টপিকঃ পরীক্ষার হলে একটা হাসির বাকসো আছে

১.
পরীক্ষার প্রথম ঘন্টা।

স্যার বললেনঃ কেউ নকল করবেনা। সুন্দরভাবে পরীক্ষা দাও ।
বল্টু টুকিটাকি ,ছোট ছোট কাগজে নানা স্টাইলে ,বিয়াপক গবেষণা করে বের করা পদ্ধতিতে আগের রাতে পাওয়া প্রশ্নপত্রের ৩টি টুকরো কাগজে বাড়ি থেকে লিখে আনা উত্তরমালাটি বের করে মহাআনন্দে লেখা শুরু করল।

পরীক্ষার দ্বিতীয় ঘন্টায়
স্যার বললেনঃ আমি আবারও বলছি। কারও কাছে নকল থাকলে জমা দিয়ে দাও।
বল্টু একটি টুকরো সুবোধ বালকের মত জমা দিয়ে দিল।
তারপর পরবর্তী কাগজটা থেকে আবার মহানন্দে লেখা শুরু করল ।

পরীক্ষার তৃতীয় ঘন্টা

স্যার এবার বেশ কঠোরভাবে আদেশ দিলেন ,কারও কাছে নকল থাকলে এখুনি দিয়ে দাও। একবার খাতা নিলে কিন্তু আর ফেরত পাবেনা।
বল্টু ভয়ভয় মুখ করে দ্বিতীয় কাগজটা দিয়ে দিল। স্যার বীরের মত মুখ করে সেটাকে বাইরে ফেলার দায়িত্ব পালন করলেন।

পরীক্ষার শেষ মূহুর্ত

স্যার গর্জন করিয়া উঠিলেন (যে রীতিমালায় ভয়ঙ্কর সাধু ব্যক্তিদের কাহিনী বর্ণনা করা হয় তাহাকেই সাধু ভাষারীতি বলে।)
, ইস্টপ রাইটিং ,ইস্টপ রাইটিং !
খাতা জমা দাও।
পেছন হইতে বল্টু হাকিল , স্যার আরও একটা কাগজ আছে ,এইটা একটু ফালায়া দিয়া যান। পরীক্ষা দিয়ে বড়ই কেলান্ত হয়েছি।

২.
স্যার গর্জন করিয়া একটা মেয়েকে নকলরত অবস্থা থেকে হাতেনাতে ধরিয়া ফেলাতে মেয়েটা নতমুখে দাড়াইয়া হেচকিয়া হেচিকিয়া কান্দিতে লাগিল।
স্যার ওহাকে মূল্যবান কিছু উপদেশ দিয়া ,আদর করিয়া নকল বিসর্জনে সম্মত করাইয়া যেই নকলখানা জানালা দিয়া ফেলিতে গেল অমনি নকলবাজ মেয়েটা ভ্যা করে এমন চিত্কার করিয়া উঠিল যে স্যার ভয় পাইয়া আর নকল বিসর্জন না করিয়া পুনরায় ওহার নিকট সমর্পন করিয়া দিলেন।

৩. পরীক্ষার আড়াইঘন্টা পার হইয়াছে। কানাই বহু কষ্টেও সে তার ক্ষুদ্র কাগজে কি লিখিয়া আনিয়াছিল তাহার মমার্থ বুঝিতে না পারিয়া ভ্যাবলার মত বসিয়া রহিল। অতঃপর পাশের ছেলেটিকে ডাকিয়া কহিল ,ভাই তোমার কি প্রথম খাতাখানা লেখায় পরিপূর্ণ হইয়াছে ?
পাশের ছেলেটি কহিল ,না ভাই । আরেকপাতা বাকি আছে।
তত্ক্ষনাত্ ভ্যাবলা নকলবাজ ছেলেটি বজ্রের ন্যায় হাকিয়া কহিল ,সারা বছর পড়িয়া কি করস ? আড়াই ঘন্টায় যদি প্রথম খাতা না ভরাইতে পারস তাহলে এ পিলাচ কুড়াইবি ক্যামনে ? ধিক তোকে ! আমি যদি ফেইল করিতো সবদোষ তোর কাঁধে।
স্যার তাঁহাদের এই বাক্যালাপে বড়ই অসন্তুষ্ট হইয়া কহিলেন , ঐ কথা কয় কে ? খাতা কিন্তু লইয়া যামু ...
ভ্যাবলা বড়ই বিরক্ত হইয়া উঠিয়া গিয়া স্যারের সম্মুখ্যের টেবিলের নিচে রাখা বই আনিতে গিয়া তত্ক্ষনাত্ বাঁধাপ্রাপ্ত হইয়া কহিল ,কথাও কইতে দিবেন ,বইও দিবেন না। তাইলে পরীক্ষা দিমু ক্যামনে ? যে প্রশ্ন আউট হইছে ওহাও তো মিলে নাই !
তাঁহার অতি ন্যায্য অধিকার দাবী দেখিয়া স্যারের মুখখানা একখানা চমত্কার গোলকে রুপান্তরিত হইল ।

Re: পরীক্ষার হলে একটা হাসির বাকসো আছে

জাবেদ  এটা কি তোমার পরীক্ষার হলের কাহিনী! tongue tongue  hehe hehe

দিলা কেমন এইবার পরীক্ষা! কিছুই তো জানাইলা না!

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন মোঃজাবেদ হোসেন (২৩-০৫-২০১৪ ০০:০০)

Re: পরীক্ষার হলে একটা হাসির বাকসো আছে

Jol Kona লিখেছেন:

জাবেদ  এটা কি তোমার পরীক্ষার হলের কাহিনী! tongue tongue  hehe hehe

দিলা কেমন এইবার পরীক্ষা! কিছুই তো জানাইলা না!

পরীক্ষা ভাল হইছে। পরীক্ষা দিতে গিয়ে আজব কিছু অভিজ্ঞতাও অর্জিত হয়েছে। এবং আমাদের কলেজের সবচেয়ে অবজ্ঞা ভরে নেওয়া সাপ্তাহিক ক্লাস টেস্টও এরচেয়ে ভাল পরিবেশে দিয়েছি!
ফিলিং হতাশ!!!!
ভবিষত্ প্রজন্মের কাছ থেকে 'বাইসাব কি ২০১৪সালের পরীক্ষার্থী আছিলেন নি! হে হে' টাইপ কটাক্ষ শুনার জন্য প্রস্তুত হচ্ছি ..

Re: পরীক্ষার হলে একটা হাসির বাকসো আছে

tongue tongue ডাব্বা পাইলে কইলাম ডাব খাউবু tongue_smile

অভিজ্ঞতা গুলো শেয়ার কর! দেখি এখন কি অবস্থা! সরকার তো নিজেগো গুনগান গাইতে গাইতে মুখে-ফেনা তুলে ফেলতেছে!

Re: পরীক্ষার হলে একটা হাসির বাকসো আছে

হা হা নিজের পরীক্ষা জীবনের কথা মনে পরে গেল  lol2

সব কিছু ত্যাগ করে একদিকে অগ্রসর হচ্ছি

লেখাটি CC by-nd 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন Jol Kona (২৩-০৫-২০১৪ ০০:৩৪)

Re: পরীক্ষার হলে একটা হাসির বাকসো আছে

জাবেদ ssc এর সময়, আমার বাণিজ্যিক ভূগোল পরীক্ষার দিনের কথা মনে পইড়া গেল!

আমাদের একজামে শেষ এর ঠিক ১৫ মিনিট আগে ! স্যার আমার পিছনে বসা একটা  ছেলে কে বলতেছিল!
কিরে খাতা উত্তর পত্র এমন কেন! (নৈবিত্তিক প্রশ্ন উত্তর!)

