টপিকঃ নান্টু স্যারের একটু প্যালিনড্রোম(palindrome) .........।

সোজা দরিরামপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের দিকে হাটছি। কোন তাড়া নেই,  তবে মনের মধ্যে এক ধরনের উচ্ছ্বাস।  তাই সোজা নান্টু স্যারের উদ্দেশ্যে হাঁটা। অনেক দিন নান্টু স্যারের কাছে যাওয়া হইনি , তাও বেশ কইয়েকদিন ধরে  স্যারের মোবাইল বন্ধ। মানুষেরর অনেক সময় অনেক অপ্রয়োজন কাজ প্রয়োজনের চাইতে বেশি পরিমাণ চুলকায়। ঠিক  নান্টু স্যারের কাছে বিজ্ঞান গিলা টা আমার অতি প্রয়োজন না,  তবে না গিলেও বেশি দিন ঠিকতে  পারিনা । তার দেওয়া বিজ্ঞান গিলার মত শান্তি আমি অন্য কোন জায়গায় পাইনি।  যাইহোক  প্রোগ্রামিং করার সময় প্যালিনড্রোম(palindrome) জিনিসটা ভালোই অভিশাপ দিচ্ছে, বলা যায় অভিশাপ মুক্ত হওয়ার জন্য আজকে স্যারের কাছে আসা।

আমি একা স্যারের রুমে বসে আছি । একজন পিওন এসে বলল  স্যার এখন ক্লাস নিচ্ছেন ঘন্টা আধেক অপেক্ষা করতে হবে।  না মানার কোন অপশন নেই তাই চুপচাপ বসে আছি। মানুষের একা সময় কাটানোর সুন্দর একটি উপায় হল তার আশেপাশে পরিবেশ নিয়ে বিশ্লেষণ করা । আমি এখন  তাই করছি।  বুঝা যায় স্যার অনেক  গোছাল খুব  সুন্দর করে রুম সাজিয়েছেন । আইনিস্টাইন, ইউক্লিড, নিউটন কিংবা আর্কিমিডিসের মত ব্যাক্তিদের ছবি শোভা পাই। আমি আইনিস্টাইনের ছবির দিকে তাকিয়ে আছি উনিও আমার দিকে তাকিয়ে আছেন। খুব কথা বলতে ইচ্ছে করছে আইনিস্টাইনের সাথে । বাস্তবে তো সম্ভব না তাই ভাবলাম ছবির সাথে কথা বলি কিন্তু সমস্যা বড় মহৎ, পাশে পিওনটি বসে আছে ।  নিশ্চিত পাগল –টাগল ভাবতে দ্বিধা করবেনা। ইচ্ছে করছে একটি ঘুষি দিয়ে তাকে বের করে দিই “তোর এখানে কাজ কি ? বের হও”

-“শুভ , কেমন আছে?”

পিছনে থেকে নান্টু স্যারের আগমন।

-“ স্যার, আমি ভালো আছি।  আপনার শরীল ক্যামন?”

-“শরীলের কথা আর বলিওনা এই আছি এই নাই। তো হঠাৎ  কি মনে করে? ”

-“স্যার বিজ্ঞান খাওয়া হইনি অনেক দিন ধরে। অনেক খিদা আছে  আজ প্যালিনড্রোম(palindrome) খাব”

আমার কথা শুনে স্যার হাসি দিয়ে বললেন।
-“এসে ভালো করছ। অনেক দিন ধরে একা , সময় টা খুব অশুভ যাচ্ছে”

স্যার একটা পান খাওয়া শেষ না করতেই সাথে  আরেকটি পান  গালে ঢুকাই দিলেন । আর আমার দিকে মিটমিট করে হাসছেন। মাঝে মাঝে স্যারের পান খাওনি দেখে  খুব ইচ্ছে হই পান খাওয়ার তৃপ্তি টা পেতে।





-         “শুভ , চক টা নিয়ে  ব্লেক বোর্ডে লিখ MADAM”

আমি স্যারের আদেশ পালন করলাম;

-“গুড, এখন যে শব্দ টি লেখেছ তার উলাটা করে (অর্থাৎ শেষ শব্দ প্রথমে এবং প্রথম শব্দ শেষে) শব্দটি আবার লিখ, এখন দেখে শব্দ দুটির মাঝে কোন পার্থক্য আছে?”

-“হুম তাইতো , স্যার দুটি শব্দ একই “

-“এটাই হল প্যালিনড্রোম(palindrome)”

এই বলে স্যার আরেকটি পান মুখে দিলেন রীতিমত স্যারের পান খাওয়াটা সমানুপাতিক হারে  বেড়ে চলছে ।

