সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন invarbrass (১০-১২-২০১২ ১২:১০)

টপিকঃ ইন দ্যা শ্যাডো অব স্যাটার্ণ - Saturne éclipsant le soleil

ক্যাসিনী-হয়গেনস মিশনের অংশ হিসাবে ২০০৬ সালের ১৫ অক্টোবর নীচের অসাধারণ ছবিটি তুলেছিলো নাসার Cassini স্পেসক্রাফট:
(ক্লিক টু এনলার্জ)
http://i.imgur.com/4WPlb.jpg

চমৎকার ইমেজটি দেখে মনে হতেই পারে কোনো শিল্পীর তুলিতে আঁকা (বা কম্পিউটার গ্রাফিক্সের) স্যাটার্ণ (শনি) এবং তার রিং/বলয়ের চিত্র।

না, এটি মানুষের আঁকার কোনো ছবি নয়, সত্যিকারের রিয়েল ফটোই!

ক্যাসিনী-হয়গেনস স্পেসক্রাফটের ওয়াইড-এ্যাংগল ক্যামেরাগুলো অনবরত ৩ ঘন্টা যাবৎ অসংখ্য ফটো তুলেছিলো এই অসাধারণ ইভেন্টের। ক্যাসিনির তোলা ১৬৫টি ইনফ্রা-রেড, আল্ট্রা-ভায়োলেট এবং ক্লিয়ার ফিলটার ইমেজগুলো একত্রে লেয়ারিং এবং কালার-এ্যাডযাস্ট করে নাসার বিজ্ঞানীরা তৈরী করেছেন ওপরের কম্পোজিট ছবিটি। তার ওপর এখানে কেবলমাত্র একটি ইমেজ-ও না, বরং ছবিটি আসলে ৩ X ৩ = ৯টি ওয়াইড-এ্যাংগল ক্যামেরা ম্যাটৃক্সের স্টিচিং করা মোযেইক।

ছবিটির সাবজেক্ট: স্যাটার্ণ এক্লিপ্স, "শনি গ্রহণ"। সূর্য্যকে প্রায় পুরোপুরিভাবে গ্রাস করে নিয়েছে শনি গ্রহটি। শুধু নীচে বাঁদিকের ছোট্ট করোনা দেখে বোঝা যাচ্ছে ব্যাকগ্রাউন্ডে সূর্য্যের অস্তিত্ব। গ্রহ এবং নক্ষত্রের এই অভূতপূর্ব অবস্থানের কারণে দারুণভাবে ফুটে উঠেছে শনির বলয়। বিক্ষিপ্ত সূর্য্য রশ্মির কারণে স্পষ্টভাবে দেখা যাচ্ছে স্যাটার্ণের A,B,C,D,E, F এবং G রিং-গুলো। আবছাভাবে দেখা যাচ্ছে জানুস, প্যালিন এবং অন্যান্য রিং।

তবে ছবিটিতে কেবলই শনি আর সূর্য্যের লুকোচুরি না, আরো একজন অতিথিও উঁকি মারছে.... ১ লক্ষ কিমি স্কেলের ইমেজটিতে তাকে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে না, ওর জন্য কমপক্ষে 5X (৫০০%) ম্যাগনিফিকেশন দরকার হবে...

ইমেজটির টপ-লেফ্ট কর্ণারের যুম-আপ...
http://i.imgur.com/ubgdf.jpg

শনির কৃষ্ণ ছায়ায় একটি মলিন বিন্দু - ইন দ্যা শ্যাডো অব স্যাটার্ণ: দ্যা পেইল ব্লু ডট

ক্যাসিনী-র সাপেক্ষে গ্রহ-নক্ষত্রগুলোর অভূতপূর্ব অবস্থানের কারণে নীল   কালো মার্বলটিকে দেখে মনে হচ্ছে বুঝি শনির বহির্বলয়েরই একটি অংশ...  smile

ছবিগুলো তোলার সময় Cassini ক্রাফ্ট সোয়া দুই মিলিয়ন কি.মি দূরত্বে ছিলো।

ফটোর অন্যান্য ডিটেলস পাবেন নাসার ক্যাসিনি-হয়গেনস মিশনের "সাইক্লপস" (CICLOPS) সাইটে।

ছবিটির আরো বড় রেজুলুশন এখানে

Calm... like a bomb.

