টপিকঃ কড়ায়-গণ্ডায় হিসাব

অকেজো জ্ঞান। জ্বি, আজ আপনাদের সামনে একটি অকেজো জ্ঞানকেই হাজির করছি। কেন বলছি অকেজো জ্ঞান? কারণ আজ যে বিষয়টি আপনাদের সামনে হাজির করবো তার প্রচলন অনেক অনেক আগেই শেষ হয়ে গেছে। ফলে এটা জেনে কখনোই কোনো কাজে লাগাতে পারবেন না, আর তাই যে জ্ঞান কোনো কাজে লাগেনা তাকে তো অকেজো জ্ঞানই বলে!! তাহলে শুরু করা যাক:

আমরা জানি-
৪ আনা = ২৫ পয়সা।
৮ আনা = ৫০ পয়সা।
১৬ আনা = ১০০ পয়সা বা ১ টাকা।
১ টাকা = ১০০ পয়সা।
কিন্তু এই “আনার” আগের হিবাসগুলি কি কি?

আমরা মাঝে মাঝেই বলতে শুনি -
“তোমার কথার দু আনা দামও নেই।”
“তোমার কানা কড়ি মূল্য নেই।” 
“পাই পয়সার হিসাব চাই।”
“আমার হিসাব কড়ায়-গণ্ডায় বুঝে নিবো।” ইত্যাদি ইত্যাদি।
কিন্তু কথা হচ্ছে টাকা, আনা, পাই, কড়ি, গণ্ডা ইত্যাদির মূল্যমান বা হিসাব পদ্ধতি সম্পর্কে আমাদের কতোটা ধারনা আছে!!!

ছোট্ট একটা তালিকা দেখুন- এই তালিকার সাথে আবার উপরের বর্তমানে প্রচলিত হিসাবের মূল্যমাণ মিলানোর চেষ্টা করবেন না। এই তালিকাটি হচ্ছে সেই আদিকালে ব্যবহৃত আমাদের আদি বাংলার মূদ্রামূল্য বিন্যাস।
সেই আদিকালে আমাদের দেশের মুদ্রাবিভাজন ছিলো নিম্ন রূপ-
২ অর্দ্ধ-পয়সা বা ৩ পাই = ১ পয়সা।
২ পয়সা বা ৬ পাই = ১ ডাবল পয়সা।
৪ পয়সা বা ২ ডাবল পয়সা = ১ আনা।
২ আনা বা ৪ ডাবল পয়সা = ১ দুয়ানি।
৪ আনা বা ২ দুয়ানি = ১ সিকি।
২ সিকি বা ৪ দুয়ানি = ১ আধুলি।
২ আধুলি বা ৪ সিকি বা ১৬ আনা = ১ টাকা।
১৬ টাকা = ১ মোহর।
এখানে বলে রাখা ভালো অর্দ্ধ-পয়সা, পাই, পয়সা ও ডাবল পয়সা এই চারটি ছিলো তাম্রমুদ্রা। অন্য দিকে দুয়ানি, সিকি, আধুলি ও টাকা ছিলো রৌপ্যমুদ্রা। আর মোহর ছিলো স্বর্ণমুদ্রা। (এগুলি সবই অতীত। বর্তমাণের সাথে মিলানোর অপচেষ্ঠা না করাই ভালো।)


এই তিন ধরনের তাম্রমুদ্রা, রৌপ্যমুদ্রা ও স্বর্ণমুদ্রা ছাড়াও কড়ির ব্যবহার মুদ্রা হিসেবে প্রচলন ছিলো। যেমন-
৪ কড়া = ১ গণ্ডা
৫ গণ্ডা = ১ বুড়ি বা পয়সা।
৪ বুড়ি বা পয়সা = ১ পণ বা আনা।
৪ পণ বা আনা = ১ চৌক।
৪ চৌক বা ১৬ পণ = ১ টাকা বা কাহন।

ধরুন আপনি যদি বলেন “আমার হিসাব কড়ায়-গণ্ডয় বুঝিয়ে দাও।” তাহলে বিষয়টি হচ্ছে ১ টাকার (১৬×৪×৫×৪) = ১২৮০ ভাগের এক ভাগপর্যন্ত নিখুঁতভাবে আপনাকে বুঝিয়ে দেয়ার কথা বলছেন।


যাইহোক কড়ায়-গণ্ডায় বুঝে নেয়ার চেয়েও যদি আরো বেশি নিখুঁত ভাবে বুঝে নেয়ার ইচ্ছে থাকে তাহলে তার ব্যবস্থাও ছিলো সেই যুগে।

২০ বিন্দু = ১ ঘূণ
১৬ ঘূণ = ১ তিল
২০ তিল = ১ কাক
৪ কাক = ১ কড়া

আবার অন্য আরেকটি মূলমানও ছিলো-
৩ যব = ১ দন্তী
৩ দন্তী = ১ ক্রান্তি
৩ ক্রান্তি = ১ কড়া।

তাছাড়া আরো একটি ক্ষুদ্র মূল্যমাণ ছিলো এমন
৩২০ রেণু = ৭দ্বীপ = ৫ তাল = ১ কড়া।

এবার শেষ করবো এই অকেজো জ্ঞানের প্যাচাল।এই পুরো লেখাটির সমস্তু তথ্য নিয়েছি পঞ্চানন ঘোষের লেখা “শুভঙ্করী” বইটি থেকে। তাই কৃতজ্ঞতা স্বরুপ একটি শুভঙ্করের মূদ্রাবিভাজন সম্পর্কিত আর্য্যা দিয়ে শেষ করছি-

“চারি কাকে বটৈক জানি, তিন ক্রান্তি বট বাখানি।
নবদন্তী করিয়া সার, সাতাইশ যবে বট বিচার।
আশি তিলে বটঙ্কর, লেখার গুরু শুভঙ্কর।।”

ভালো থাকবেন সকলে।

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

Re: কড়ায়-গণ্ডায় হিসাব

দারুন তথ্য বহুল পোষ্ট। অনেকটাই জানতাম। ধন্যবাদ শেয়ার করায়।

Re: কড়ায়-গণ্ডায় হিসাব

যোগার করছেন কিভাবে..?
দারুণ হইছে।

আমার মৃত্যু নেই কারণ আমি মানুষ।
আল্লাহ মানুষকে অমর বানিয়েছেন তবে এ দেহের মৃত্যু হবে।

facebookকে

Re: কড়ায়-গণ্ডায় হিসাব

ইলিয়াস লিখেছেন:

দারুন তথ্য বহুল পোষ্ট। অনেকটাই জানতাম। ধন্যবাদ শেয়ার করায়।

এস,এম,ও,রাজু লিখেছেন:

যোগার করছেন কিভাবে..?
দারুণ হইছে।

আপনাদের কেও জানাই অসংখ্য ধন্যবাদ।

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

Re: কড়ায়-গণ্ডায় হিসাব

আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ ভাইয়া
নতুন কিছু জানকে পারলাম।

অপ্রিয়

Re: কড়ায়-গণ্ডায় হিসাব

বহু কিছু একসাথে জানলাম। এর জন্য আপনাকে বহু ধন্যবাদ।  clap

Re: কড়ায়-গণ্ডায় হিসাব

সুজন রায় লিখেছেন:

আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ ভাইয়া
নতুন কিছু জানকে পারলাম।

হলো না।
পুরনো কিছু নতুন করে জানলেন।

Sun লিখেছেন:

বহু কিছু একসাথে জানলাম। এর জন্য আপনাকে বহু ধন্যবাদ।  clap

অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাকেও সান ভাই।

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

Re: কড়ায়-গণ্ডায় হিসাব

আসলেই মজার ছিলো আগের দিনের মানুষের ব্যাংকিং সিস্টেম!!
ম.জ. ভাইকে ১৬ আনা রেপু!!  lol

তামিম৬৯'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: কড়ায়-গণ্ডায় হিসাব

তামিম৬৯ লিখেছেন:

আসলেই মজার ছিলো আগের দিনের মানুষের ব্যাংকিং সিস্টেম!!
ম.জ. ভাইকে ১৬ আনা রেপু!!  lol

সত্যি বলতে এই টপিকের জন্য রেপু আমি কডায়-গণ্ডায়ই বুঝে পেয়েছি। নিঃরস এই হিসাবের জন্য ৪টি রেপুই যথেষ্ট, কি বলেন?

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

১০

Re: কড়ায়-গণ্ডায় হিসাব

এক কথায় দারুন !!!!!!!

এই গরমে স্বাক্ষর আর কি দিমু........

১১

Re: কড়ায়-গণ্ডায় হিসাব

asraful লিখেছেন:

এক কথায় দারুন !!!!!!!

ধন্যবাদ আশরাফুল ভাই।

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

১২

Re: কড়ায়-গণ্ডায় হিসাব

দারুন সব তথ্য  thumbs_up
বেশি ভাল লেগেছে লেখার উপস্থাপনা কে  smile

ওয়েব হোস্টিং | রিসেলার হোস্টিং | অনলাইন রেডিও হোস্টিং
টেট্রাহোস্ট বাংলাদেশ - www.tetrahostbd.com

১৩

Re: কড়ায়-গণ্ডায় হিসাব

টেট্রাহোস্ট লিখেছেন:

দারুন সব তথ্য  thumbs_up
বেশি ভাল লেগেছে লেখার উপস্থাপনা কে  smile

নিরস বিষয়, এরচেয়ে সহজ করে উপস্থাপন করার স্বাধ্য আমার ছিলো না।

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

১৪

Re: কড়ায়-গণ্ডায় হিসাব

ভাই আপনাকে ধন্যবাদ দেবার মতো কুনু ইউনিকোড নাই ।  hehe  big_smile

হাসি আমার বাইরের ভূষণ

১৫

Re: কড়ায়-গণ্ডায় হিসাব

দারুন , হিসাব বুঝতে গিয়ে ৪/৫ টা দাঁত নড়ে গেছে  whats_the_matter   
আমি আমার টেকা কড়ায় গন্ডায় বুঝিয়া লইতে চাইনা আমি আমার টাকা ডায়মন্ড এ চাই  whats_the_matter whats_the_matter

"You hate everything you see in me-Have you looked in a mirror'

http://www.priyobd.net/  Live chat with us !!

১৬

Re: কড়ায়-গণ্ডায় হিসাব

সিভিল মামলায় জমি-জমা মাপতে এই হিসাব এখনো কাজে লাগে। এই গুলো বিভিন্ন চিহ্ন দিয়ে বোঝানো হয়। সেগুলো যোগ করে কত আনা জমি বিক্রি হচ্ছে তা বোঝা যায়।

কড়া আর ক্রান্তির হিসাব হয় জোড়-বেজোড় দেখে। জোড় হলে কড়া বেজোড় হলে ক্রান্তি। যদি ৩ ভাইয়ের মধ্যে কোন জমি থাকে তাহলে সেটা ক্রান্তি দিয়ে হিসাবে দেখানো হবে যাতে ১৬ আনা হিসাব পুরোপুরি দেখানো যায়।

১৭

Re: কড়ায়-গণ্ডায় হিসাব

rayhan30best লিখেছেন:

ভাই আপনাকে ধন্যবাদ দেবার মতো কুনু ইউনিকোড নাই ।  hehe  big_smile

whats_the_matter

Neela লিখেছেন:

দারুন , হিসাব বুঝতে গিয়ে ৪/৫ টা দাঁত নড়ে গেছে  whats_the_matter   
আমি আমার টেকা কড়ায় গন্ডায় বুঝিয়া লইতে চাইনা আমি আমার টাকা ডায়মন্ড এ চাই  whats_the_matter whats_the_matter

কার কাছ থেকে নীলা আপু??  nailbiting

babuks লিখেছেন:

সিভিল মামলায় জমি-জমা মাপতে এই হিসাব এখনো কাজে লাগে। এই গুলো বিভিন্ন চিহ্ন দিয়ে বোঝানো হয়। সেগুলো যোগ করে কত আনা জমি বিক্রি হচ্ছে তা বোঝা যায়।

কড়া আর ক্রান্তির হিসাব হয় জোড়-বেজোড় দেখে। জোড় হলে কড়া বেজোড় হলে ক্রান্তি। যদি ৩ ভাইয়ের মধ্যে কোন জমি থাকে তাহলে সেটা ক্রান্তি দিয়ে হিসাবে দেখানো হবে যাতে ১৬ আনা হিসাব পুরোপুরি দেখানো যায়।

আহ! প্রাসঙ্গীক চমৎকার আলোচনা ভাবুক ভাই। ছোট্ট একটা রেপু এই চমৎকার আলোচনার জন্য।

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

১৮

Re: কড়ায়-গণ্ডায় হিসাব

কোন দুখে যে মিস করছিলাম  sad

পরে ব্যাপক মজা পাইলাম, আগে একটু একটু জানতাম....

জলদস্যূ ভাইয়ের টপিকগুলোর সবসময়ই এক্সসেপশনাল  big_smile

১৯

Re: কড়ায়-গণ্ডায় হিসাব

জানা ছিল না... ধন্যবাদ

আল্লাহর কাছে সবচেয়ে পছন্দনিয় তাছবিহ হলো "সুবহানাল্লাহি ওয়া বিহামদিহি সুবহানাল্লাহিল আযীম"