-“বুঝলে শুভ , শব্দ বা বাক্য নিয়ে যত ধরনের মজার মজার ব্যাপার হতে পারে তার মধ্যে প্যালিনড্রোম(palindrome) অন্যতম। এটি শুদু বিজ্ঞান কিংবা গণিত না এটি একধরণের মজার খেলা যেমন টা এই মজার খেলাটা  তরুন প্রোগ্রামাররা অনেক বেশি  খেলে। সোজা কথায় বলতে গেলে কোনো একটা শব্দ বা বাক্যকে উভয়দিক থেকে পড়লে যদি একই জিনিস পাওয়া যায় তাহলেই সেটা একটা প্যালিনড্রোম, যেমন- 'MADAM' বা উপরের বাক্যটি। সাউথ-ওয়েস্টার্ন আর্কিলজিস্ট সাইপ্রাস (Cyprus) প্রথম ১৫০০ বছর পূর্বের একটি খোদায় করা কবজ পেয়েছিলেন যেখানে ৫৯ শব্দের কিছু একটি লিখা ছিল। যা পিছন কিংবা সামনে থেকে পড়লে একই জিনিস পাওয়া যায়। তখন থেকে পৃথিবী নতুন করে প্যালিনড্রোম(palindrome) এর সাথে পরিচিত হচ্ছে। তবে এর উৎপক্তি নিয়ে মাতামাতির শেষ নেই”

এই বলে স্যার তার পুরানো আলমারি থেকে আমাকে সেই খোদায় করা কবজ টির একটি কপি  দেখালেন।

  ΑΕW
ΒΑΦΡΕΝΕΜ
ΟΥΝΟΘΙΛΑΡΙ
ΚΝΙΦΙΑΕΥΕ
ΑΙΦΙΝΚΙΡΑΛ
ΙΘΟΝΥΟΜΕ
ΝΕΡΦΑΒW
ΕΑ


-“ ইংরেজিতে খুব প্রচলিত একটি প্যালিনড্রোম হল Able was I ere I saw Elba (যদিও বলা হয়ে থাকে সম্রাট নাপোলেওনের মুখের কথা, তবুও এ নিয়ে বিবাদ আছে)। ইংরেজিতে প্যালিনড্রোমের অভাব নেই; অভাব নেই ইউরোপের অনেক ভাষাতেই। ফিনিশ ভাষাকে তো প্যালিনড্রোমের ভাষাই বলা হয়।
ইংরেজিতে আরো কয়েকটি বেশ প্রচলিত প্যালিনড্রোম(palindrome) হল
Aibohphobia,
Malayalam,
Ya, Decaf. FACE DAY!!,
Won’t I Panic In A Pit Now?,
Too Far, Edna. We Wander Afoot,
Test Tube Butt Set,
Ten Animals I Slam In A Net,
বাংলায় প্যালিনড্রোম বেশ বিরল।  ছোটবেলার তোমাদের  প্রায় সবার জানা ‘রমাকান্ত কামার’ ছাড়া আর প্রায় তেমন নেই। তিন অক্ষরের কয়েকটি শব্দ পাওয়া যায়: মধ্যম, নতুন, নবীন, সমাস, মলম, জমজ, দরদ ইত্যাদি। তবে সংস্কৃতেও চতুর্দশ শতকের দৈবজ্ঞ সূর্য পণ্ডিতের লেখা ৪০ শ্লোকের রামকৃষ্ণ বিলোম কাব্যম নামের একটি কবিতা পাওয়া যায় যার প্রতিটি শ্লোক একেকটি প্যালিনড্রোম।
উদাহরণ: তামসীত্যসতি সত্যসীমতা মায়য়াক্ষমসমক্ষয়ায়মা। মায়য়াক্ষমসমক্ষয়ায়মা তামসীত্যসতি সত্যসীমতা॥ (৩ নং শ্লোক)। যাই হোক একটু বড়: নবজীবন। কয়েকটি শব্দবন্ধও পাওয়া যায়: ‘থাক রবি কবির কথা,’ ‘বিরহে রাধা নয়ন ধারা হে রবি’ ইত্যাদি; ধারণা করা হয় এ দু'টি কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের  অবদান। আরও দুয়েকটি পাওয়া গেছে, যদিও উৎস জানা নেই: ‘কীর্তন মঞ্চ পরে পঞ্চম নর্তকী’ এবং ‘মার কথা থাক, রমা।”

-“স্যার , প্যালিনড্রোম(palindrome) এর বাংলা কোন প্রতিশব্দ নেই?”
আমার প্রশ্নে স্যার একটু হেসে উঠলেম ।

-“না, বাংলা ডিকশোনারিতে প্যালিনড্রোম(palindrome) বলতে কোন শব্দ নেই । তবে আমি মনে করে বাংলা তত্ত্ব ভান্ডারে এই শব্দের প্রতিশব্দ দেওয়া দরকার। আর আমি হলে প্যালিনড্রোম(palindrome) শব্দের অর্থ দিতাম দিগনিরপেক্ষক, অগ্রপশ্চাতসমর্থক, দিকসমান, উভমুখ, সমদিকশ্রুত”

-“জি স্যার , প্রতিশব্দ টা  দেওয়া জরুরী”

-“শুভ এখন তোমার প্যালিনড্রোম(palindrome) প্রোগ্রাম রেডি তো ?????”


যারা প্যালিনড্রোম(palindrome) প্রোগ্রাম টি সি++ এ করতে চান তারা নিচের লিংকে ঢু দিতে পারেন ...............
http://solveproblem-ahmedshuvo969.blogs … me-or.html



আহমেদ শুভ৯৬৯
ahmed shuvo969