Re: ইন দ্যা শ্যাডো অব স্যাটার্ণ - Saturne éclipsant le soleil

মন্তব্য না করে খালি লাইক মেরে ভেগে যেতাম। তবে এবার কমেন্টো না করে থাকতে পারলাম না। এত ঘন ঘন টপিক করবেন না। পাওনা বুঝিয়ে দিতে পারি না সবসময়। আর ছবিটা অসাধারণ। শনিকে দেখলেই রহস্যময় মনেহয়। মাথায় খালি ঘুরতে থাকে ইউরোপা ইউরোপা। মরার স্পেস অডিসি angry

রাবনে বানাদি ভুড়ি :-(

Re: ইন দ্যা শ্যাডো অব স্যাটার্ণ - Saturne éclipsant le soleil

আপনের মতিগতি ভালো পাইতেছিনা, এখন আমাকে ফার্মেসী ট্র্যক থেকে সরিয়ে এস্ট্রোফিজিসিস্ট বানাবেন দেখি :পপপ 

অসাধারণ শেষের প্যারার এক্সপ্লানেশন  thumbs_up

Rhythm - Motivation Myself Psychedelic Thoughts

লেখাটি CC by 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: ইন দ্যা শ্যাডো অব স্যাটার্ণ - Saturne éclipsant le soleil

বস দেখি আজকাল এই মহাবিশ্ব ছাড়া আর কিছুতেই পোস্টান না ।

এই ব্যাক্তির সকল লেখা কাল্পনিক , জীবিত অথবা মৃত কারো সাথে মিল পাওয়া গেলে তা সম্পুর্ন কাকতালীয়, যদি লেখা জীবিত অথবা মৃত কারো সাথে মিলে যায় তার দায় এই আইডির মালিক কোনক্রমেই বহন করবেন না। এই ব্যক্তির সকল লেখা পাগলের প্রলাপের ন্যায় এই লেখা কোন প্রকার মতপ্রকাশ অথবা রেফারেন্স হিসাবে ব্যবহার করা যাবে না।

Re: ইন দ্যা শ্যাডো অব স্যাটার্ণ - Saturne éclipsant le soleil

সাইফুল_বিডি লিখেছেন:

বস দেখি আজকাল এই মহাবিশ্ব ছাড়া আর কিছুতেই পোস্টান না ।

  কেন বেশী দূরে তাকাইলে অন্য কিছু হারিয়ে ফেলেন নাকি?  wink

Rhythm - Motivation Myself Psychedelic Thoughts

লেখাটি CC by 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: ইন দ্যা শ্যাডো অব স্যাটার্ণ - Saturne éclipsant le soleil

সনিরে দেখে খায়া ফেলতে মন চাইতেসে।

মুইছা দিলাম। আমি ভীত !!!

লেখাটি CC by 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: ইন দ্যা শ্যাডো অব স্যাটার্ণ - Saturne éclipsant le soleil

আহমাদ মুজতবা লিখেছেন:
সাইফুল_বিডি লিখেছেন:

বস দেখি আজকাল এই মহাবিশ্ব ছাড়া আর কিছুতেই পোস্টান না ।

  কেন বেশী দূরে তাকাইলে অন্য কিছু হারিয়ে ফেলেন নাকি?  wink

না কিছুই হারাই না , তবে ব্রাসু ভাই রেগুলার গ্রহ নক্ষত্র নিয়ে পোস্টাইতাছে তাই আমার ক্ষীণ সন্দেহ জাগিতেছে উনি কি মঙ্গল পাড়ী দিবার ধান্দা করিতেছেন নাকি ।

এই ব্যাক্তির সকল লেখা কাল্পনিক , জীবিত অথবা মৃত কারো সাথে মিল পাওয়া গেলে তা সম্পুর্ন কাকতালীয়, যদি লেখা জীবিত অথবা মৃত কারো সাথে মিলে যায় তার দায় এই আইডির মালিক কোনক্রমেই বহন করবেন না। এই ব্যক্তির সকল লেখা পাগলের প্রলাপের ন্যায় এই লেখা কোন প্রকার মতপ্রকাশ অথবা রেফারেন্স হিসাবে ব্যবহার করা যাবে না।

Re: ইন দ্যা শ্যাডো অব স্যাটার্ণ - Saturne éclipsant le soleil

চমৎকার ও তথ্য সমৃদ্ধ লেখা। তবে ....
...
.....
.......
লেখার বহু অংশে আমার নাম আমার বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা হইছে। কপিলেফট আইনে কৃতজ্ঞতা স্বীকার করা হয় নাই। আমি এবং আমার নাম-ধাম-কর্ম সবকিছুই CC-NC-SA অনুযায়ী উন্মুক্ত। wink

(+/-) বিষয়ে আমার মতো কৃপণ চিড়িয়া, এই ফোরামে দ্বিতীয়টা পাবেন কিনা সন্দেহ। তবে আজ এই লেখাটা পড়ার পর একটা (+) দিতেই হলো।

