২১

Re: বালিকণায় মহাবিশ্ব

১৫ নাম্বার পোস্টে ইনব্রা তো পুরাই ছক্কা মেরেছেন  clap

লেখাটি LGPL এর অধীনে প্রকাশিত

২২ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন ফারহান খান (০৪-০৭-২০১৪ ১৮:৪৯)

Re: বালিকণায় মহাবিশ্ব

খুব সিলি একটা কোয়েসচেন করি। আমাদের মিশন কি ? সত্যি আমাদের ক্রিয়েটর থাকলে সে কেন আমাদের এই রঙ্গ মঞ্চ বানিয়ে রেখেছে। সে কি আমাদের থেকে কোন একটা নির্দিষ্ট কিছু করিয়ে নিতে চাচ্ছে? আমরা একটা ভার্চুয়াল জগতও তো হতে পারি। যেমন খুব হাস্যকর একটা যুক্তি মাথায় এসেছিল।
এখন ২০১৪ চলছে। ৩০১৪ তে গিয়ে আমাদের ভারচুয়াল গেইম গুলা এতই ডেভেলাপ করল যে ওইটা দিয়ে ভারচুয়ালি একটা দুনিয়া বানানো সম্ভব। সো ৩০১৪ সালের একজন লোক একটা বিশাল সমস্যায় পড়ল। সে ওঁই সমস্যার সমাধান যানে না। তখন তার পিসির ভারচুয়াল জগতে সে নিজের একজন ক্লোন ছেড়ে দিল । ভার্চুয়াল ক্লোন যেটা তার ব্রেইনের কপি। ক্লোনের আশেপাশের এনভারন্মেন্ট ঠিক নিজের এনভারনমেন্টের মত করে সাজিয়ে দিল। এরভিতরে তার সকল পরিচিত অপরিচিত সব ধরনের লোক সে বসালো আর পিসি বাদ বাকি দুনিয়ার সব লোক নিজে বসিয়ে দিল। বাড়ী ঘর গাড়ী পশুপাখি পাহাড় পর্বত সব। এবং ৩০১৪ এর ওই লোকের ঠিক যেই বয়সে যে সমস্যায় সে পড়েছে ঠিক সেই সমস্যা ক্লোন ব্রেইনকেও সেইম এইজে গিয়ে দেয়া হল। ক্লোন ব্রেইনটা ওই সমস্যা পাস করতে না পারলে খানিক রিওইয়ান্ড করে আবার তাকে সেখানেই এনে রাখা হল। যতক্ষন না সে সমাধান বের করছে। যেহেতু তখন টেকনোলোজি অনেক দূর গেছে। পিসি ক্লোন ভার্চুয়াল ব্রেইন ক্যারেক্টার কে যা দেখাবে ওইটা সেটাই ফিল করবে। তার জন্ম থেকে মারা যাওয়া পর্যন্ত হয়ত লাগে ৫০ বছর। কিন্তু যেহেতু পুরা সিস্টেমটাই করা হয়েছে শুধু একটা ফলাফলের জন্য। এটার ক্রিয়েটরএর দরকার নাই পুরাটা বসে বসে দেখার। যেহেতু পিসি অনেক শক্তিশালী। সে শুধু ২ সেকেন্ডে পুরা ৫০ বছর এক্সিকিউট করে ফলাফল দেখিয়ে দিল। এখন একবার কল্পনা করুন আমি বা আপনি কেউ একজন এইরকম একটা ভার্চুয়াল ক্যারেক্টার।

এখন কথা হইল বিলিয়ন বিলিয়ন গ্যালাক্সির মত এই থিউরিও কেন আমরা ক্রিয়েট হইসি সেটার সম্ভাব্য বিলিয়ন বিলিয়ন থিউরির একটা হইতে পারে। কিন্তু সত্যটা জানতে মন চায়। কেন আমরা সৃষ্টি হইসি। আসলেই কি কোন কারন আছে নাকি ক্রিয়েটর কোন একটা কিছু বানাইতে গিয়ে একসিডেন্টলি আমারা ক্রিয়েট হয়ে গেসি সেটাও কে জানে !

মুইছা দিলাম। আমি ভীত !!!

২৩

Re: বালিকণায় মহাবিশ্ব

ফারহান খান লিখেছেন:

আমরা একটা ভার্চুয়াল জগতও তো হতে পারি।
এখন একবার কল্পনা করুন আমি বা আপনি কেউ একজন এইরকম একটা ভার্চুয়াল ক্যারেক্টার।

বেশ কিছুদিন আগে ট্রন নামক একটা মুভি দেখেছিলাম।  smile