টপিকঃ এরদগানের রাজনৈতিক ঘনমাত্রা ও তুরস্কের ভূ-রাজনৈতিক গুরুত্ব

চলতি বছরে তুরস্ক ছিল বিশ্ব রাজনীতিতে আলোচিত । রাশিয়ার সাথে টানাপড়েন, শরণার্থী সমস্যা, সিরিয়ার আইসিস সমস্যা কিংবা এরদগানের বহুমুখী মন্তব্য । এইদফা নির্বাচনে বিজয়ের পর থেকেই এরদগানের মুখে যেন কথার ফোয়ারা ছুটল । বাংলাদেশ ইস্যুতেও বাৎচিত কম করলেন না । ডানপন্থী এই রাজনীতিবিদ ইতোমধ্যেই পশ্চিমাদের মাথা ব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছেন, কেননা বিশ্ব রাজনীতির মাঠে তিনিও বেশ চাল দিতে শুরু করেছেন । পুতিনকে একহাত নিয়ে ঠিকই আবার হাসিমুখে হাত মেলালেন ! ওদিকে চীনের সাথেও বেশ সমঝে চলছেন ।
এমতাবস্থায় ভুরাজনীতির মাঠে তুরস্কের অবস্থান আবারো প্রাচীনকালের মতই ভেসে উঠলো । এসিয়া-ইউরোপের মাঝে এর ভৌগলিক অবস্থান, বিশ্ব সমুদ্র পথ বসফরাস প্রণালী , ইউরোপের তেল আমদানির পথ  কিংবা সিরিয়ার বাশার আল আসাদকে কব্জা করতে তুরস্কের প্রয়োজনীয়তা অনস্বীকার্য ।
কিন্তু এরদগানের সুচতুর কথা বার্তায় তার পশ্চিমা বন্ধুরা যে খুব একটা স্বস্তিতে নেই তা বোঝা যায় সাম্প্রতিক অসফল সেনা অভ্যুত্থানে তাদের অবস্থান ও মন্তব্যে ।

আপাত খেলায় এরদগান জিতলেও সহসাই বিপদ কাটবে বলে আশা করাটা বুদ্ধিমানের কাজ হবে না এরদগানের । কেননা তুরস্কে সেনা অভ্যুত্থানের ঘটনা নতুন নয় । এছাড়াও শরণার্থী ইস্যুতে তার নিরাপত্তা ব্যবস্থা উড়িয়ে দেয়া যায় না পাশাপাশি আছে  পুরনো কুর্দি সমস্যা আর উদারপন্থী সমাজ ।
এরদগানের রাজনৈতিক ঘনমাত্রা কতটুকু তা সময়ই বলে দেবে ।
International Affairs