রিং'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: ইন দ্যা শ্যাডো অব স্যাটার্ণ - Saturne éclipsant le soleil

দারুন,শনির গ্রহণ।
কবে যে মানুষ শনিতে হোটেল বানাবে।  tongue

১০

Re: ইন দ্যা শ্যাডো অব স্যাটার্ণ - Saturne éclipsant le soleil

নয়ন মুগ্ধকর দৃশ্য! টেড টকের একটা প্রজেন্টেশনে ছবি গুলো প্রথম দেখেছিলাম। নিজ চোখে এই দৃশ্য কখনো দেখতে পারবনা এটা ভেবেই মন খারাপ হয়ে যায়!

invarbrass লিখেছেন:

না, এটি মানুষের আঁকার কোনো ছবি নয়, সত্যিকারের রিয়েল ফটোই!

ভাল কথা, স্যাটেলাইট এবং স্পেস প্রোবের ইমেজেরী গুলো সাধারনত অপটিকেল সেন্সর (ক্যামেরা) দিয়ে নেয়া হয় না। রবং বিভিন্ন ই.এম. ব্যান্ডে স্কেন করা হয়। তারপর সেই ডাটা থেকে "ফলস্‌ কালার" ইমেজ কনস্ট্রাশন করা হয়। আউটপুটের ছবি কেমন আসবে তা নির্ভর করে ইমেজ প্রসেসিং এর উপর।তাই এটাকে একধরনের গ্রাফিক্স বলা যায় বৈকি! আন্ডারগ্রেডে "স্যাটেলাইট ইমেজ প্রসেসিং" ক্লাসে এই বিষয়গুলো জানার পর গুগল আর্থের ছবিগুলোকে অনেক পানসে লাগত!!

যদিও এই ছবিতে কি সেন্সর ব্যাবহার করা হয়েছে জানিনা, তবে আমার মনেহয় এটা ফলস্‌ কালার কনস্ট্রাকশন।

১১

Re: ইন দ্যা শ্যাডো অব স্যাটার্ণ - Saturne éclipsant le soleil

নির্বাক... অসাধারন...

গর্ব এবং আশায় ভরা বুক! কাঁধে কাঁধ, হাতে হাত, সমুন্নত শির!
আমি তুমি সবাই মিলে এক, একই লাল সবুজের কোলে সবার নীড়।

১২

Re: ইন দ্যা শ্যাডো অব স্যাটার্ণ - Saturne éclipsant le soleil

অদ্ভুত একটি গ্রহ এই শনি!
অবাক হলাম আজকেও এর সাইজ দেখে!

ওয়েব হোস্টিং | রিসেলার হোস্টিং | অনলাইন রেডিও হোস্টিং
টেট্রাহোস্ট বাংলাদেশ - www.tetrahostbd.com

১৩

Re: ইন দ্যা শ্যাডো অব স্যাটার্ণ - Saturne éclipsant le soleil

টেট্রাহোস্ট লিখেছেন:

অদ্ভুত একটি গ্রহ এই শনি!
অবাক হলাম আজকেও এর সাইজ দেখে!

শেষের ছবিটা দেখে শনির সাইজ আন্দাজ করা যায় না। বৃহঃস্পতি শনির চেয়ে অনেক বড়। সৌরজগতের সকল গ্রহের সম্মিলিত ভরের চাইতে বৃহঃস্পতির ভর বেশি।

Feed থেকে ফোরাম সিগনেচার, imgsign.com
ব্লগ: shiplu.mokadd.im
মুখে তুলে কেউ খাইয়ে দেবে না। নিজের হাতেই সেটা করতে হবে।

শিপলু'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত

১৪

Re: ইন দ্যা শ্যাডো অব স্যাটার্ণ - Saturne éclipsant le soleil

শিপলু লিখেছেন:
টেট্রাহোস্ট লিখেছেন:

অদ্ভুত একটি গ্রহ এই শনি!
অবাক হলাম আজকেও এর সাইজ দেখে!

