টপিকঃ রাসূল (সা.) এর আদর্শ অনুসরণের শপথ ।

আল্লামা হুছামুদ্দীন চৌধুরী ফুলতলী বলেন, বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর আবির্ভাব সারা সৃষ্টির জন্য আল্লাহর এক মহান অনুগ্রহ। সামাজিক, রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও ধর্মীয় তথা সার্বিক দিক থেকে অধঃপতনের চরম সীমায় নিমজ্জিত সমাজে আবির্ভূত হয়ে হযরত মুহাম্মদ (সা.) খোদাপ্রদত্ত নির্দেশনায় সমাজকে কলুষমুক্ত করেছিলেন। দ্বন্দ্ব-সংঘাত, মারামারি, হানাহানিতে লিপ্ত মানবসমাজকে সোনার মানুষে পরিণত করেছিলেন। তিনি দ্বীন ইসলামের আলোকে শান্তি, সম্প্রীতি, সৌহার্দ্য, ভ্রাতৃত্ব ও মানবতার যে আদর্শ প্রতিষ্ঠা করেছিলেন পৃথিবীর ইতিহাসে তার কোন তুলনা নেই। ব্যক্তিজীবন থেকে শরু করে রাষ্ট্র পরিচালনা পর্যন্ত সকল ক্ষেত্রে তিনি সারা দুনিয়ার জন্য শ্রেষ্ঠতম আদর্শ। তাঁর আদর্শ অনুসরণ ছাড়া আজকের এ সমস্যা জর্জরিত বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠা কোনক্রমেই সম্ভব নয়। তিনি আরোও বলেন, আল্লামা ফুলতলী ছাহেব কিবলাহ (রহ.) তাঁর জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত মহানবী (সা.)-এর আদর্শ সমাজে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য কাজ করে গেছেন। তিনি পৃথিবী থেকে চলে গেছেন কিন্তু তার মুখনিঃসৃত বাণী আমাদের কর্ণকুহরে আজও প্রতিধ্বনিত করে। যার বাস্তব দৃষ্টান্ত তার রেখে যাওয়া ঈদে মিলাদুন্নবী উদযাপন। তিনি সমাজের সর্বস্তরে রাসূল (সা.) -এর সুমহান আদর্শ বাস্তবায়নের শপথ নেওয়ার আহ্বান জানান।

সুত্র