টপিকঃ গহীন বান্দরবান: পর্ব-১০

পর্ব-৯ এর লিংক

পর্ব-১০ঃ অতিরাম পাড়া

পাহাড় পার হওয়া আসলেই বেশ পরিশ্রমের ব্যাপার। প্রচুর ক্লান্তিকর একটা কাজ, কিছুক্ষণ পরপর বিশ্রাম নেয়া লাগতেছে। এখন যে পাহাড়ের উপরে আছি সেখান থেকে দূরে একটা পাড়া দেখা গেলো। মনে হচ্ছে এখানে পাড়া গুলো খাবার পানির প্রাপ্যতা অনুযায়ী গড়ে উঠে। একটু আগে এক পাহাড়ের গোড়ায় সবাইকে খাবার পানি নিয়ে যেতে দেখছিলাম, এরা সবাই মনে হচ্ছে ওই পাড়ার বাসিন্দা। দূর থেকে পাহাড়ের মাঝে ছোট্ট এ পাড়াকে দেখতে ছবির মত লাগছিল। জায়গার নাম অতিরাম পাড়া।

http://farm8.staticflickr.com/7736/18220549528_3e329cfc31_b.jpg
অতিরাম পাড়া

পাড়ার ঢোকার রাস্তায় দেখলাম উঁচু করে বেড়া দেয়া। আর এ বেড়া পার হবার জন্য মোটা গাছের ডালকে সিঁড়ির মত কেটে দেয়া। পাড়ায় ঢোকার জন্য সবাইকে এ সিঁড়ি বেয়ে পার হতে হয়। এর আগেও এরকম মোটা গাছের ডাল দিয়ে বানানো সিঁড়ি দেখেছিলাম। গাইডকে কারন জিজ্ঞাসা করতেই আসল কাহিনী বের হয়ে আসলো। রাতের বেলা এখানে বন্য প্রানীর উৎপাত বেড়ে যায়, এরা যাতে সহজে পাড়ায় ঢুকতে না পারে সেজন্যই এ ব্যবস্থা।

http://farm8.staticflickr.com/7742/18220548368_a875387004_b.jpg
পাড়ায় ঢুকছি

http://farm1.staticflickr.com/430/17785738084_f5b78fe39e_b.jpg
পাহাড়ের উপরে অতিরাম পাড়া, পেছনে মেঘ আর দূরে আরো পাহাড়

পাড়ায় ভেতরে আরেকগ্রুপের সাথে দেখা হলো, তারা অন্য রুট দিয়ে এসে এখানে গতরাত থেকেছে। এখন প্রচুর পরিমানে লোকজন বান্দরবান ভ্রমনে যায় বলে পাড়ার লোকেরা এরকম টুরিস্ট গ্রুপ দেখে অভ্যস্ত। আমাদের দেখে পাড়ার এক বয়স্ক লোক আমাদের বন্ধুরা বন্ধুরা বলে কি যেন বলছিল, আমরা ঠিক বুঝতে পারছিলাম না, অনেকক্ষন চেষ্টার পর বুঝতে পারলাম, বলছিল আমাদের কে ফিরে আসার সময় যেন তার সাথে কথা বলে যাই, আমরা তার কথায় সায় দিলাম। পাহাড়ি লোকজন অনেক আন্তরিক।

http://farm8.staticflickr.com/7739/18220667490_9dc910d2a1_b.jpg
অতিরাম পাড়ার ভেতরে

এ পাড়া পার হতেই আরেকটা পাহাড়। এপাড়া পার হবার সময় সেই একই রকম খুঁটি পার হতে হলো। আর পাহাড় থেকে নামার রাস্তাটা বেশ কঠিন। কঠিন বলতে আসলেই কঠিন। এরাস্তায় মানুষজন খুব একটা আসা যাওয়া করেনা বিধায় পাহাড়ের মাঝে রাস্তা ঠিক বোঝা যায়না। আর নিচে নামার রাস্তা এতই খাড়া যে গাছ ধরে ধরে নামতে হয়। সাইফুল ভাই তো একবার নামতে গিয়ে বেশ খানিক্ষন গড়িয়ে পড়েছিল, পাশে ঝোপঝাড় আঁকড়ে থাকার কারনে রক্ষা। আমরা খুব আস্তে আস্তে নামছিলাম। এখানে গাছপালার ঘনত্ব বেশি আর গাছগুলো বেশ বড় বড়, তাই এখনো সুর্য্যের আলো ভেতরে পৌঁছায়নি। তাই রাস্তা জায়গায় জায়গায় এখনো পিচ্ছিল।

http://farm9.staticflickr.com/8835/18220671990_b75f66c857_b.jpg
ভেজা পাহাড়ি রাস্তা