শেষের ছবিটা দেখে শনির সাইজ আন্দাজ করা যায় না। বৃহঃস্পতি শনির চেয়ে অনেক বড়। সৌরজগতের সকল গ্রহের সম্মিলিত ভরের চাইতে বৃহঃস্পতির ভর বেশি।

জী জানি এইটা! এখন শুধু শনির সাইজ দেখলাম বলে অবাক হলাম, বৃহঃস্পতির সাইজ দেখলে ভড়কায় যেতাম!  lol

ওয়েব হোস্টিং | রিসেলার হোস্টিং | অনলাইন রেডিও হোস্টিং
টেট্রাহোস্ট বাংলাদেশ - www.tetrahostbd.com

১৫ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন invarbrass (১৬-১২-২০১২ ১৩:৩৬)

Re: ইন দ্যা শ্যাডো অব স্যাটার্ণ - Saturne éclipsant le soleil

টেট্রাহোস্ট লিখেছেন:

জী জানি এইটা! এখন শুধু শনির সাইজ দেখলাম বলে অবাক হলাম, বৃহঃস্পতির সাইজ দেখলে ভড়কায় যেতাম!  lol

(ছবিগুলো ফোরামে ছোটো দেখাচ্ছে। নতুন ট্যাবে ওপেন করার জন্য রাইট ক্লিকান)

আ পিকচার স্পীকস থাউজ্যান্ড ওয়ার্ডস:
http://i.imgur.com/y3dmm.jpg

পৃথিবীর সাপেক্ষে জায়ান্ট প্ল্যানেটগুলোর উপগ্রহের তূলনা:  hairpull
http://i.imgur.com/QyFtt.jpg

সৌরজগৎের ফ্যামিলী পোর্ট্রেট: রিলেটিভ সাইজ: যথাক্রমে জুপিটার, স্যাটার্ণ, ইউরেনাস, নেপচুন, পৃথিবী, ভিনাস, মার্স, গ্যানীমিড, টাইটান, মারকারী, ক্যালিস্টো, ইও, চাঁদ, ইউরোপা, ট্রাইটন, এরিস এবং প্লুটো (পিএস: প্লুটোকে সম্প্রতি ত্যাজ্যপূত্র করা হয়েছিলো  worried )
http://i.imgur.com/8pyIc.jpg

সৌরজগৎের টপ ১০০ বৃহত্তম অবজেকট:
http://i.imgur.com/uinol.jpg

রোমিও এ্যান্ড জুলিয়েট... জুপিটার ও পৃথিবী:  tongue
http://i.imgur.com/7wGKV.jpg

গ্যাস প্ল্যানেটস: জুপিটার, স্যাটার্ণ, ইউরেনাস ও নেপচূন। এরা পৃথিবী, বা মার্সের মত সলিড না, বরং গ্যাস জাতীয়। এদেরকে জোভিয়ান (জুপিটার-লাইক) প্ল্যানেটস নামে ডাকা হয়:
http://i.imgur.com/dJzTL.jpg

ফুল ফ্যামিলী (প্লুটো ইনক্লুডেড):
http://i.imgur.com/euaDi.jpg

Calm... like a bomb.

১৬

Re: ইন দ্যা শ্যাডো অব স্যাটার্ণ - Saturne éclipsant le soleil

এইসব গ্রহে গিয়ে বাস করতে পারলে ঢাকা টা একটু ফাকা হইতো! শুধু দরকার ছিল ক্লোরোফিল যা দিয়ে দেহে খাবার উৎপাদন হইত আর দরকার ছিল ইন্টারনেট, পৃথিবীর মানুষ ও আমাদের ক্লায়েন্ট দের সাথে যোগাযোগ করার জন্যে! কোলন পি!

ওয়েব হোস্টিং | রিসেলার হোস্টিং | অনলাইন রেডিও হোস্টিং
টেট্রাহোস্ট বাংলাদেশ - www.tetrahostbd.com

১৭

Re: ইন দ্যা শ্যাডো অব স্যাটার্ণ - Saturne éclipsant le soleil

কাকতালীয় ঘটনা!  surprised ২/৩ দিন আগে নাসা আরো একটা চমৎকার ছবি রিলিজ করলো। ক্যাসিনীর তোলা ১৭ ডিসেম্বরের শনি গ্রহ (এবং কপিলেফট রিংদা  tongue ):
http://i.imgur.com/jG55R.jpg
এই ছবিতেও সূর্য্যের "এক্লিপস" দেখা যাচ্ছে। গ্রহটির সিল্যুয়েট দেখা যাচ্ছে, আর রিং গুলো সূর্য্যের আলোয় ব্যাকলীট হয়ে ফুটে উঠেছে।

জ্বী না।  shame প্ল্যানেটের বাঁয়ে নীচের দিকে দু'টো ফুটকির মত যা দেখছেন ওগুলোর কোনোটাই পৃথিবী না (আমি নিজে ধরা খেয়েছিলাম  big_smile ) ঐ দু'টো শনিরই দুই চ্যালা (উপগ্রহ) - এনসেলাডাস (নিকটবর্তী পিক্সেল), আর টিথিস (দূরের পিক্সেল)

Calm... like a bomb.