টপিকঃ সাহিত্য ও ইতিহাস পর্ব--- ১(টপ্পা ও নিধুবাবু)

সাহিত্য  ও  ইতিহাস পর্ব--- ১(টপ্পা ও নিধুবাবু) 
*********************************
https://fbcdn-sphotos-e-a.akamaihd.net/hphotos-ak-xap1/v/t1.0-9/10689592_616878651756267_8924297732536196879_n.jpg?oh=dd95bccb2a991327e00eef8539b9085e&oe=55146C13&__gda__=1423420879_2ad6d1513ad9491fd26eb6f82cb99f38
>>টপ্পাঃ
---------------
টপ্পা বলতে আমরা আন্দোলন-যুক্ত তানবিশিষ্ট গানকে বুঝি। ধ্রুপদ, খেয়ালের মতো টপ্পাও প্রচলিত সংগীত রীতি থেকে গড়ে উঠেছে।
ক্যাপ্টেন উইলার্ভকে উদ্ধৃত করে রাজ্যেশ্বর মিত্র টপ্পার উৎস  সম্পর্কে জানিয়েছেন - ‘টপ্পা ছিল রাজপুতনার উষ্ট্র চালকদের  গীত। শোনা যায়, মধ্যপ্রাচ্য থেকে যেসব বণিক উটের  পিঠে চেপে বাণিজ্য করতে আসত, তারা সারারাত নিম্নস্বরে টপ্পার  মতো একপ্রকার গান গাইতে গাইতে আসত। তাদের গানের  দানাদার তানকেই বলা হতো ‘জমজমা’। আসলে জমজমা শব্দে ‘দলবদ্ধ উষ্ট্র’ বোঝায়।  সাধারণভাবে উষ্ট্রবিহারিদের গানও এই শব্দের আওতায় এসে গেছে।  লাহোরে উট বদল হতো। এই লাহোর থেকেই টপ্পার চলটি ভারতীয়  সংগীতে অনুপ্রবিষ্ট হয়েছে।’ (বাংলার গীতিকার ও  বাংলা গানের নানা দিক : রাজ্যেশ্বর মিত্র, বাংলার টপ্পা, পৃ ১০) ।
সাধারণত বিলম্বিত লয়ে গাওয়া হয়ে থাকে টপ্পা, বড় খেয়াল টপ্পায় গাওয়া গেলেও সাধারণত গাওয়া হয় না। টপ্পার স্বাভাবিক করুণ রস, প্রেম, প্রধানত বিরহকে বিষয়বস্ত্ত করে রচিত  বলে টপ্পার উপযোগী কিছু বিশেষ রাগও আছে, যেমন - ভৈরবী, খাম্বাজ, দেশ, সিন্ধু, কালাংড়া, ঝিঁঝিট, পিলু, বারোয়া প্রভৃতি।
নিধুবাবু-রচিত গানে বিরহের প্রকাশ কত মার্জিত, পরিশীলিত;  একটি গানের উদাহরণ দিলে তার প্রমাণ পাওয়া যাবে –

>>বিধি দিলে যদি বিরহ যাতনা
প্রেম গেল কেন প্রাণ গেল না
হইয়ে বহিয়ে গেছে প্রেম ফুরায়েছে
রহিল কেবলি প্রেমেরি নিশানা।<<   

>>নিধু বাবুঃ
------------------ 
কবি নিধু বাবুর ভাল নাম রামনিধি গুপ্ত (১৭৪৮-৪১) সালে বাংলায় বর্গীর হাঙ্গামার সময়, পিতা
হরিনারায়ণ গুপ্ত, জিনি কলকাতার কুমারটুলি অঞ্চলে চিকিত্সক ছিলেন, চলে যান ত্রিবেণীর কাছে চাপতা গ্রামে, যেখানে তাঁর শ্যালক রামজয় কবিরাজ থাকতেন ।  সেখানেই কবির জন্ম হয়। তাঁর শিক্ষা কলকাতাতেই সম্পন্ন হয় । অনুমান ২০ বছর বয়সে নিধু বাবু বিহারের ছাপরা জেলায় রাজস্য বিভাগের "দ্বিতীয় কেরাণীর" চাকরি নিয়ে চলে যান।  তখন ছাপরার কালেক্টার ছিলেন মন্টগোমারি সাহেব।  প্রায় ১৮ বছর চাকরি করার পর তিনি কাজে ইস্তফা দিয়ে কলকাতায় এসে বসবাস শুরু করেন এবং সংগীত সৃষ্টিতে মেতে থাকেন ।  তাঁর ব্যক্তিগত জীবন সম্বন্ধে অনেক তথ্যই সঠিক জানা যায়না, তাই নানা কিংবদন্তীর সূত্রপাত ।
>> অষ্টাদশ শতকের ষাটের দশক ছিলা বাংলা তথা ভারতের রাজনৈতিক অস্থিরতারসময় ।একবার নবাব মিরকাশিম ও পাটনার জনৈক কুঠিয়াল ইংরেজ এলিস সাহেবের দ্বন্দ্ব হয় । গোলাম হোসেন রচিত "সেইর-উল-মুতাক্খরিণ" গ্রন্থে  আছে যে ঐ দ্বন্দ্বের সময় সারণের ফৌজদার এক বাঙালী রামনিধি, এলিস সাহেব এর অসুবিধার সৃষ্টি করে ।
>> প্রথমে নিধু বাবু ছাপরার এক মুসলমান ওস্তাদের কাছে উচ্চাঙ্গ সঙ্গীত শিখেছিলেন । পরে ছাপরা জেলার রতনপুরা গ্রামের ভিখন রামস্বামীর মন্ত্র শিষ্য হন ।  তিনি নানা রকমের গান লিখে ছিলেন কিন্তু তাঁর টপ্পা গানের জন্যই মূলত তাঁর খ্যাতি ।  উনিশ শতকের শেষ অবধি তাঁর টপ্পাগুলি খুব জনপ্রিয় ছিল ।  তাঁর গান বাইজিদের মজলিশ বা ঐ জাতীয় অনুষ্ঠানে বেশী গাওয়া হত বলে পরে অনেকে তা সাহিত্যরসহীন আখ্যা দিলেও এ কথা অস্বীকার করা যায় না যে তাঁর কবিতা আধুনিক এবং অতি উচ্চমানের ।  নিধু বাবুর টপ্পাকে অশ্লীলতার দায়ে অভিযুক্ত করা অন্যায় ।
--- উত্স: রমাকান্ত চক্রবর্তী, নিধুবাবু ও তাঁর টপ্পা।
>>নিধুবাবুর জনপ্রিয় কিছু টপ্পা গানঃ 
১। নানান্ দেশে নানান্ ভাষাঃ
নানান্ দেশে নানান্ ভাসা (ভাষা)
বিনে স্বদেশীয় ভাসে পূরে কি আশা ?
কত নদী সরোবর,
কি বা ফল চাতকীর |
ধরাজল বিনে কভু ঘুচে কি ত্রিষা (তৃষা) ?

২। পিরীতি না জানে সখীঃ
পিরীতি না জানে সখী (সখি),
সে জন সুখী বল কেমনে ?
যেমন তিমিরালয় দেখ দীপ বিহনে
প্রেমরস সুধাপান, নাহি করিল যে জন,
বৃথায় তার জীবন, পশু সম গণনে ।


৩। আসিবে হে প্রাণ কেমনে এখানেঃ
আসিবে হে প্রাণ কেমনে এখানে
ননদী দীরুণ অতি, আছে সে সন্ধানে।
রাখিতে পরাণ মোর, আমি নাহি পারি আর
পিরীতে এই সে হ’লো সংশয় জীবনে
মদন রোদন করে, বিরস দেখিয়ে মোরে
লাজ ভয় কাল সম দয়া নাহি জানে ।
নিদয় বিধাতা যারে, সদয় কে হয় তারে
আমার উপায় ইথে হইবে কেমনে 
ধিক্ ধিক্ নারীগণে, মিলয়ে পুরুষ সনে
কুল তেয়াগিতে নারে, মরে মন মানে ।


>>শুধু ইচ্ছে----  অতীতকে জানার।আর অতীত সাহিত্য ও সংস্কৃতিকে জানার প্রচেষ্টা চালাতে পড়তে হবে বই । আর ইতিহাসকে জানতে পড়তে হবে ইতিহাস আশ্রিত বই। আর এই জন্য প্রয়োজন লাইব্রেরী। আসুন নিজের বই গুলি নিয়ে নিজ গ্রামে গড়ে তুলি একটা লাইব্রেরীর। আর সেই কাজ নিরলস ভাবে করে যাচ্ছে গ্রাম পাঠাগার আন্দোলন।
>>>>জয়তু গ্রাম পাঠাগার আন্দোলন।
https://www.facebook.com/GramPathagarAndolan

গোলাম মাওলা , ভাবুক, সাপাহার, নওগাঁ