আমার একজাম শেষ আমি বসেছিলাম ফ্রেন্ডদের হেল্প করার জন্য  tongue

হটাৎ স্যার আমাকে বলে "এই মেয়ে তোমার তো একজাম শেষ! দেখি ওরে হেল্প কর! হেল্প না করলে তো এ ফেইল করবে!"  surprised আমি পুরাই ভ্যাবাচ্যাকা খেয়ে গেছি! স্যার বলতেছে কি!

পরে আমি একদম উল্টা হয়ে ঘুরে big_smile  ছেলেটাকে  সব উত্তর বসে বসে পেন্সিল দিয়ে দাগায় দিশি! সে বসে বসে ভরাট করছে! big_smile
৫০ মার্ক এর প্রশ্ন ৩০ টার মত উত্তর  বলে দিসি! tongue  বাকিগুলো কিছু তার ভুল ছিল কিছু তার ঠিক!

আমার মত আরো ২-৩ জন সেইম কাজ করাছে! স্যার আমাদের গুরুতর কাজ দিসে; না করি কেমনে আমরা  lol2
 
পোলাটা একজাম হল থেকে বের হয়ে আমার হাত ধরে কেঁদেই দিসে!  sad এটা খুব খারাপ লাগছিল! তার বাকি একজাম গুলোর কথা জানি না! তবে অনেক মায়া লাগছিল! 
লাইফে ফাস্ট টাইম কাউরে চিটিং এ হেল্প করছি! এটা বাসায় ফিরে ডায়রিতে লিখছি!

"আজকে একজনকে চিটিং এ হেল্প করছি!" লাল-কালি দিয়া বড় বড় করে  বোল্ড করে  ডায়রির দুই পৃষ্টা নিয়ে  tongue lol

Re: পরীক্ষার হলে একটা হাসির বাকসো আছে

আমি এইচ.এস.সি তে আমাদের হলে ডিউটিরত এক অচেনা টিচারকে কিছুক্ষন তেল মেরে ও ভাব জমিয়ে টেন মার্কস এর উত্তর জেনে নিয়েছি...। ফিলিংস- সব বাংগালী তেলের ভক্ত। big_smile

Re: পরীক্ষার হলে একটা হাসির বাকসো আছে

চমৎকার পরীক্ষা আর শিক্ষকও

"We want Justice for Adnan Tasin"

Re: পরীক্ষার হলে একটা হাসির বাকসো আছে

হাসি আসেনাই কিন্তু মজার।
আমার HSC পরীক্সার কথা মনে পড়লো। ঘাড়টাও পর্যন্ত ঘুড়াইতে দেয়নাই  waiting dontsee

এম. মেরাজ হোসেন
IQ: 113
http://www.iq-test.cc/badges/4774105_3724.png

১০

Re: পরীক্ষার হলে একটা হাসির বাকসো আছে

তিনটাই নতুন আমার কাছে...  lol2 lol2

আমি তো ২০১৫ তে দিব এস.এস.সি... টেনশনে আছি...
বিশেষ করে শৃজনশীল গনিত খুব পীড়া দিচ্ছে... নৈব্যাক্তিক টা....  dontsee dontsee

আমি রাবেয়া সুলতানা....

১১

Re: পরীক্ষার হলে একটা হাসির বাকসো আছে

আমাদের মূল সেন্টার (নজাবি)তে যে পরীক্ষাগুলো হয়েছে সেগুলোতে অসাধারন ছিল।
গার্ড ,শাসন এবং পরীক্ষাসুলভ পরিবেশ। ফুরফুরে মেজাজে পরীক্ষা দিয়েছি।
কিন্তু পরবর্তিতে আসন সংকুলান না হওয়ায় (আর্টস ,কমার্স এবং সায়েন্স এর একদিনে পরীক্ষা হওয়ায়) আশেপাশের কলেজগুলোতে আসন ফেলায় এই অবস্থা হয়েছিল।

S.S.C তে আমরা চমত্কার পরিবেশ পেয়েছিলাম। কথা নেই ,নকল কি চোখেই দেখিনি ,স্যাররাও সুন্দরভাবে নিয়ন্ত্রন করেছিল।
এখন পরীক্ষা দিতে গেলে সেইদিনগুলোকে খুব মিস করি।

আর কণা আপু যেটা বললেন। সেটা এখন অহরহ ঘটে।
বাংলা ২য় পত্র পরীক্ষার কথা।
আমার পাশে যার সিট পড়েছিল সে আমি ক্লাসে ঢুকতেই প্রথমে জানাল , আমি কাপ পিরিচ মার্কায় যে উপজেলা নির্বাচনে দাড়াইছে তার ভাই।
আমি ব্যাকরণ পার্ট শেষ করে যখন রচনামূলক পার্টে যাব তখন দেখি সে খাতায় একটা আচড়ও দেয়নাই।
স্যার এসে তার এই অবস্থা দেখে আমাকে বলল হেল্প করতে।
পরীক্ষায় এমনিতেই সময়ের টানাপোড়ন। বললাম , আমি যা লিখছি দ্রুত যেন তা ফলো করে লিখে ফেলে।
অতঃপর ব্যাটা দেখি কিছুই পারেনা। এমনকি ব্যকরণ পার্টের আইটেমগুলোর উত্তর কিভাবে সাঁজাবে সেটাও জানেনা।
যাহোক এযাত্রা একটু দ্রুত বুঝিয়ে ,ওকে যেখাতায় ব্যাকরণ লিখেছি সে খাতাটা দিয়ে ব্যাকরণ অংশের উত্তর করালাম।
কিছুখন পর স্যার স্বাক্ষর করতে এসে দেখে সে OMR শিটও (Roll, Regi no, Sub code) ফিলাপই করে নাই।
সেটা ফিলাপের দায়িত্বও আমার কাঁধে চাপিয়ে দিয়ে গেলেন!

১২

Re: পরীক্ষার হলে একটা হাসির বাকসো আছে

রাবেয়া সুলতানা লিখেছেন:

বিশেষ করে শৃজনশীল গনিত খুব পীড়া দিচ্ছে... নৈব্যাক্তিক টা.... 

ভবিষ্যতে খুব বেশি কাজে দেবে।  smile

এম. মেরাজ হোসেন
IQ: 113
http://www.iq-test.cc/badges/4774105_3724.png

১৩

Re: পরীক্ষার হলে একটা হাসির বাকসো আছে

হাহাহা! ভালো ছিল।  lol

১৪

Re: পরীক্ষার হলে একটা হাসির বাকসো আছে

এইটা কি জাবেদ তোমার পরিক্ষার কাহীনি?

১৫

Re: পরীক্ষার হলে একটা হাসির বাকসো আছে

lol2 lol2 lol2 lol2 lol2

জাযাল্লাহু আন্না মুহাম্মাদান মাহুয়া আহলুহু......
এই মেঘ এই রোদ্দুর

১৬

Re: পরীক্ষার হলে একটা হাসির বাকসো আছে

আমার h.s.c কথা মোনে পড়ে গেলো । আমাদের হলে এক ছেলেকে তার সাটের কলার ধরে টেনে বের করে দিছে  আমি দেখে তো পুরাই হ্যং।  surprised

বেকুবে কয় কি?

লেখাটি CC by 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১৭

Re: পরীক্ষার হলে একটা হাসির বাকসো আছে

Mehedi Hasan Ornob লিখেছেন:

আমাদের হলে এক ছেলেকে তার সাটের কলার ধরে টেনে বের করে দিছে


কেডা বের করে দিছে ?

"We want Justice for Adnan Tasin"

১৮

Re: পরীক্ষার হলে একটা হাসির বাকসো আছে

আউল লিখেছেন:
Mehedi Hasan Ornob লিখেছেন:

আমাদের হলে এক ছেলেকে তার সাটের কলার ধরে টেনে বের করে দিছে


কেডা বের করে দিছে ?

ডিউটি কর্মরত এক পাজি ছার

বেকুবে কয় কি?

লেখাটি CC by 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত