সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন MAD (২২-০৫-২০১৬ ১৬:২০)

টপিকঃ ঘূর্ণিঝড়ের নামকরন কিভাবে করা হয়?

কিছুদিন আগে ঘূর্ণিঝড় রোয়ানুর পার হয়ে গেলো
তার আগেও যেমন নার্গিস, ক্যাটরিনা, মারিয়া, হেলেন, লায়লা, রেশমী, নিলুফার, নিশা, বিজলী, প্রিয়া, চপলা, মালা, তিতলী, মোরা, কোমেন, আইলা, কেইলা, নিনা, পাউলাইন, আইনিকি, সিডর, নাডা মাদী, হিক্কা, তালাশ-এসবই মেয়েদের নামে ঘূর্ণিঝড়ের নাম।
আচ্ছা এইসব ঘূর্ণিঝড়ের নামকরন কিভাবে করা হয়?

Re: ঘূর্ণিঝড়ের নামকরন কিভাবে করা হয়?

http://lmgtfy.com/?q=how+name+cyclone

  “যাবৎ জীবেৎ সুখং জীবেৎ, ঋণং কৃত্ত্বা ঘৃতং পিবেৎ যদ্দিন বাচো সুখে বাচো, ঋণ কইরা হইলেও ঘি খাও.

Re: ঘূর্ণিঝড়ের নামকরন কিভাবে করা হয়?

MAD লিখেছেন:

আচ্ছা এইসব ঘূর্ণিঝড়ের নামকরন কিভাবে করা হয়?

আটলান্টিক মহাসাগর এলাকায় বাতাসের গতিবেগ ঘন্টায় ৬২ কি.মি.-এ উন্নীত হলে অর্থাৎ নিম্নচাপ যখন ঝড়ে পরিণত হয়, তখন এটিকে চিহ্নিত করার জন্য একটি নাম দেয়া হয়। হারিকেন অবস্থাতেও এগুলো এ নামেই পরিচিত হয়। ইংরেজি বর্ণমালা অনুসারে ২১ টি নাম (৫ টি অক্ষর বাদ দিয়ে) এক বছরের জন্য বাছাই করা হয় যেগুলো সাধারণত পর্যায়ক্রমিকভাবে ছেলে ও মেয়েদের নাম দিয়ে রাখা হয়। যেমন-২০০৬ সালের প্রথম হারিকেনটির নাম আলবার্টো, দ্বিতীয়টি বেরিল ইত্যাদি। এক বছরে ২১ টির বেশি হারিকেন উৎপন্ন হলে (২০০৫ সালে যেমন হয়েছিল), গ্রিক বর্নমালা অনুযায়ী নামকরণ করা হয়- হারিকেন আলফা, বিটা ইত্যাদি। এরকম ছয় বছরের জন্য নাম আগেই নির্ধারণ করে রাখা হয় এবং ছয় বছর পর পর একই নামগুলো আবার ফিরে আসে। যেমন ২০০৫ সালের নামগুলো আবার ২০১১ সালে ফিরে আসবে। তবে ক্যাটরিনা নাম আর কখনো ফিরে আসবে না, কারণ ধ্বংসাত্মক হারিকেনের নামগুলো তালিকা থেকে বাদ দেয়া হয় এবং নতুন নাম নির্ধারণ করা হয়। ২০১১ সালে ক্যাটরিনার জায়গায় তাই নতুন হারিকেনের নাম হবে ক্যাটিয়া (Katia)।
বাংলাদেশ তথা উত্তর ভারত মহাসাগর এলাকায় ঘূর্ণিঝড়ের নামকরণ করা হয় না। তার পরিবর্তে, আরব সাগর এলাকায় উৎপন্ন ঝড়গুলোকে A এবং বঙ্গোপসাগরে উৎপন্ন ঝড়গুলোকে B অক্ষর দিয়ে চিহ্নিত করা হয়। ১৯৯১ সালের ২৯ শে এপ্রিল যে ঘূর্ণিঝড় বাংলাদেশে আঘাত হেনেছিল তার পরিচয় TC-02B হিসেবে, তার মানে এটি ছিল ১৯৯১ সালে বঙ্গোপসাগরে উৎপন্ন দ্বিতীয় ঘূর্ণিঝড়। সম্প্রতি সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড়ের নাম মালা হলেও আসলে এটি কোন নাম নয়। একাধিক ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের সৃষ্টি হওয়াতে বিজ্ঞানীরা একে ঘূর্ণিমালা বলছিলেন, সেটাই সংক্ষেপে মালা নামে পরিচিত হয়েছিল। পৃথিবীর অন্যান্য মহাসাগরে উৎপন্ন ঘূর্ণিঝড়গুলিরও বিভিন্ন নাম দেয়া হয়।

উইকি

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

Re: ঘূর্ণিঝড়ের নামকরন কিভাবে করা হয়?

আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ । ঘূর্ণিঝড়ের নামকরন বিষয়টির ব্যখ্যা উপস্থাপনের জন্য ।

বিশ্বাস করি দায়িত্বশীল বাকস্বাধীনতার প্রতি এবং আরো বিশ্বাস করি আজকের প্রযুক্তি প্রেমী তরুন সমাজ ই গড়বে আগামীর সমৃদ্ধ এবং তথ্য ও প্রযুক্তি ভিত্তিক বাংলাদেশ । www.bongovandar.com