে পড়ে যাচ্ছিল...
এভাবে অনেকক্ষণ দৌড়ে শেষ মেশ দেওয়াল টপকে বাংলোতে ঢুকলাম cool cool
দস্যু ভাইঃ তোমারতো দেখে যায় অনেক সাহস...  surprised আমি হলেতো ভঁয়ে পায়খানা করে দিতাম
পলাশঃ আরে ভাই বাঘতো বারবার পিছলা খাচ্ছিল সেই কারণেই...

তখন সামিউল ভাই অস্ট্রেলিয়ায় থাকতেন তো উনি ফিনল্যান্ড থেকে আগত হিমুর সাথে কথা বলছিলেন।  তারা বসেছিলেন সিডনি ব্রিজের পাশে। তখন প্রসঙ্গক্রমে
সামিউলঃ আমাদের সিডনী ব্রিজ দেখেছ কত বড়??
হিমুঃ ধুর এরচেয়ে বড় ব্রিজ আমাদের গ্রামের দিকের ব্রিজ গুলো
সামিউলঃ আমাদের পার্কটা দেখেছ ?  তোমাদের ওদিকে পার্ক কত বড়??
হিমুঃ ধুর আমাদের দিকে ধর যে একেকটা দ্বীপ একেকটা পার্ক। আমরা এক এলাকা থেকে আরেক এলাকা ইয়টে যাই...
এ সময় কোথা থেকে একটা ক্যাঙ্গারু লাফিয়ে লাফিয়ে তাদের সামনে দিয়ে চলে গেল...
হিমুঃ তবে এ কথা স্বীকার করতেই হবে তোমাদের এলাকার ঘাসফড়িং গুলো বেশ বড়...

শামীম ভাইকে ওনার মেয়ে জিজ্ঞেস করছে... আব্বু আমার হাতটা মেপে দেখতো বড় কি না??
তো উনি অনেকক্ষণ দেখে বললেন না মা তোমার হাত বেশ ছোট। যখন বড় হবে তখন তোমার হাত বড় হবে...
হুম আমিও সেটাই বলতেছি, অথচ ম্যাম বলেছেন বড় হাতের A B C D লিখে নিয়ে যেতে...

ছবিপু হরতালের একদিনে অফিস থেকে ফিরে এসে দেখেন দুই ছেলে মারামারি করছে...
তো ক্ষেপে গিয়ে বললেন তোরা বড় হোস নি ? অফিসে যাওয়ার সময় দেখলাম মারামারি এখ ফিরেও দেখি আবার মারামারি !!!!
তো ওনার দুই ছেলে জবাব দিল না আম্মু সেই মারামারিটাই এখনো চলছে... আমরা নতুন করে কিছু শুরু করিনি...

এটা অনেকদিন আগের কথা জহরলাল নেহেরু তখন ভারতের প্রধামন্ত্রী
তো সেই সময় ক্রুশ্চেভ এলেন ভারত সফরে। নেহেরু তাকে নিয়ে বেড়াতে বের হলেন। হঠাৎ রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে মূত্র বিসর্জন রত অবস্থায় একজনকে দেখে ক্রুশ্চেভ মন্তব্য করলেন, ইন্ডিয়ান্রা দেখি একেবারে অসভ্য...
নেহেরু দারুণ অপ্রস্তুত হলেন, এবং প্রতিশোধ নেবার খুব চেষ্টা করলেন কিন্তু প্রতিশোধের সুযোগ মিললনা।
এরপর নেহেরু গেলেন মস্কোয়। ক্রুশ্চেভ তাকে নিয়ে বেড়াতে বের হলেন । এবার বেহেরু সুযোগ পেয়ে গেলেন। একইভাবে একজন রাস্তার পাশে মূত্র বিসর্জন দিচ্ছিলেন। এবার নেহেরু কিছু বললেন না শুধু ক্রুশ্চেভের দিকে তাকিয়ে মিটিমিটি হাসলেন।
ক্রুশ্চেভ দারুণ বিব্রত হলেন। লোকটিকে ডেকে তিনি জিজ্ঞেস করলেন, কে তুমি?? লোকটা উত্তর বিনীত ভাবে বলল, স্যার আমি ইন্ডিয়ান এম্বেসীর একজন কর্মচারী।

পাদটীকাঃ  ক্রুশ্চেভ ও নেহেরু ছাড়া সব চরিত্র কাল্পনিক সুতরাং কোন রকম মিল,অমিল,গন্ধ খুজে পেলে সেটি একান্তই পাঠকের দায়িত্ব । লেখার সাথে কোন আইডি/নিক/ফোরামের কারও বাস্তব জীবনের কোন ঘটনার সাথে মিল খুঁজে পাওয়া গেলে সেটা অনভিপ্রেত কাকতাল মাত্র

  “যাবৎ জীবেৎ সুখং জীবেৎ, ঋণং কৃত্ত্বা ঘৃতং পিবেৎ যদ্দিন বাচো সুখে বাচো, ঋণ কইরা হইলেও ঘি খাও.

Re: কিছু রিমিক্স তথা সেকেন্ড জেনারেশন জোকস

worried worried worried ghusi

Re: কিছু রিমিক্স তথা সেকেন্ড জেনারেশন জোকস

Jol Kona লিখেছেন:

worried worried worried ghusi

মন খারাপ ক্যান?? আপনের ঘটনা তো ফাঁস হয়নাই... চিয়ার আপ cool
তবে পরের পর্বে যে হবে না সেই গ্যারান্টি দিতে পারিনা...

  “যাবৎ জীবেৎ সুখং জীবেৎ, ঋণং কৃত্ত্বা ঘৃতং পিবেৎ যদ্দিন বাচো সুখে বাচো, ঋণ কইরা হইলেও ঘি খাও.

Re: কিছু রিমিক্স তথা সেকেন্ড জেনারেশন জোকস

কাউয়া ভাইয়ের আর ক্রুশ্চেভের টা অনেক মজার হয়েছে। thumbs_up

IMDb; Phone: Huawei Y9 (2018); PC: Windows 10 Pro 64-bit

Re: কিছু রিমিক্স তথা সেকেন্ড জেনারেশন জোকস

পায়খানার টা মজা লাগসে  tongue

এম. মেরাজ হোসেন
IQ: 113
http://www.iq-test.cc/badges/4774105_3724.png

Re: কিছু রিমিক্স তথা সেকেন্ড জেনারেশন জোকস

সমালোচক লিখেছেন:
Jol Kona লিখেছেন:

  worried worried worried ghusi

মন খারাপ ক্যান?? আপনের ঘটনা তো ফাঁস হয়নাই... চিয়ার আপ cool
তবে পরের পর্বে যে হবে না সেই গ্যারান্টি দিতে পারিনা...


surprised surprised surprised  ghusi

Re: কিছু রিমিক্স তথা সেকেন্ড জেনারেশন জোকস

lol2 lol2 lol2 lol2 পলাশ ভাই আসলেই সাহসী smile

Re: কিছু রিমিক্স তথা সেকেন্ড জেনারেশন জোকস

ফোরামের সদস্যদের নিয়ে লেখা দিলে সেটা বেশি রেপু পায় বলে কোনো একটা মেড-ইজিতে দেখেছিলাম। ডেডলক এবং সমালোচক ভাইগণ সেই সূত্র সুনিপুন ভাবে প্রয়োগ করে ঐ সূত্রের সপক্ষে আরো উদাহরণ সৃষ্টি করে চলেছেন।  thumbs_up

শামীম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: কিছু রিমিক্স তথা সেকেন্ড জেনারেশন জোকস

পলাশ ভাইয়ের সাহসিকতা দেখে থ মেরে গেলাম।  mad উনার ইয়ের এত্ত পাওয়ার বাপরে  hehe

১০

Re: কিছু রিমিক্স তথা সেকেন্ড জেনারেশন জোকস

সেইরম মজা পাইলাম  lol2

সব কিছু ত্যাগ করে একদিকে অগ্রসর হচ্ছি

লেখাটি CC by-nd 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১১

Re: কিছু রিমিক্স তথা সেকেন্ড জেনারেশন জোকস

দুঃখ পাইলাম একজন হাজিরা দিলনা...... নাকি চুপে চাপে  lol lol

  “যাবৎ জীবেৎ সুখং জীবেৎ, ঋণং কৃত্ত্বা ঘৃতং পিবেৎ যদ্দিন বাচো সুখে বাচো, ঋণ কইরা হইলেও ঘি খাও.

১২

Re: কিছু রিমিক্স তথা সেকেন্ড জেনারেশন জোকস

রিয়াজুল মাসুদ রিহাম লিখেছেন:

পলাশ ভাইয়ের সাহসিকতা দেখে থ মেরে গেলাম।  mad উনার ইয়ের এত্ত পাওয়ার বাপরে  hehe

কি মনে করেন মিয়া? কয়দিন পর দেখবেন উনার ইয়ে বাজারে কেজি দরে বিক্রি হবে  tongue tongue

Domain Registration | Hosting Solution | Web Development
99.9% Uptime Guarantee | 24/7 Live Support | SSD Server.
Best Domain Hosting Company in Bangladesh

রাজিব আহসান'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত

১৩

Re: কিছু রিমিক্স তথা সেকেন্ড জেনারেশন জোকস

মজা পেলাম ।

শামীম লিখেছেন:

ডেডলক এবং সমালোচক ভাইগণ সেই সূত্র সুনিপুন ভাবে প্রয়োগ করে

তা আর বলতে  lol2 lol2 lol2

লেখাটি LGPL এর অধীনে প্রকাশিত

১৪

Re: কিছু রিমিক্স তথা সেকেন্ড জেনারেশন জোকস

সুন্দর লাগল মজা লাগল রেপু মাষ্ট না অবশ্যই smilesmile

জাযাল্লাহু আন্না মুহাম্মাদান মাহুয়া আহলুহু......
এই মেঘ এই রোদ্দুর

১৫

Re: কিছু রিমিক্স তথা সেকেন্ড জেনারেশন জোকস

অনেক দিন আগের লেখা, ভুলেই গেছিলাম।
ভালোই লাগলো

  “যাবৎ জীবেৎ সুখং জীবেৎ, ঋণং কৃত্ত্বা ঘৃতং পিবেৎ যদ্দিন বাচো সুখে বাচো, ঋণ কইরা হইলেও ঘি খাও.

১৬

Re: কিছু রিমিক্স তথা সেকেন্ড জেনারেশন জোকস

ভালোই লাগল lol2

ডিজিটাল বাংলাদেশে ত আর সাক্ষরের নিয়ম চালু নাই।সবটায় দেখি বায়োমেট্রিক।তাই আর সাক্ষর দিতে পারলাম না।দুঃখিত।