পরের পাহাড়টাও একইরকম খাড়া। বোতলের পানি আস্তে আস্তে শেষ হয়ে যাচ্ছে, সামনে কোথায় আবার খাবার পানি পাওয়া যাবে কেউই জানিনা। গাইড বললো এ পাহাড়টার পার হলেই অমিয়খুম ঝর্না, আর বেশি দেরী নেই। পাহাড় থেকেই পানি পড়ার গমগম আওয়াজ শুনতে পেলাম, সে এক নেশা লাগানো শব্দ। মনে যেন আশার সঞ্চার হলো, পা দুটো আর চলছিলনা, যেন শরীরে আর বিন্দুমাত্র শক্তি অবশিষ্ট নেই, বিশ্রাম নিচ্ছি আর অল্প করে এগুচ্ছি। হাঁটার গতি অনেক স্লথ হয়ে যাবার কারনে একটু রাস্তা পার হতে বেশ সময় লেগে যাচ্ছে।

http://farm8.staticflickr.com/7781/18410040051_8eedb9e7e6_b.jpg
সারি সারি পাহাড়

http://farm9.staticflickr.com/8849/17785742854_ae695286d1_b.jpg
নীল আকাশ, মেঘ আর সবুজে ঘেরা পাহাড়

আমরা অমিয়খুমের অনেক কাছাকাছি চলে এসেছি। পানি পড়ার শব্দ ক্রমেই তীব্রতর থেকে তীব্রতর হচ্ছে, আমাদের এক্সাইটমেন্টও বাড়ছে। অমিয়খুম আসতে এত পাহাড় পার হতে হয়েছে যে পুরো শরীর ক্লান্তিতে আর অবসাদে ভরে গেছে। অমিয়খুম এর ঠিক আগেই এক জায়গায় দেখলাম মাচান দেয়া আছে, কিন্তু ভেতরে কেউ নেই। ভাবলাম এখানে একটু বিশ্রাম নেই, কিন্তু আর থামলাম না, একবারে অমিয়খুম গিয়েই থামবো।

http://farm1.staticflickr.com/499/18411374231_4307ee030d_b.jpg
অমিয়খুমের পৌঁছানোর ঠিক আগের জায়গা

চলবে...

You are the one who thinks that i didn't get the point, so do i think of you...what a coincidence!!

Re: গহীন বান্দরবান: পর্ব-১০

অসাধারণ শেয়ার ভাই smile

সব কিছু ত্যাগ করে একদিকে অগ্রসর হচ্ছি

লেখাটি CC by-nd 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: গহীন বান্দরবান: পর্ব-১০

ও মাই মাই...। কি সব মনমাতানো দৃশ্য  surprised
এই টপিক যতই পড়ছি ততই পার্বত্য চট্টগ্রামে যাওয়ার ইচ্ছা প্রবল হচ্ছে  waiting

IMDb; Phone: Huawei Y9 (2018); PC: Windows 10 Pro 64-bit

Re: গহীন বান্দরবান: পর্ব-১০

দারুন লাগলো ভাইয়া! পরের পর্বের অপেক্ষায় থাকলাম smile

One can steal ideas, but no one can steal execution or passion. - Tim Ferriss

Re: গহীন বান্দরবান: পর্ব-১০

গাছের পেছন থেকে মেঘেরা উঁকি দিচ্ছে !!! dream

এক টুনিতে টুনটুনালো সাত রানির নাক কাঁটালো

Re: গহীন বান্দরবান: পর্ব-১০

প্রথম আর শেষের ছবিটা জাস্ট অসাম! smile

ইট-কাঠ পাথরের মুখোশের আড়ালে,
বাধা ছিল মন কিছু স্বার্থের মায়াজালে...

Re: গহীন বান্দরবান: পর্ব-১০

মন্তব্যের জন্য সবাইকে ধন্যবাদ

You are the one who thinks that i didn't get the point, so do i think of you...what a coincidence!!

Re: গহীন বান্দরবান: পর্ব-১০

আরেকটা সুন্দর পর্ব।
মেঘলা আকাশ আর পাহাড়ী সবুজ...... মনটা খারাপ হয়ে গেল  sad
মন চায় ছুটে যাই মাটির টানে।

আল্লাহ আমাকে কবূল করুন

Re: গহীন বান্দরবান: পর্ব-১০

এই পর্বটাও দারুণ হয়েছে।  thumbs_up

"সংকোচেরও বিহ্বলতা নিজেরই অপমান। সংকটেরও কল্পনাতে হয়ও না ম্রিয়মাণ।
মুক্ত কর ভয়। আপন মাঝে শক্তি ধর, নিজেরে কর জয়॥"

১০

Re: গহীন বান্দরবান: পর্ব-১০

জারাহ আপু আর আরণ্যক ভাইকে ধন্যবাদ।

You are the one who thinks that i didn't get the point, so do i think of you...what a coincidence!!

১১

Re: গহীন বান্দরবান: পর্ব-১০

প্রতিটা পর্বই অসাধারন লাগছে smile

অন্যের কাছ থেকে যে ব্যবহার প্রত্যশা করেন আগে নিজে সে আচরন করুন।

লেখাটি CC by-nc 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত