সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন biccinnomanus (১০-১০-২০১৫ ১৪:৫৭)

টপিকঃ ভিপিএস(VPS) হোস্টিং টিউটোরিয়াল, digitalocean সেটআপ, ফ্রি ১০ ডলার

টিউটোরিয়াল সময়কালঃ ২ ঘন্টা ।
নূন্যতম অভিজ্ঞতাঃ জীবনে একবার হলেও ওয়ার্ডপ্রেস ইনস্টল করেছেন, ফাইলজিলা ব্যবহার করে ফাইল আপলোড করেছেন এবং ডোমেইন, হোস্টিং কি সে সমন্ধে পরিষ্কার ধারনা আছে ।
ওয়ার্নিংঃ দয়া করে কেউ স্প্যামিং করবেন না এই টিউটোরিয়াল দেখে বিশেষ করে যেসব ওয়েবসাইটের লিংক দেওয়া হবে সেগুলাতে । স্প্যামিং এর কারনে পূর্বের কিংবা ভবিষ্যতের ব্যবহারকারীদের অনেক বিপদে পরতে হয় । তাই আপনার প্রয়োজন কিংবা ভবিষ্যতে ভিপিএস ব্যবহার করবেনই তারা টিউটোরিয়াল ফলো করুন ।

আমি টিউটোরিয়াল খুব সিম্পল রাখার চেস্টা করবো এবং যেভাবে বললে বুঝবেন বা যতটুকু প্রয়োজন ঠিক ততটুকুই বলবো । আর রেজিস্ট্রেশন করা থেকে শুরু করে সবকিছু একটানা করার চেস্টা করবেন ।
সমস্যাঃ আমি এই নোটে ইমেজ এড করার অপশন পাচ্ছি না । কেমনে এড করে?যতক্ষন সমাধান পাচ্ছি না ততক্ষন http://mehedilive.com/?p=238 এই লিংকে গিয়ে ইমেজগুলো দেখতে হবে । সমাধান পেলেই লিংক ডিলিট করে দিব ।


ভিপিএস(VPS) হোস্টিং কি জিনিসঃ
যারা ভিপিএস(VPS) কি একবারেই জানেন না তাদের বলি সহজ ভাষায় এটা একটা ভার্চুয়াল কম্পিউটার ঠিক আপনার ব্যক্তিগত কম্পিউটারের মত । ভিপিএস কিনলে ঐ ভার্চুয়াল কম্পিউটার আপনি ব্যবহার করতে পারবেন যেভাবে ইচ্ছা সেভাবে । ঠিক ব্যক্তিগত কম্পিউটারের মত । আবার যতখুশি আপনার ওয়েবসাইটও হোস্ট করতে পারবেন । আর ওয়েবসাইট লোড হবে বিদ্যূৎ গতিতে । শেয়ার হোস্টিং এ আপনার ওয়েবসাইটসহ আরও অনেক মানুষের ওয়েবসাইট হোস্ট করা হয় । অর্থাৎ একটা ভার্চুয়াল কম্পিউটার অনেক মানুষ ব্যবহার করে । যার ফলে ওয়েবসাইট লোড স্পিড কমে যায়, একটু ভিসিটর বাড়লেই সাইট অফলাইন হওয়াসহ নানা জটিলতায় পরতে হয় । কিন্তু ভিপিএস এ সেসব নাই । মাসে যদি মিলিয়ন ভিসিটরও আসে আপনার সাইট অফলাইন হবে না, লোডিং স্পিড কমবে না । ছোট একটা পরিসংখ্যানঃ এই টিউটোরিয়াল শুরুর আগে গুগল পেজইনসাইটে নরমাল হোস্টিং এ পেজলোড স্পিড ৬৯ এবং সেখানে ভিপিএসে ঐ ওয়েবসাইট আপলোডের পর ৮৯ হয় । আবার জিটিম্যাট্রিক্সে ৫২ থেকে ৮৮ উঠে গেছিল পেজলোডস্পিড ।
ভিপিএস(VPS) হোস্টিং মাসিক খরচ?
মাত্র ৫ ডলার যথেষ্ট ওয়েবসাইটের মিলিয়ন ভিসিটর সামলাতে । ২০ জিবি ডিক্স স্পেস আর ১ টেরা অর্থাৎ ১০০০ জিবি ব্যান্ডউইথ এতে। শুরু করা যাক টিউটোরিয়াল ।
ডোমেইন কিনুন এক ডলারেঃ
প্রথমে আপনার একটা ডোমেইন কিনতে হবে । এক ডলারে .com ডোমেইন কিনতে চাইলে এই http://mehedilive.com/1dollardomain লিংকে যান । ১৭ সেন্টে .com, ডোমেইন এবং এক ডলারে .net, .info ডোমেইন কিনতে এই http://mehedilive.com/17centdomain লিংকে যান ।
মজার ব্যাপার হচ্ছে ওয়ান এন্ড ওয়ান থেকে .info ডোমেইন যতখুশি কিনতে পারেন এক ডলার করে । যদিও লিমিট ৫টা বলে কিন্তু আমি একদিনে ৭ টা ডোমেইন কিনে দেখছি কোন সমস্যা হয় না । নিস বা মানি ওয়েবসাইট এর জন্য .com ডোমেইন রিকমেন্ডেড।
অনলাইন বেস্ট পেমেন্ট মেথডঃ
অনলাইন জগতে আপনি যাই কিনতে চান না কেন আপনার ক্রেডিট কার্ড লাগবেই । আমরা ভার্চুয়াল ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করবো কেনাকাটার জন্য । এই লিংকে যান রেজিস্ট্রেশন করে ফেলুন ।
https://neteller.com
মেনু থেকে Net+ Card সিলেক্ট করুন এবং Add a virtual card বাটনে ক্লিক করে নতুন কার্ড তৈরী করুন এবং কার্ডের ইনফরমেশনগুলো যত্ন করে সংরক্ষন করুন ।
কিন্তু আমরা অনলাইনে যা ইনকাম করি তা উইথড্রো করতে বেশীরভাগ সাইটই পেওনিয়ার সাপোর্ট করে । তাছাড়া আপনি পেওনিয়ার ব্যালেন্সও কিনতে পারবেন সহজেই আপনার আশপাশের মানুষের কাছ থেকে । যদি আপনার কার্ড না থাকে তবে, বাস্তবে পেওনিয়ারের ক্রেডিট কার্ড পেতে রেজিস্ট্রেশন করুন http://mehedilive.com/payoneer25dollarbonus এইখান থেকে । সাথে ২৫ ডলার বোনাস তো থাকছেই ।
কেন পেওনিয়ার পেমেন্ট মেথডঃ
আমরা পেওনিয়ার ক্রেডিট কার্ড দিয়ে অনলাইনে কোথাও পে করবো না কারন এদের রিকারিং/বিলিং প্রবলেম আছে । আপনি একবার কোথাও পে করলে আপনার কার্ড থেকে যাচ্ছেতাই আরও ফি কেটে নিতে পারবে ঐ ওয়েবসাইট আপনার অজান্তেই । তাই আমরা পেওনিয়ারের ডলারগুলো নেটেলারের ক্রেডিট কার্ডে ট্রান্সফার করে অনলাইন সব পেমেন্ট করবো ।

আমি অনেকদিন আগে একবার এড করছিলাম যদিও তারপর থেকে আমি পেপাল দিয়ে পে করি সব সময় । তাই যদি নেটেলারের কার্ড সাপোর্ট না করে তবে পেওনিয়ার দিয়ে চেস্টা করুন ।আর তাও যদি না হয় তবে অন্য যেকোন দেশের নাম ঠিকানাসহ একটা  পেপাল একাউন্ট খুলুন(ইউএস এর নাম দিয়ে না খোলাই ভাল) । তারপর নেটেলারের ভার্চুয়াল কার্ড দিয়ে পেপাল ভেরিফাই করে নিন ।

ডিজিটালওসান (digitalocean) ভিপিএস (vps) রেজিস্ট্রেশনঃ
মাসিক ৫ ডলারের ভিপিএস কিছুদিন আগেও কল্পনা করা যেত না । কিন্তু ডিজিটালওসান এটি দিচ্ছে এবং তাদের হাইক্লাস সার্ভিস সত্যিই প্রশংসনীয় । প্রথমে এই লিংক থেকে রেজিস্ট্রেশন করুনঃ http://mehedilive.com/digitalocean10dollarbonus
হ্যা আপনি ১০ ডলার ব্যালেন্স পাবেন উপরের লিংক থেকে রেজিস্ট্রেশন করলে । আর হ্যা ঐ যে নেটেলারের ভার্চুয়াল ক্রেডিট কার্ড তৈরী করলাম সেটা রেজিস্ট্রেশন করার পর এড করে নিতে হবে ১০ ডলার ইউজ করতে হলে ।
ডিজিটালওসান(digitalocean) এ লগিন করার পর Create Droplet নামে একটা বাটন পাবেন । ক্লিক করলে নীরের মত পেজ আসবে ।

Droplet Hostname: যা খুসি দিতে পারেন । তবে আপনার মেইন ডোমেইনের নাম বসাতে পারেন । Select Size: আপনার পছন্দসই সাইজ সিলেক্ট করুন । ৫ ডলারের প্যাকেজ দিয়েই আপনার ওয়েবসাইটে মিলিয়ন ভিসিটর আসলেও কোন প্রবলেম হবে না......:) । ২০ জিবি মেমরী ফুল না হওয়া পর্যন্ত যতখুশি তত ফাইল আপলোড/ওয়েবসাইট হোস্ট করতে পারবেন । Select Region: আপনার ওয়েবসাইটে যে দেশ থেকে বেশী ভিসিটর আসে সেইটা সিলেক্ট করতে পারেন । Select Image: ১৪.০৪ এর ৬৪ বিটের উবুন্টু সিলেক্ট করবো ।
এবার Create Droplet বাটনে ক্লিক করুন । এক মিনিটের মধ্যেই আপনার ড্রপলেট তৈরী হয়ে যাবে । এরপর নীচের মত ইমেজ দেখতে পাবেন ।

স্কিনশর্টের উপরের দিকে একটা আইপি এড্রেস দেখতে পাবেন যেমন: 198.199.98.x.x.x । এটাই আপনার নিজস্ব ভার্চুয়াল কম্পিউটার মানে ভিপিএস এর ঠিকানা smile (.x.x.x বলতে আপনার আইপি এর অন্য তিনটা সংখ্যা আরও থাকবে)
ডিজিটালওসান (digitalocean) মেনু পরিচিতিঃ
এছাড়া বামপাশে কিছু মেনু দেখতে পাবেন । Access, Power, Resize, Snapshots, Settings, Graphs, History, Destroy । এসব নিয়ে তেমন বলবা না কারন দেখলেই মোটামুটি বোঝা যায় কোনটার কি কাজ । তবে Destroy নিয়ে কিছু বলব । ধরুন আপনি টেস্ট করার জন্য ড্রপলেট খুললেন এবং প্রয়োজনীয় সব সফটওয়ারও ইনস্টল করলেন(বিস্তারিত নীচে আছে) । যেহেতু আপনি শিখছেন তাই একটু টেস্ট করবেন । পরেরবার সবকিছু ভাল করে কনফিগার করতে চাইতেও পারেন কিংবা  নতুন করে সবকিছু আবার করতে চাইলে আপনি ড্রপলেট Destroy করতে পারেন । আপনার কনফিগার করা এমনকি সেই আইপি এড্রেসসহ সব কিছু মুছে যাবে তখন । আপনার বিল কাটাও বন্ধ হয়ে যাবে সঙ্গে সঙ্গে । এরপর আবার যখন খুশি তখন নতুন আরেকটি ড্রপলেট তৈরী করতে পারবেন এবং আবার নতুন আরেকটি আইপি এড্রেস পাবেন সবকিছু কনফিগার করবেন আগের মত করে ।
যাইহোক, ভাল কথা আপনার ইমেইলটা চেক করুন । ড্রপলেট তৈরী হবার সাথে সাথেই আপনি একটি ইমেইল পাবেন । যেখানে আপনার ড্রপলেটের নাম, আইপি এড্রেস, ইউজার নেম ও পাসওয়ার্ড থাকবে ।
জেডপ্যানেল/সেনটোরা কি ?
সবাই বলে ভিপিএসের সবচেয়ে বড় সমস্যা একে ম্যানেজ করা কঠিন এর কোন সিপ্যানেলও নাই(২০ ডলার লাগে মাসিক ফি সিপ্যানেলের লাইনসেন্স কিনতে) । সত্যিই কি তাই ? ঠিক যা যা বলবো তা তা করলে দেখবেন কত সহজে সব কিছু ম্যানেজ হয়ে যাবে । আমরা সিপ্যানেলের আরেক ভাই জেডপ্যানেল ইনস্টল করবো যেটা ওপেনসোর্স তাই সম্পূর্ন ফ্রি । এটার ইন্টারফেস একবারে সিপ্যানেলের মতই অনেকটা । তবে জেডপ্যানেলের বর্তমানে রক্ষনাবেক্ষন করে সেনটোরা(এরাই এখন আপডেট করছে) । সিপ্যানেলে যেসব সেটিং দরকার হত আমাদের ওয়ার্ডপ্রেস/যেকোন সাইট তৈরী করতে তার বেশীরভাগ অপশনই এখানে আছে ।(পরে জেডপ্যানেলের ছবি দেওয়া আছে)
প্রয়োজনীয় সফটওয়ারঃ উইন্ডোজের ক্ষেত্রে putty.exe নীচের লিংক থাকে ডাউনলোড করে ইনস্টল করে ওপেন করুন । http://www.chiark.greenend.org.uk/~sgta … nload.html
উপরের ক্রিনশটের মত আপনার ড্রপলেটের আইপি বসান । বামপাশের Selection সিলেক্ট করে Windows  রেডিও বাটল সিলেক্ট করুন নয়তো পুটিতে paste অপশন দেখতে পাবেন না । পুটি ওপেন করলে একটা ওয়ার্নিং দেখাবে যে দুরের সার্ভারে আপনি কানেক্ট হতে চান কিনা । ইয়েস করুন ।
login as: root লিখে ইন্টার চাপুন ।
root@ip password: ইমেলে পাওয়া পাসওয়ার্ড দিন । পাসওয়ার্ড দেখতে পারবেন না । তাই পাসওয়ার্ড টাইপ/কপি-পেস্ট করে ইন্টার চাপুন । এরপর উবুন্টু আপনার ইমেলে পাওয়া পাসওয়ার্ডটা পরিবর্তন করতে বলবে প্রথম লগিনের জন্য । করে নিন সেটা নতুন পাসওয়ার্ড বসিয়ে । এটাই এখন আপনার root এর পাসওয়ার্ড ইমেলেরটা আর কাজ করবে না ।
সেনটোরা/জেডপ্যানেল ইনস্টলঃ
আমাদের কমান্ড লাইন ব্যবহার করে zpanel ইনস্টল করতে হবে । পুটিতে নীচের লেখা টাইপ/কপি-পেস্ট করে ইন্টার চাপুন ।
bash
একটু পরে আপনি কোন এরিয়াতে থাকেন সিলেক্ট করতে বলবে । এইখানে ঢাকা নাই sad যেকোন এরিয়া সিলেক্ট করে কিবোর্ডের এ্যারো ব্যাবহার করে ok বাটনে সিলেক্ট থাকা অবস্থায় ইন্টার চাপুন । টাইমজোনের ব্যাপারেও একি কাজ করুন ।
এরপর Enter the sub-domain you want to access Sentora panel: এমন লাইন পাবেন । এইখানে আপনি যে সাব-ডোমেইনে আপনার Sentora panel রাখতে চান সেটি টাইপ করুন । যেমন: panel.example.com (ডিফল্টভাবে আপনার ড্রপলেটের নাম দেওয়া থাকবে সেট মুছে দিয়ে সাবডোমেইনের নাম দিন) । ইন্টার চাপুন । নীচের মত লাইন আসবে ।
Enter (or confirm) the public IP for this server: your_server_ip দেখুন ভালভাবে আইপি ঠিক আছে কিনা যদি ঠিক থাকে ইন্টার চাপুন । একটা লাল লেখায় ওয়ার্নিং দেখবেন, সেটা সমস্যা না । y টাইপ করে ইন্টার চাপুন । বেশ কিছুক্ষন সময় নিবে ইনস্টল হতে । সময় দিন । ইনস্টলশনের শেষের দিকে আপনাকে সার্ভার reboot করতে বলবে । আবার y টাইপ করে ইন্টার চাপুন এবং নতুন করে পুটিতে ঢুকে লগিন করুন । ব্যাস ইনস্টল হয়ে গেছে আপনার সিপ্যানেল সরি জেডপ্যানেল....:)
FTP এক্সেস যারই থাকবে সেই যেন সকল ফাইল এডিট বা ডিলেট করতে পারে এজন্য পারমিশন নিতে পুটিতে লিখে ইন্টার চাপুন: cd /var/sentora/hostdata/zadmin/public_html/ এরপর sudo chown www-data:www-data * -R এই লাইন লিখে ইন্টার চাপুন তাইলেই কাজ শেষ ।
আপনি যেখান থেকে ডোমেইন কিনছেন সেখানের ডোমেইন কন্ট্রোল প্যানেলে ঢুকুন । এখন আপনার ডোমেইনকে ডিজিটালওসান হোস্টিং এ পয়েন্ট করতে হবে । DNS Settings বা ডোমেইন নেম সিস্টেমে ডিফল্টভাবে তাদের নিজস্ব হোস্টিং সেটিং থাকে । সেখানে গিয়ে ns1.digitalocean.com ns2.digitalocean.com ns3.digitalocean.com এই তিনটি DNS Settings এড করুন । ১৫-২০ মিনিটের মধ্যে ডোমেইন ডিজিটালওসান এর সাথে কানেক্ট হয়ে যাবে ।
এবার ডিজিটালওসানে লগিন করুন । DNS মেনুতে ক্লিক করে নীচের স্ক্রিনশটের মত করে Add a Domain অংশের নীচে আপনার ডোমেইন নাম এবং তৃতীয় ঘরে আপনার ড্রপলেট সিলেক্ট করুন । দ্বিতীয় ঘরে অটোমেটিক আপনার আইপি এড হবে । Create Record বাটনে ক্লিক করুন ।

এবার ডিজিটালওসান এ ঢুকুন আবার । DNS মেনুতে ক্লিক করে যে ডোমেইন এড করছি সেটায় ক্লিক করুন । A বাটনে সিলেক্ট থাকা অবস্থায় নীচের স্কিনশটের মত করুন ।
প্রথম ঘরে সাবডোমেইনের অংশটুকু টাইপ করুন যেটায় আপনার জেডপ্যানেল ইনস্টল হবে এবং পরের ঘরে আপনার ড্রপলেটের আইপি এড্রেস টাইপ করুন । যেমন প্রথম অংশে panel পরের অংশে আইপি 198.199.98.x.x.x  । Create A Record বাটনে ক্লিক করে এড করুন রেকর্ডটি ।
সাকসেসফুল দেখানোর পর আবার Select Record Type থেকে এবার MX এ ক্লিক করে সিলেক্ট করুন । নীচের স্কিনশটের মত করে @ এবং পরের ফিল্ডে 10 বসিয়ে Create MX Record বাটনে ক্লিক করুন ।
সাকসেসফুল দেখানোর পর এবার Select Record Type থেকে TXT বাটন এ ক্লিক করে সিলেক্ট করুন । নীচের স্কিনশটের মত করে @ এবং পরের ফিল্ডে v=spf1 a mx ip4:your_server_ip ~all বসিয়ে Create TXT Record  বাটনে ক্লিক করুন ।
এখন নীচের স্ক্রিনশটের সাথে মিলিয়ে নিন সব ঠিক আছে কিনা ।

আমরা এতক্ষন যা করলাম তা হল DNS সেট করলাম, সাবডোমেইন এড করলাম এবং আপনার মেইল সার্ভার থেকে পাঠানো মেইল যাতে স্পাম ফোল্ডারে না যায় সেজন্য একটু বাড়তি কাজ করলাম ।
এবার আপনার সাবডোমেইন কোন একটা ব্রাউজারে ওপেন করলে সেনটোরা লগিন প্যানেল দেখতে পাবেন smile http://panel.example.com
এর ডিফল্ট ইউজারনেম zadmin এবং পাসওয়ার্ড পেতে পুটিতে নীচের কমান্ড টাইপ করুন । cat /root/passwords.txt zadmin Password: থেকে পাসওয়ার্ডটি কপি করুন । এবং লগিন করুন জেডপ্যানেলে । ঢোকার সাথে সাথে উপরের Account মেনু থেকে পাসওয়ার্ডটি পরিবর্তন করুন ।
আশা করি পরের কাজগুলো নিজেরাই পারবেন তাও একটা ডোমেইন এড করা দেখাই যারা কিছুই জানেন না তাদেরকে । পরের ডোমেইনগুলো নিজেরাই এড করবেন । নীচের স্ক্রীনশটের মত সবকিছু দেখতে পাবেন ।

উপরের Home মেনু তে কিক্ল করে নীচে দিকে Domain Management অংশ থেকে Domains বাটনে ক্লিক করুন । ফাকা স্থানে example.com আপনার মেইন ডোমেইনটি টাইপ করুন এবং Create বাটনে ক্লিক করুন । কিছু সময় অপেক্ষা করুন pending  এর বদলে Live লেখা উঠলেই বুঝবেন ডোমেইন এড হয়ে গেছে । আর ওয়েবসাইট লিংক টাইপ করলে সেনটোরা এর ডিফল্ট পেজ দেখতে পাবেন ।
File Management box এর  FTP Accounts ক্লিক করে আপনার পছন্দসই ইউজারনেম পাসওয়ার্ড দিয়ে Access type: এ full access এবং Home directory: তে  Set Master home directory সিলেক্ট করে root অপশন সিলেক্ট করুন । তাইলে এই একটা FTP Account দিয়েই আপনার এড করা সব ডোমেইনে ফাইল আপলোড, এডিট এক্সেস পাবেন । এবার আপনার ফাইলজিলা একাউন্টে ঢুকুন এবং ফাইল/ওয়েবসাইট ফাইল আপলোড করুন ।
Database Management  থেকে ডাটাবেস তৈরী করে নিন যদি ওয়ার্ডপ্রেস সাইট হয় । সবকিছুই সিপ্যানেলের মত ।
কোন সমস্যা হলে কমেন্ট করুন ।