টপিকঃ প্রাতিষ্ঠানিক ডিগ্রি একাল সেকাল- পর্ব ১

লেখাটা মাসউদুল হক ভাইয়ের। বড় ভাইয়ের অনুরোধে এখানে শেয়ার করা। এই বিষয়ে সবার মতামত কাম্য।

গ্রাম দেশে আগে নির্বাচন হলে বিভিন্ন প্রার্থী নামের পরে আব্দুর রহিম, এম এ, কুদ্দুস বিএসসি এইসব ডিগ্রি র কথা বলে অন্যের চেয়ে নিজের যোগ্যতা কতটা বড় তা প্রমানের চেষ্টা চলতো। এই চল এখনো অল্প বিস্তর আছে। কিন্তু নির্বাচনী বৈতরণী পার হতে গিয়ে এই সব ডিগ্রির উপর ভর করে তেমন অগ্রসর হতে না পারায় আর পাড়ায় মহল্লায় এইসব ডিগ্রি সহজলভ্য হয়ে যাওয়ায় আজকাল রাজনিতির ময়দানে ডিগ্রি দেখিয়ে খুব বেশি অগ্রসর হওয়া যাচ্ছে না।

মানুষ আর আগের যুগে নাই। দিন বদলে গেছে। এই কিছুদিন আগেও ব্যারিস্টার পদবি দেখলে মানুষ শ্রদ্ধায় নত হয়ে যেত। কারন তারা জান্তো না এই ডিগ্রি অর্জনের কৌশল !! এখন বুদ্ধিমান মানুষ উকিল নির্বাচনে ব্যরিস্টার ডিগ্রির চেয়ে অনেক সময় নাইট কলেজ থেকে পাস করা উকিলকেও অধিক গুরুত্ব দেয়? কারন সময় বদলে গেছে। এখন মানুষ খুঁজে পারফর্মার। আপনি রান্নার হাজার খানেক বই পড়লে আর টমি মিয়ার কাছ থেকে কোর্স করলে আপনার রান্না ভাল হবে কোন গ্যারান্টি কি আছে?

আমাদের যা মোট নলেজ তার কতটা অংশ প্রাতিষ্ঠানিক ভাবে প্রাপ্ত? আবার প্রাতিষ্ঠানিক ভাবে প্রাপ্ত নলেজের কতটা আমরা প্রয়োগ করতে পারি? বা প্রাতিষ্ঠানিক নলেজকে ব্যবহার করে কতজন নতুন তত্ত্ব আবিষ্কার করতে পেরেছি? পৃথিবীর প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি প্রতিদিন যে পরিমান মানুষকে বি এ, বিএসসি; এমএ, এমএসসি, পিএইচডি ডিগ্রি দিচ্ছে তাতে প্রতি ঘন্টায় না হোক, প্রতিদিন ডজনখানেক মৌলিক তত্ত্ব, কিংবা নতুন নতুন আবিষ্কারের ঘটনা ঘটার কথা ছিল? বাস্তবে কি তা ঘটছে? আমাদের কথা বাদ দিলাম, উন্নত বিশ্ব যাদের বলি তারা কি উৎপাদনের সমান সৃষ্টিশীলতা উপহার দিতে পেরেছে?
প্রতিদিন হাজার হাজার বিএসসি পিএইচডি উৎপাদনের পরেও দেখি ৪০ বছর আগের বইয়ের সাথে বর্তমান শিশুতোষ বিজ্ঞানের বইয়ের তেমন কোন পার্থক্য নেই। এখনো মৌলিক উপাদান কেন প্রায় একই, গ্রহ নক্ষত্রের সংখ্যা কেন একই? এখনো কেন সামাজিক বিজ্ঞানের শিক্ষকরা- সেই পুরনো তত্ত্ব'র উপর ভর করে ছাত্রদের পড়িয়েই যাচ্ছেন?
কেউ যদি বলেন জ্ঞান বিজ্ঞানের অগ্রগতি হয়েছে তবে তার সাথে আমি দ্বিমত পোষণ করবো না। তবে কতটা? যে পরিমান গ্র্যাজুয়েট, মাস্টার্স আর পিএইচডি'র জন্ম হয়েছে তার তুলনায় নতুন তত্ত্ব কি খুবই নগণ্য না?
কারন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান স্বীকৃতি প্রদানের ক্ষমতা রাখে কিন্তু সৃজনশীলতা বিকাশের কিংবা ছাত্র কত্রিক জ্ঞান প্রয়োগের নিশ্চয়তা দিতে পারে না। তাই ডিগ্রি দেখিয়ে মানুষের উপর ক্ষমতা ফলাবেন, নেতা হয়ে যাবেন সেই দুরাশা না করাই উত্তম (চলমান)

Gentlemen, you can't fight in here, this is the war room!

Re: প্রাতিষ্ঠানিক ডিগ্রি একাল সেকাল- পর্ব ১

উন্নত ঠিকই হচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয়গুলো থেকে পাশ করে  বেকারত্বের অভিশাপে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে মেধা। জেনেটিক্স ইন্জিনিয়ারিং এর ছাত্র হচ্ছে ব্যাংকার, অ্যাপ্লাইড ফিজিক্স এর ছাত্র বাংলাদেশের নামকার গার্মেন্টস এর প্রধান এইচ আর। আর কি করবে ভাই। আমার পড়াশোনার সাথে কি চাকুরির বাজার আছে। আপনিই বলুন

আমি আবদুল আউয়াল । আইটির সাথে সখ্যতা অনেকদিনের। চেষ্টা করি নিজে যা জানি অন্যকে তা জানাতে । আমার ওয়েবসাইট আইটি শিক্ষা

aouwalcmc'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত