টপিকঃ উন্নয়ন ও গণতন্ত্র

সম্প্রতি বাংলাদেশে একটি তর্ক জমে উঠেছে। শাসক মহলের কেউ কেউ আকার-ইঙ্গিতে এরকম বলতে চাচ্ছেন, উন্নয়নের স্বার্থে কিছুদিন গণতন্ত্রকে স্থগিত রাখা যেতে পারে। এই ধরনের কথা সাধারণত কমিউনিস্টরাই বলে থাকে। তবে এতো স্থূলভাবে নয়। আমাদের দেশে এই মুহূর্তে হেফাজতকে স্বাধীনতার পরাজিত শত্রু ও জঙ্গিদের থেকে আলাদা করবার জন্য আওয়ামী লীগ বর্তমানে আপোষমূলক কৌশল অনুসরণ করছে। এমনকি সংবিধানকেও তারা সংশোধন করে সেখানে স্বাধীনতা সংগ্রামের অন্যতম  মূল আদর্শের বিরুদ্ধে রাষ্ট্র ধর্ম ইসলাম প্রবর্তন করেছেন। কিন্তু চোরে না শুনে ধর্মের কাহিনি। এই পশ্চাত্পদ ইসলামি শক্তিটি ধূর্ত এবং আধুনিক রাজনৈতিক দল জামায়াত-বিএনপির শক্তির সঙ্গে সময় সময় মিলে যায় এবং গণতন্ত্র ও গণতান্ত্রিক অধিকারের অপব্যবহার করে তাদের ইসলামি এজেন্ডা বা সংবিধান বিরোধী এজেন্ডা বাস্তবায়নের চেষ্টা করে। প্রশ্ন হচ্ছে ধর্মভিত্তিক এই সম্মিলিত রাজনৈতিক শক্তিকে আমরা গণতান্ত্রিক অধিকার দেবো কী? বাংলাদেশে পশ্চাত্পদ সংস্কৃতির বিস্তৃত উপস্থিতি বিদ্যমান এবং পুঁজিবাদী বিকাশের অসম্পূর্ণতা বিদ্যমান। গণতান্ত্রিক বিপ্লব এখানে চূড়ান্তভাবে সম্পন্ন হয়নি। তাই এখনকার গণতন্ত্র হচ্ছে নিছক পোকায় খাওয়া ভোটের গণতন্ত্র। যেই ভোটের মাধ্যমে একবার আওয়ামী লীগ এবং আর একবার বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় বসে যেতে পারে। কিন্তু শোষিত শ্রেণির ভাগ্যের কোনো উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন তাতে হবে না। তার মানে কি এই যে, দুই দলের মধ্যে যেই ক্ষমতায় আসুক তা নিয়ে আমাদের কোনো মাথা ব্যথা থাকবে না? উভয়কেই আমরা উনিশ-বিশ মনে করবো? এই সময়ের মধ্যে আওয়ামী আমলে মুক্তিযুদ্ধের ধারায় তুলনামূলকভাবে কি বেশি অগ্রগতি হয়নি? আমরা যদি বলি দু’দল মিলে দেশটাকে গিলে ফেলেছে এবং এদের কারো আমলেই কোনো উন্নয়ন হয়নি তাহলে কি সারা বিশ্বে তা গ্রহণযোগ্য সত্য বলে বিবেচিত হবে? এদেশে কি ৯০ দশকে দারিদ্র্যের হার ৫০ শতাংশ থেকে কমে বর্তমানে ২৫ শতাংশে নেমে আসেনি? প্রবৃদ্ধির হার ৪ শতাংশ থেকে বেড়ে ৬ শতাংশে পৌঁছায়নি? গড় আয়ু সত্তর বছরে উন্নীত হয়নি? মাতৃমৃত্যুর হার ও শিশু মৃত্যুর হার কমেনি? প্রাথমিক শিক্ষায় ১০০ শতাংশ ভর্তির হার অর্জিত হয়নি? মঙ্গা কমেনি? ক্ষেতমজুরদের মজুরি চার-পাঁচগুণ বৃদ্ধি পায়নি? নারীরা গৃহবন্দি না থেকে বিপুলভাবে কর্মক্ষেত্রে প্রবেশ করেনি? এই সাফল্যগুলো কোনো কোনো বামপন্থিরা হয়তো স্বীকার করবেন না, তারা সবটাকেই অন্ধকার দেখবেন, কোথাও কোনো আলো দেখবেন না। যারা এটা দেখবেন সেই বামপন্থিদের তারা “উন্নয়নবাদী” বলে মিথ্যা অপবাদ দেবেন।

Re: উন্নয়ন ও গণতন্ত্র

৯০ দশকে কমার জন্য কারন ছিল তখন গণতন্ত্র বলে কিছু ছিল না। তারা তখন চেয়েছিল জনগন তাদের সাথে থাকুক। তাই তারা কাজ করছে। তারা তাদের নিজেদের কিছু ভুলের জন্য আজ আমাদের এই স্বাধীন গণতন্ত্র। আর এখন চাইলেও সেই ৯০ আর ফিরে আসবে না। কারন তখন যারা ছিল তারা দেশকে ভালবাসত। আর এখন তারাও গণতন্ত্রের সুফল পেয়ে গেছে।

ঝামেলা'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত