টপিকঃ ডিজিটাল আইসিটি ফেয়ার-২০১৬

বাংলাদেশে প্রযুক্তির ব্যবহারে আরও গতিশীলতা আনতে বর্তমান সরকারের গৃহীত পদক্ষেপ প্রসংশনীয়। প্রতি বছরের ন্যায় এই বছর ও শুরু হচ্ছে ডিজিটাল আইসিটি মেলা। এবারের মেলার মুল প্রতিপাদ্য বিষয়  “The only way to Fly”। এই স্লোগানকে সামনে রেখে বড় পরিসরে রাজধানীর নিউ এলিফ্যান্ট রোডের কম্পিউটার সিটি সেন্টারে (মাল্টিপ্ল্যান)৬দিনব্যাপী চলবে ডিজিটাল     
আইসিটি মেলা।  ৮ম বারের মতো ‘ডিজিটাল আইসিটি ফেয়ার-২০১৬ (উইন্টার)’ নামের এ মেলা শুরু হবে আজ থেকে।  এবারের মেলায় সাড়ে ৬ শতাধিক প্রতিষ্ঠান সর্বশেষ প্রযুক্তির কম্পিউটার, ল্যাপটপ, ট্যাবলেট, ক্যামেরা, ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরাসহ তথ্যপ্রযুক্তির সর্বশেষ নানা পণ্য প্রদর্শন ও বিক্রি করবে।  প্রতিবারের চেয়ে এবার আরও বড় পরিসরে ও জাঁকজমকভাবে মেলা আয়োজন করা হচ্ছে। দেশের সর্বস্তরের মানুষের মাঝে কম্পিউটার ও তথ্যপ্রযুক্তির ব্যাপক ব্যবহার এবং এর সুফল ছড়িয়ে দিয়ে, বহুল প্রত্যাশিত ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যেই নিয়মিত এ মেলার আয়োজন করা হয়। একসঙ্গে এত প্রতিষ্ঠান এই মেলায় অংশগ্রহণ উপমহাদেশের বিরল ঘটনা। মেলায় বাংলাদেশের শীর্ষ আইসিটি পণ্য আমদানিকারক ও ব্যবসায়ীরা বিশ্বের মানসম্পন্ন ব্র্যান্ডের আধুনিক প্রযুক্তি প্রদর্শন করবে। মেলা উপলক্ষে এবার বিশেষ আয়োজন হিসেবে থাকছে- প্রযুক্তি পণ্যের ওপর আকর্ষণীয় মূল্য ছাড় ও উপহার সামগ্রী, থাকছে র্যা ফেল ড্র-এর মাধ্যমে আকর্ষণীয় পুরস্কার, রক্তদান কর্মসূচি, এন্ট্রি পাসের সঙ্গে ফ্রি মুভি দেখার সুব্যবস্থা, ফ্রি ইন্টারনেট, ওয়াই-ফাই, গেমিং জোন, ফটোগ্রাফি ও সেলফি প্রতিযোগিতা, শিশু চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, সিকিউরিটি সিস্টেম ও আধুনিক প্রযুক্তি পণ্যের প্রদর্শনীসহ নানা আয়োজন। এ ছাড়া মেলার চতুর্থ দিনে (২৫ ডিসেম্বর ২০১৬) অনুষ্ঠিত হবে শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা। প্রতিবছরের মতো এবারের মেলায় বিশেষভাবে গুরুত্ব দেয়া হয়েছে স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের ওপর। দেশের শিক্ষা ব্যবস্থা ও শিক্ষা পদ্ধতিতে সর্বাধুনিক ও সর্বশেষ প্রযুক্তির ব্যবহার নিশ্চিত করা এবং এর সুফল সম্পর্কে ধারণা দিতে মেলায় থাকবে নানা আয়োজন। মেলায় পরিদর্শনের জন্য রাজধানীর বিভিন্ন স্কুল শিক্ষার্থীদের জন্য থাকবে সুব্যবস্থা। ঢাকাসহ সারা দেশের যে কোনো প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য মেলার প্রবেশ ফ্রি করা হচ্ছে। মেলার শেষদিনে দেয়া হবে ক্রেস্ট এবং থাকবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। প্রযুক্তি বিষয়ক এ মেলা শুধু মেলার উপভোগ্য বিষয়কে প্রাধান্য দিবে না, এটি দেশের উন্নয়নে সহায়ক হিসেবে কাজ করতে ভূমিকা রাখবে। আধুনিক ও ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠন এবং দেশের আর্থ-সামাজিক অগ্রগতি ও অবকাঠামোগত উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ রাখবে।