টপিকঃ ১৪ বছর সাজার বিধান রেখে হচ্ছে সাইবার আইন

ডিজিটাল সিকিউরিটি আইন-২০১৬ পাস হলে তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৫৪, ৫৫, ৫৬ ও ৫৭ ধারা বাদ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক

শীর্ষ নিউজ, ঢাকা: সাইবার অপরাধ দমনে সর্বোচ্চ ১৪ বছরের শাস্তির বিধান রেখে ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন’ করতে যাচ্ছে সরকার বলে মন্তব্য করেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

এই আইন হলে তথ্য প্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারা নিয়ে যে বিতর্ক রয়েছে, তা দূর হবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্ট মন্ত্রীরা।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রণীত আইনের খসড়া নিয়ে রোববার সচিবালয়ে আইন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ বৈঠক হয়।

পরে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক সাংবাদিকদের বলেন, নতুন আইনে সর্বোচ্চ ১৪ বছরের শাস্তির বিধান রাখা হচ্ছে। এছাড়া অপরাধের ধরন অনুযায়ী সর্বনিম্ন শাস্তিও নির্ধারণ করে দেওয়া হবে। নতুন আইনে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে একটি কমিটি গঠনের কথা বলা হয়েছে জানান তিনি।

আনিসুল বলেন, “সাইবার ক্রাইম এক সময় সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অপরাধ হিসেবে বিবেচিত হবে।”

বাংলাদেশে ইন্টারনেটের প্রসারের সঙ্গে সঙ্গে সাইবার জগতে অপরাধের ঘটনাও ঘটতে থাকে।

এর আগে প্রণীত তথ্য প্রযুক্তি আইনে অপরাধ দমনের ধারা থাকলেও তা নিয়ে বিতর্ক উঠেছে। ওই আইনের ৫৭ ধারাকে মুক্ত চিন্তার অন্তরায় হিসেবে দেখে তা বাতিলের দাবিও উঠেছে। - See more at: http://www.sheershanewsbd.com/2016/01/1 … vY3Oe.dpuf

http://www.sheershanewsbd.com/2016/01/10/111875

Re: ১৪ বছর সাজার বিধান রেখে হচ্ছে সাইবার আইন

আইন হবে কিন্তু তার কোন প্রয়োগ হবে না। প্রয়োগ শুধু তখনি হবে যখন সরকার বিরধী কোন বক্তব্য কারো স্ট্যাটাসে পাওয়া যাবে। সাধারনন জনগন এসবের বাহিরের থেকে যাবে। ইন্টারনেট থেকে ট্রেস করে খুজে বের করা এত সোজা নয়, সো সাধারন পাবলিকের জন্য পুলিশ প্রশাসন এসব গ্রহন করবে না।

Domain Registration | Hosting Solution | Web Development
99.9% Uptime Guarantee | 24/7 Live Support | SSD Server.
Best Domain Hosting Company in Bangladesh

রাজিব আহসান'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: ১৪ বছর সাজার বিধান রেখে হচ্ছে সাইবার আইন

খসড়ায় যা দেখেছিলাম, কায়দা করলে মোটামুটি সব ইউজারই দোষীর তালিকায় পড়বে। যাকে তাকে ইচ্ছেমত বাশ-ডলা দিতে চাইলে, এখন থেকে চুয়ান্ন ধারার বদলে পুলিশ/সরকার সাইবার আইনকেই ব্যাবহার করতে পারবে! thumbs_up

যেমন আপনি প্রথমআলো ডটকমে গেলেন, ওখানার এডসেন্স ব্লাক লিস্টেড এক্সওয়াইজি ডটকমকে কলকরেছে... ব্যাস নতের বছরের কারাদন্ড, সাথে প্রতি রাতে বাশ ডলা ফ্রী! আপনার ফ্লাটের নিচের ফ্লাটে হয়তো মন্ত্রীর ভাতিজা পর্নগ্রাফি সাইটের সার্ভার বসিয়েছে তাতে ওর কোন সমস্যা নেই। আপনার রাউটার থেকে ঐ সার্ভারে কোন ভাবে পিং হলেই আপনি শেষ!