টপিকঃ দ্যা সোউল অব বিজনেস মার্কেটিং

দ্যা সোউল অব বিজনেস মার্কেটিং --------------------------------------------------------------
বেশি দিন আগের কথা না ,
১৯৯৫ এর দিকে মানুস ধুমছে বাজার থেকে খোলা লবন কিনে খেতো তাতে কোন সমস্যাই ছিলো না তরকারির স্বাদো ছিলো সমান কিন্ত তারপর কি হলো টেলিভিশনের পর্দায় একটা বিজ্ঞাপন প্রচার হলো

" ছিইলা কাইটা লবন লাগায় দিমু !
কি লবন দিবা ?
লবনের আবার রকম কি ?
ভালো মন্দ দুইটাই আছে এই যে নাও মোল্লা সল্ট "

এই বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে মোল্লা সল্ট করলো কি আয়োডিন যুক্ত প্যাকেট লবন নিয়ে আসলো বাজারে তাদের মার্কেটিং পলেসি কি সাধারন লবনে অনেক ধুলা ময়লা পড়ে , আয়োডিন নাই আর আয়োডিনের অভাবে গলাদঃকরন রোগ ছাড়াও আরো অনেক রোগ হয় !
তখন মানুস আয়োডিনযুক্ত লবন খেতে এক চেটিয়া ভাবে মোল্লা সল্ট কিনতে শুরু করলো এবং দীর্ঘদিন যাবত মোল্লা সল্ট একাই মার্কেট দখল করে রেখে বিজনেস করল মানুস লবন বলতে চিনতোই মোল্লা সল্টকে।
তার দীর্ঘ দিন পর এসি আই এসে দেখল মানুস প্যাকেট লবন , আয়োডিন যুক্ত লবন তো খাচ্ছেই তাহলে আমি কিভাবে মার্কেটিং করবো তারা মেসিনের মাধ্যমে লবনটাকে আরো মিহি আর সাদা করে ফেললো তাদের শ্লোগান পরিস্কার চিকন দানার লবন খান তখন কিন্তু মানুস আবার যারা এতদিন মোল্লা সল্টে অভ্যস্ত ছিলো তারা চলে গেলো এসি আই লবনে !
এরপর আসলো বাজারে কনফিডেন্স কনফিডেন্স দেখলো যা যা করার বা বলার সব তো এরা বলেই দিয়েছে আমি আর নতুন করে কি বলবো তখন কনফিডেন্স দেখালো অন্যান্য লবন তরকারির প্রতিটি কোনায় কোনায় ছড়িয়ে যেতে পারে না আমাদের লবন তরকারির প্রতিটি কোনায় সমান ভাবে ছড়িয়ে যেয়ে তরকারির স্বাদকে রাখে অক্ষুন্ন !
এরপর রেসেন্টলি একটা লবন এসেছে তারা এসে দেখলো আমার আর কিছুই বলার নাই বা কিছুই করার নাই তাহলে আমি কি করবো তারা শ্লোগান দিলো ঝরঝরা মোটা দানার লবন খাও।
তাহলেই বুঝতে পারছেন একই লবন আপনাকে একেক জন একেক ফর্মুলাতে খাওয়াচ্ছে এবং আপনিও খাচ্ছেন কেন খাচ্ছেন ? মার্কেটিং পলিসি কিন্ত লবন কিন্ত একটাই আর সব লবনেই আয়োডিন আছে ! 

আবার ধরুন একটা সময় প্রর্যন্ত ছেলে-মেয়ে একই ক্রিম ব্যাবহার করে এসেছে তাতে কোন সমস্যা হয়নি কিন্তু ইউনি লিভার হঠাৎ করেই এসেই বলছে তুমি কি হিজরা ?
মেয়েদের ত্বক আর তোমার ত্বক কি এক ?
তাহলে মেয়েদের ক্রিম কেন ব্যাবহার করছো ?
এমন একটা জিনিস তারা দেখালো এবং ব্যাবহার করলো যা স্বাভাবিক ভাবেই প্রতিটি ছেলের মনকে নাড়া দিবে এবং তারা এর থেকে বেরিয়ে আসবে আর বেরিয়েই যদি আসে তাহলে কি করবে , তখন ম্যানজ ফেয়ারনেস ক্রিম ব্যাবহার করবে !
আর সেই থেকেই ছেলে মেয়ে আলাদা ট্রেন্ডে ক্রিম ব্যাবহার করতে শুরু করলো !যার প্রকৃত উদ্দেশ্য মার্কেটিং এবং সেলিং ইম্প্রুভমেন্ট ছাড়া আর কিছুই ছিলো না।
একটা সময় হয়তো কেউই ভাবেইনি যে পানির মতোন একটা জিনিস টাকা দিয়ে কিনে খাবো কিন্তু আজকে মানুস সেটা কিনছে আর শুধু কিনছেই না ২৫০ মিলির এক বোতল পানি ১৫ টাকা দিয়ে কিনছে এবং খাচ্ছে।
এভাবেই প্রকৃত ভাবে আপনার প্রোডাক্ট মার্কেটিং এবং প্রোমোটের কথা ভাবতে হবে প্রচলিত ধারা থেকে বেরিয়ে এসে মানুসকে ভিন্নতার সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে হবে , দিতে হবে ভিন্নতার স্বাদ তবেই মানুস আকৃষ্ট হবে এবং আপনার প্রোডাক্ট কিনতে আগ্রহী হবে।
কষ্ট করে টপিকটি পড়ার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ।

মানুষ মাত্রই মরন শীল , কিন্ত নশ্বর নয় ।।

Re: দ্যা সোউল অব বিজনেস মার্কেটিং

টপিকটা আমাকে খাওয়াতে পেরেছেন!!  big_smile কারন 'ম' দেখলেই আমি যেখানে সেখানে ঢুকে পড়ি। (টিকা: ম = মার্কেটিং) তবে আমাদের দেশের কোম্পানী গুলোর মার্কেটিং এখনো মান্দাতার আমলে পড়ে রয়েছে। কিছু মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানীর কারনে বাইরের দিকে কিছুটা পরিবর্তন আসলেও, ভেতরটা আগের মতই আছে।

লেখাটি CC by 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: দ্যা সোউল অব বিজনেস মার্কেটিং

rounak লিখেছেন:

টপিকটা আমাকে খাওয়াতে পেরেছেন!!  big_smile কারন 'ম' দেখলেই আমি যেখানে সেখানে ঢুকে পড়ি। (টিকা: ম = মার্কেটিং) তবে আমাদের দেশের কোম্পানী গুলোর মার্কেটিং এখনো মান্দাতার আমলে পড়ে রয়েছে। কিছু মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানীর কারনে বাইরের দিকে কিছুটা পরিবর্তন আসলেও, ভেতরটা আগের মতই আছে।

হুম তা সত্য তবে ভালো কিছু কাজও হচ্ছে ,আগামীতে হয়তো ভালোমানের কাজ অবশ্যই দেখতে পাবো  আর প্রচলিত ধারা থেকে যারা বেরিয়ে এসে কিছু করছে ক্রেতারা তাদেরকেই সঙ্গ দিচ্ছে , আপনাকে ধন্যবাদ smile

মানুষ মাত্রই মরন শীল , কিন্ত নশ্বর নয় ।।