টপিকঃ কিছু ক্র্যসিং রোমাণ্টিকতা - ৫

আগেরগুলি পড়েছেন তো  confused


কিছু ক্র্যসিং রোমাণ্টিকতা

কিছু ক্র্যসিং রোমাণ্টিকতা - ২

কিছু ক্র্যসিং রোমাণ্টিকতা - ৩

কিছু ক্র্যসিং রোমাণ্টিকতা - ৪
*************************************************



এই কথা শুনে আমি একটু ঘাবড়িয়ে গেয়েছি বাট পরক্ষনেই আবার শান্তাকে বললাম - যা এরকম ভাল আমি ও বাসি যেমন তোরে ও আমি লাইক করি 

- না না ভাইয়া তুমি বুঝতে পারো নাই ও তুমারে সত্যি সত্যি ভালবাসে , আমি ওরে রাগানোর জন্য মাঝে মাঝে আকাশের বউ কই তখন ও শরম পায় ।

- কস কি শান্তা এই কাহিনী কবে থাইকা ?

- ভাইয়া আমি যাই শাম্মি আমারে মাইরাই ফালাইবো , তুমি পিলিজ কাউরে কইবা না  neutral । আমি মাথা নেড়ে সায় দিলাম । এখন ভাবছি কি করুম । এসব কি হচ্ছে ধুর মনে হয় স্বপ্ন দেখছি । আর পুলাপাইনের মন আর ছুডু বাচ্চাগো ....  donttell একই কথা । যাই হোক পরেরদিন আপুর বাসার গেইট হতে বের হয়ে দেখি শাম্মি সাজুগুজু করে দাঁড়িয়ে আছে । সাজুগুজু বলতে ঠোটে লাল কালারের  একটা লিপিস্টিক দিছে এবং তার নিচে কালো বর্ডার দেয়া । কই থাইকা শিখল মেয়েটা এসব  surprised । আমি পাশ দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলাম মেয়টাকে এড়িয়েই বাট ও খপ করে আমার পিছনের শার্ট ধরে ফেলল । তারপর বলল -

- আমি সরি ভাইয়া , প্লিজ আমাকে মাফ করে দাও  cry

- দেখো শাম্মি আমি তোমার ওপরে রেগে  নেই এবং তুমি যেহেতু বলছ যাও আমি তোমাকে  মাফ করে দিয়েছি ওকে এখন যেতে দাও ।

- নাহ ছাড়ব না একটা কথা আছে

- কি কথা

- আপনি শান্তার সাথে এত কথা বলবেন না ও একটা বিশ্বাসঘাতক

-  কেন ও তুমার এমুন মনে হয়  শাম্মি  confused আমি তো শান্তাকে ভালই জানি ।

- শুনেন আসলে ও আপনাকে পছন্দ করে আর ও চায় না আমি আপনার সাথে কথা বলি ।

- পছন্দ তো করতেই পারে তাতে দোষের কি আমি ও তো ওকে পছন্দ করি ।

- অয় কি আপনের গার্ল ফ্রেন্ড নাকি  angry angry

- ভাবতে দোষ কি হ্য ও আমার গার্ল ফ্রেন্ড তো  hehe  hehe

মেয়েটার চোখ ছলছল করে উঠল আমার এহেন কথায় । আমি চেয়ে রইলাম ওর মনে এমুন ভাবনা আসল কোথা থেকে । সবই মিডিয়ার দোষ  angry angry angry। তারপর মেয়েটা ছলছল আঁখি নিয়ে আমাকে বলল -

- ভাইয়া আমি আপনাকে অনেক ভাল জানি । ঐ মাইয়াটা ভালু না

- সেটা আমি বুঝব কি ভালো আর কি খারাপ তুমি কি আর কিছু বলবে আমি যাবো  wink

- ভাইয়া শেষ একটা কথা বলতে চাই ?

- কি বলবে ?

- একটু কানে কানে বলব প্লিজ একটু নিচু হন না  sad

- ঠিক আছে এই যে কান নিলাম বল কি বলবে ।

মেয়েটা আমার গালে একটা লাল লিপি একে দিল এক দৌড় । আমি তো তাজ্জব হয়ে গেলাম । অ্যায় হায় মাইয়াডা আমারে চুমা দিয়া দৌড় দিল  tongue_smile । আমি এখন এই লাল ঠোঁটের চিত্রঙ্কন নিয়া বাইরে গেলে তো ফিনিশ । কিন্তু কি করুম যে কালার উঠতেই চায় না । যা থাকে কপালে কিসিং এর স্তানে হাত দিয়া একটা ঘষা দিলাম । তারপর দোকানের দিকে গেলাম । দোকান থেকে পানি নিয়া মুখ ভালো করে পরিস্কার করে নিলাম । এহেন মুহুত্রে এক দোস্তের আগমন । আমি বললাম - দেখ তো দোস গালে কিছু আছে নাকি লাল লাল ?

- কস কি লাল লাল মানে কেউ চুম্মা টুম্মা দিসে নাকি ?

- আর কইস না পুলাপাইনের প্রেম পড়ছি দেখ আগে ।

- নাহ নাই তবে একটু লাল আছে দাড়া মুছে দিতাছি । দোস্তের হেল্প নিয়া আমি সেইদিন একটু বেঁচে গেলাম এবং ওর মুখ বন্ধ করার জন্য আমাকে ২০ টা খরচ করতে হয়েছিল  sad


শান্তা আর শাম্মির জ্বালায় আমি একেবারে তুলোধনা হয়ে যাচ্ছিলাম । একজন আরেকজনের নামে প্রতিদিনিই একটা বিচার নিয়া আসে । আর আমার সেগুলো গোগ্রাসে গিলতে হয় । একদিনের ঘটনায় আমার বন্ধুমহলের সবাই ব্যপারটা জেনে ফেলে যে ঐ পিচ্চি দুইটাই আমারে ভালুবাসে  blushing blushing । এখন তো ওরা দিন রাইতে চেতায় । রাস্তা দিয়া গেলেই কয় - ঐ যে আকাশের ছুডু গার্ল ফ্রেন্ড তয় ও নাম্বার টু আর এক তো শান্তা আফু  tongue । আবার শান্তা এলে ওকে বলে এর উলটটা  wink


একদিন বিকেলে আমি বাইরে যাচ্ছিলাম তো শাম্মির সাথে আমার পথে মইধ্যে দেখা । শাম্মি আমারে কয় - ভাইয়া একটা কথা

- তোর কোন ও কথাই শুনুম না তুই ভালো না শান্তা তোর চেয়ে অনেক ভালু

- ভাইয়া এই শেষ বার প্লিজ একটা কথা রাখো

- ওকে বল তবে কানে কানে কোন ও কথা বলতে পারব না বলে দিলাম

- ঠিক আছে কানে কানে না , তুমি আজ রাতে ৮ টার পর একটু দেখা করতে পারবে ।

কয় কি মেয়েটা এসব কি হচ্ছে । আইজকাল্কার পুলাপাইন এত জোরে দোড়ায় এইটা তো মাম্মা জানা ছিল না । আমি বেশ একটু কৌতূহলী হয়ে বললাম ওকে আসব ।



রাত ৮ টায় দোকান হতে বাসায় যাচ্ছিলাম বন্ধুরা সহ দেখি মেয়েটা একটা শাড়ি পড়ে দাঁড়িয়ে আছে একটা আম গাছের নিচে । আমি লক্ষ করে ও হেঁটে চলে যাচ্ছিলাম । সে আমাকে বলল ভাইয়া তুমি কই ছিলা আমি সেই কখন থেকেই ওয়েট করছি । তুমি না আমাকে কথা দিয়াছিলা ।

- অহ সরি আমি ভুলেই গেয়েছি আইচ্ছা বল কি বলবে

- ভাইয়া একটু পরে বলি আব্বু এশার নামাজ পড়তে যাবে তখন আমি বের হব ঠিক আছে ।

- ঠিক আছি আমি কি করব হাত মুখ ধুয়ে আসি কি বল

- ঠিক আছে আমি বাসার সামনেই থাকব

আমি চলে গেলাম হাত মুখ ধুয়ে আবার এলাম আম গাছের নিচে ( আমি একটু উৎসাহ হয়ে যাচ্ছিলাম কি হয় ) । মেয়েটা কিছুক্ষন পর আসল প্রাই ৫ /৬ মিনিট লেইট । তারপর আমার কাছে এসে বলল ভাইয়া হাতটা দাও । আমি হাত বাড়িয়ে দিলাম ও আমার ডান হাতটা দুই হাত দিয়া চেপে ধরল তারপর আমার দিকে চোখ ছলছল করে বলল -
আমি তোমাকে  ভালবাসি ভাইয়া । তুমি আমার হিরু হবে ?


http://4.bp.blogspot.com/_Bopl9F3NAcM/TVFfy0Vl5dI/AAAAAAAACjc/4l7A9laZZME/s1200/small_girl_babies_01.jpg

আমি কি বলব ভাষা খুজে পেলাম না । সেদিন মেয়েটা আমার হাতটা যেভাবে ধরেছিল মনে হচ্ছিল মনে হচ্ছিল ......... কি বলব বোঝানো যাবে না । আমি ওকে বলে ছিলাম যে এসব বাদ দাও তুমি এখন অনেক ছোট । কিন্তু সে আমাকে বলে - তুমি আমার জন্য অপেক্ষা কর আমি বড় হয়েই তুমার কাছে আসুম তয় কথা দেন সেই সময় পর্যন্ত আপনি অন্য কারো দিকে তাকাইবেন না  । আমি কি বলব বুঝতে পারলাম না । আমি শুধু ওর কথা শুনে তাজ্জব হয়ে যাচ্ছিলাম । এর পর হটাত ও আমার হাতটা ছেড়ে বলল এখন যাই কেমন নামাজ শেষ হয়ে গেছে কেউ দেখে ফেললে সমস্যা আছে ।
আমি পুরাই বেক্কল হইয়া গেলাম ওর কথা শুনে কে দেখলে কি ভাববে বুঝি নাই । একটা বাচ্চা মেয়ের হাত ধরলাম এতে মানুষ কেনো কিছু ভাববে । আহারে ছুডু মাইন্সের প্রেম বুঝি এতই নিস্পাপ হয় sad


শান্তার সাথে আমার দুস্টামিটা বেশি হয়ে গিয়েছিল যখন শাম্মিরা গাজিপুরের দিকে চলে যায় । মেয়েটা যেই কান্না  dontsee dontsee । যাই হোক শান্তার সাথে দুস্টামির  এক্সাম্পল – যেমন বেশিরভাগ হাবিজাবি খাবার  ওর থাইকাই আমি খাইছিলাম , আপুর বাসায় প্রায়ই  আসতো । বহুত দুষ্টামি করতাম । বলতাম - এই তুই নাকি আমাকে ভালবাসস ?
- কে কইছে

- শাম্মি কইছে ?

- না ভাইয়া মিছা কথা ? আল্লাহর কসম ঐ তুমারে ভালবাসে

- অহ তাইলে তুই বাসস না অক্কে তাহলে আমার লগে কাট্টি ল , তাইলেই বুঝুম তুই ও আমারে পছন্দ করস না

- কাট্টি নিতে পারুম না যদি বিশ্বাস করেন তো করেন আর না করলে নাই

শান্তাকে যদি বলতাম যাহ একটা লাল টিপ দিয়া কপালে বিকালে হাটাহাটি করবি তাইলে বজুম তুই আমারে পছন্দ করিস না  wink wink । ঘটত এর বিপরিতটা ।
এরকম বহু দুষ্টামি সৃতির এলব্যামে জড়িয়ে আছে আমার । বন্ধুরা ও পেয়েছিল তাদেরকে । এখন ও ঐ দোস্তরে বলি – দোস্ত তুমার শালি শান্তামনি অখন কোন ক্লাসে পড়ে ? দোস্ত কয় – ঐ তো নায়িকা সারিকার মত হবুহ হয়ে গেছে তোর চান্স নাই । আমি কই বেটা সামনে গিয়া খাড়াইলেই তো দেখবি চোখ মাটির ভিতর চইলা গেছে । যেই চুম্মা গুলা আমার গালে দিছিলো সেগুলো  এখন ফিরত দেয়ার টাইম হইছে রেডি থাকতে বলিস wink



কিছুদিন আগে গিয়েছিলাম ভ্যকেশনে দেশে । সো শাম্মি আমার সামনে দিয়েই হেঁটে চলে গিয়েছিল বাট আমি লক্ষ করিনি । শুনেছি দুই বান্ধবী এখন দুই মেরুতে অবস্তিত । তারা একটু বেশি ডিজিটাল হয়ে গিয়েছে । হবেই বা না কেন ছুডু বেলায় যেই খেইল দেখাইছে  big_smile । বন্ধুরা এখন ও বলাবলি করে আর আমি এখন ও হাসি । ফোন দিয়া যদি কোন ও বন্ধুরে বলি – কিরে এলাকায় নতুন কেউ আইছে নাকি ?

- নারে দোস্ত নতুন পিচ্চি নাই তোর তো লাক ভালা শুধু পিচ্চিরাই তোরে পছন্দ করে

আমার আর বলার কিছুই থাকে না  donttell । আহারে সেই দিনগুলো মোর পাখির খাঁচায় যদি বন্দি করে রাখতে পারতাম  sad sad




চলবে ............. যদি চালাইতে পারি   sad sad

নিবন্ধিতঃ১১/০৩/২০০৯ ,নিয়মিতঃ১০/০৩/২০১১, প্রজন্মনুরাগীঃ১৯/০৫/২০১১ ,প্রজন্মাসক্তঃ২৬/০৯/২০১১,
পাঁড়ফোরামিকঃ২২/০৩/২০১২, প্রজন্ম গুরুঃ০৯/০৪/২০১২ ,পাঁড়-প্রাজন্মিকঃ২৭/০৮/২০১২,প্রজন্মাচার্যঃ০৪/০৩/২০১৪।
প্রেম দাও ,নাইলে বিষ দাও

Re: কিছু ক্র্যসিং রোমাণ্টিকতা - ৫

jemsbond লিখেছেন:

চলবে ............. যদি চালাইতে পারি   sad sad

চলুক, আমার খুব মজা লাগতেছে।

Re: কিছু ক্র্যসিং রোমাণ্টিকতা - ৫

thumbs_up thumbs_up thumbs_up

Re: কিছু ক্র্যসিং রোমাণ্টিকতা - ৫

কিছু কিছু জায়গা আছে, পড়লে নিজের পুরানো স্মৃতি গুলো মনে চলে আসে। পড়তে পড়তে ১৩ বছর আগে ফিরে গেছিলাম নিজের অজান্তে। যখন পড়া শেষ হল, দেখি দু-চোখে দুফোটা জল জমে আছে। অসাধারন লেখেন আপনি।
ভাবছি আমার  কাহীনিটাও আপনাকে দিয়ে লিখিয়ে নিব smile । চালিয়ে যান।

Allah is a better planner... so whenever u'r plan fails, cheer up... Allah has a better plan for you

Shahanur79'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: কিছু ক্র্যসিং রোমাণ্টিকতা - ৫

তিনজনকেই ধন্যবাদ আর একজন তো খালি ইমু দেয় মনে হয় হেতে বোবা  ghusi ghusi

নিবন্ধিতঃ১১/০৩/২০০৯ ,নিয়মিতঃ১০/০৩/২০১১, প্রজন্মনুরাগীঃ১৯/০৫/২০১১ ,প্রজন্মাসক্তঃ২৬/০৯/২০১১,
পাঁড়ফোরামিকঃ২২/০৩/২০১২, প্রজন্ম গুরুঃ০৯/০৪/২০১২ ,পাঁড়-প্রাজন্মিকঃ২৭/০৮/২০১২,প্রজন্মাচার্যঃ০৪/০৩/২০১৪।
প্রেম দাও ,নাইলে বিষ দাও

Re: কিছু ক্র্যসিং রোমাণ্টিকতা - ৫

jemsbond লিখেছেন:

তিনজনকেই ধন্যবাদ আর একজন তো খালি ইমু দেয় মনে হয় হেতে বোবা  ghusi ghusi

খালি ইমো দিয়ে মন্তব্য করার দায়ে একখান - তবারক দিয়ে দাও ঠিক হয়ে যাবে। wink