২১

Re: বুঝি না বুঝি না আমি মনের ব্যাকারন -২

আমার জীবনটা এরকম কেন? অনেক আপডেট আছে তা জানাচ্ছি.....................

আল্লাহ আপনি মহান

২২

Re: বুঝি না বুঝি না আমি মনের ব্যাকারন -২

শাহাদাত ০০৮ লিখেছেন:

আমার জীবনটা এরকম কেন? অনেক আপডেট আছে তা জানাচ্ছি.....................

শুধুমাত্র আপনার জীবন এমন না। আপনার বর্তমান যে মনের অবস্থা তা সদ্য ব্রেকআপ হওয়া প্রতিটি ছেলের একই অবস্থা। সুতরাং আপনি একা নন, দলে অনেকেই আছে আপনার। sad

অফটপিকঃ চারদিকে যেভাবে ফোরাম তৈরির বন্যা চলছে তাতে এইসব বিষয় নিয়ে একটা ফোরাম খুললে বোধহয় মন্দ হত না। tongue_smile

২৩

Re: বুঝি না বুঝি না আমি মনের ব্যাকারন -২

শাহাদাত ভাই আপনি এখন কি করতে চান সেটা যদি জানাতেন , তাহলে হইতো আমরা আপনাকে সাহায্য করতে পারবো whats_the_matter

২৪ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন শাহাদাত ০০৮ (০২-০৫-২০১১ ১৪:৪৬)

Re: বুঝি না বুঝি না আমি মনের ব্যাকারন -২

@দক্ষিণের-মাহবুব O স্মার্ট বয় ভাই সে আবার ফিরে আস্তে চাইছে একা না। ওর মা আমার সাথে কথা বলছে।ওর মা বলছে যে বাবা আমার মেয়ে তোমার সাথে রাগ করে বলছে। সে মন থেকে এসব বলে নাই। আমি কি এখন কি করব?

আল্লাহ আপনি মহান

২৫

Re: বুঝি না বুঝি না আমি মনের ব্যাকারন -২

সকল মেয়ে সেলফিস না.......
যদি তাই হতো তাহলে পৃথিবীটা এত সুন্দর হতো না......

জাযাল্লাহু আন্না মুহাম্মাদান মাহুয়া আহলুহু......
এই মেঘ এই রোদ্দুর

২৬

Re: বুঝি না বুঝি না আমি মনের ব্যাকারন -২

শাহাদাত ০০৮ লিখেছেন:

@দক্ষিণের-মাহবুব O স্মার্ট বয় ভাই সে আবার ফিরে আস্তে চাইছে একা না। ওর মা আমার সাথে কথা বলছে।ওর মা বলছে যে বাবা আমার মেয়ে তোমার সাথে রাগ করে বলছে। সে মন থেকে এসব বলে নাই। আমি কি এখন কি করব?

ঐ মেয়ে আপনাকে কি তার হাতের পুতুল মনে করে? আজ ভাল লাগল পুতুল নিয়ে খেললাম, কিছুক্ষণ পরে ভালো লাগলো না ছুড়ে ফেলে দিলাম। angry আর রাগ করে বলেছে মানে? আপনি তাকে কি এমন কথা বলেছেন যে সে রাগ করে এই কথাগুলো বলবে? কথা বলার আগে হুশ থাকে না। তার জন্য কি না করছেন আপনি। এতবড় একটা অন্যায় করেছে সেটা মেনে নিয়েছেন। এতকিছু করার পরও তাকে ভালোবাসতে চেয়েছেন। কিন্তু সে কি করেছে? তার মামার বাসায় গিয়ে যে কথাগুলো বলেছে সেগুলো বলার আগে সে কি পূর্বের দিনগুলোর কথা একবারও ভাবে নি? আপনি এখন যদি আবার তাকে কাছে টানেন, তবে কিছুদিন পর আবার সে এরকম ব্যবহার করবে না তার কি কোন নিশ্চয়তা আছে? আমার তো মনে হচ্ছে ঐ মেয়ে হয়ত অন্য কারও প্রেমে পড়েছে। সেখান সফল হতে পারেনি বলে আবার এত ভাল ভাল কথা শোনাচ্ছে আপনাকে। আর এই পরিস্থিতিতে আপনি কি করবেন সেটা আপনাকেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে। তবে একটা কথা মনে প্রাণে বিশ্বাস করুন "ঢেকী স্বর্গে গেলেও ধান ভানে"।

আর একটা কথা ধরুন তাকে আপনি বিয়ে করলেন বিশ্বাস অর্জনের জন্য যে সে আপনাকেই ভালোবাসে। কিন্তু বিয়ের পর যদি অন্য কারও সাথে ফষ্টি-নষ্টি করে? এই লিংকের অর্থহীন স্বপ্নের লেখাটা পড়ুন। আর নিচের লিংকে আমার প্রিয় কিছু কথা আছে, সেগুলো পড়ুন এবং মাথায় গাথুন তারপর সিদ্ধান্ত নিন।
http://forum.projanmo.com/topic24812.html

২৭ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন আকাশছোঁয়া (০২-০৫-২০১১ ১৫:৫৬)

Re: বুঝি না বুঝি না আমি মনের ব্যাকারন -২

প্রেম, প্রেম,প্রেম খেললে খেলা
হতেপারে সর্বনাস।
ছ্যাকা কিনবা ধোকা খেয়ে
দুখে  করবে বসবাস।

এটা ভালো বিয়ের পরে
প্রেম পিরিতি করো
বিয়ের আগে নিজের জীবন
শক্ত করে গড়ো..... tongue

আমাকে মেসেজ পাঠাতে লিখুন skytouch <space> Your message তারপর সেন্ড করুন 7171 নাম্বারে যে কোন অপারেটর থেকে।

www.skytouch2u.com

২৮

Re: বুঝি না বুঝি না আমি মনের ব্যাকারন -২

@ দক্ষিণের-মাহবুব ভাই আগে তাকে সব বলতাম কিন্তু এখন দুদিন ধরে তাকে সব বলি না কিছু নিজের জন্য রেখে দেই। মন এখন তার আচরন দেখে বলে সাবধানে চলতে। আগে তাকে মাথার চুল থেকে শুরু করে পায়ের নখ পরযন্ত যা হত তাই বলতাম। তবে ওর মা বাবা আমাকে খুব ভাল হিসাবে জানে। তারা আমাকে বলে যে দেখ বাবা আমার মেয়ে অনেক রাগী তাই এসব বলে। কিন্তু তার রিলেশন হবার পর একবার ও বলি না যে আমি তোমাকে ছেড়ে যাব। তবে ও যখন ভাল থাকে নিজের কলিজাটা কেটে আমাকে দিতে চায়। কিন্তু অধিকাংশ সময় এগুলা করে । বলে যে তোমাকে ছেড়ে আমি একলা থাকব। কারন আমি কিছু শুনতে পাইছি যে ২০০৯ সালের জুলাই মাসে একটা ছেলের সাথে বিয়ে হয়েছিল। সেই ছেলে তাকে ছেড়ে গিয়েছে। তার মা আমাকে বলছে এবার যদি তোমার সাথে কিছু যদি হয় তাহলে এই মেয়ে কে আমি ঘরে তুলে নেব না। এসব কথা আজকে বিকালে ওর মা আমাকে বলছে। কি করব ?

আল্লাহ আপনি মহান

২৯

Re: বুঝি না বুঝি না আমি মনের ব্যাকারন -২

ঐ মেয়ের কথা শুনে+তার মায়ের কথা শুনে হাসি পাচ্ছে। lol ছোট্ট একটা গল্প বলি তারপর দেখেন কি করবেন?

কুদ্দুস মর্জিনাকে প্রচন্ডভাবে পছন্দ করে। প্রপোজ করার পর মর্জিনা কুদ্দুসকে কিছু প্রশ্ন করল। প্রশ্নগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে "আমার তো ইচ্ছে প্রেম করে বিয়ে করা, এখন আপনি কি আমাকে বিয়ে করবেন?" স্বাভাবিক যে উত্তর আসে কুদ্দুস সে উত্তরই দিল। প্রেম শুরু হয়ে গেল দুজনের মাঝে। কুদ্দুস মর্জিনার জন্য প্রচন্ড পাগল ছিল। মর্জিনার কিছু পটানো কথা শুনে এই পাগলামির মাত্রা আরও বেড়ে গেল। পটানো কথাগুলোর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে " জানো কুদ্দুস, আমি যা চাই তার থেকে বেশী পাই। আমি কোনদিন ভাবতে পারিনি একটা ছেলে আমাকে এত বেশী ভালোবাসবে"। মর্জিনা কুদ্দুসকে প্রায়ই বলত "কুদ্দুস, আমাদের এই রিলেশন যদি তোমার আম্মু মেনে না নেয় তবে কি হবে"? মর্জিনা যদি কখনও কুদ্দুসের ফোন বন্ধ পায় তবে মর্জিনার অবস্থা দেখে মনে হয় সে পাগল হয়ে যাবে কথা বলতে না পারলে। কিছুদিন পর মর্জিনা বলে আমি তোমার সাথে রিলেশন রাখতে পারছি না। আবদুল নামে জনৈক ব্যক্তি তাকে নাকি অনেক ভালোবাসে। আবদুল তার জন্য জীবন দিতে চেয়েছে। আর কুদ্দুসের ভালোবাসা নাকি আবদুল এর পর্যায়ে যায়নি। এই কথাটা সে এভাবে বলে "কুদ্দুস, তোমার ভালোবাসা ঐ পর্যায়ে যায়নি"। কুদ্দুস কি আর করবে? মন খারাপ করে থাকল কিছুদিন, সেই সাথে মর্জিনাকে তার জীবনে ফিরিয়ে আনার জন্য তার সর্বোচ্চ চেষ্টা করল। যখন বুঝল তাকে আর কখনও ফিরে পাওয়া সম্ভব না তখন হাল ছেড়ে দিল। সকল প্রকার যোগাযোগ বন্ধ করে দিল মর্জিনার সাথে। কিছুদিন পর মর্জিনা কুদ্দুসের কাছে ফিরতে চাইল। বলল "আমি ভুল করেছি"। কুদ্দুস যেহেতু মর্জিনাকে প্রচন্ডভাবে ভালোবাসে তাই তার আগের করা অপরাধটা ক্ষমা করে তাকে একবারের জন্য সুযোগ দিতে চাইল। কিন্তু.............................. কথা আছে না "ঢেকী স্বর্গে গেলেও ধান ভানে", সেটাই হল। মর্জিনা ভাব করে কুদ্দুসকেই সে ভালোবাসে, কিন্তু আড়ালে দুটো প্রেম একসাথে চালিয়ে যাচ্ছে। কুদ্দুস যখন এই ঘটনা বুঝতে পারল মর্জিনাকে ছুড়ে ফেলে দিল। কিছুদিন পর মর্জিনা আবার কুদ্দুসের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করে ফিরতে চাইল। শেষবারের মত একটা সুযোগ চাইল। বলল "আমার অবস্থা এখন ঐ দুষ্টু রাখাল বালকের মত হয়েছে। বাঘ আসেনি কিন্তু ও চিৎকার করে বলত আমাকে বাঘে ধরেছে। তারপর যখন সত্যি সত্যি বাঘ আসল তখন কেউ আসল না"। কুদ্দুস এখন মর্জিনাকে কি বলবে সেটা শাহাদাৎ ভাইয়ের জন্য ধাধা হিসেবে রইল।

৩০ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন দ্যা ডেডলক (০২-০৫-২০১১ ১৮:৫৯)

Re: বুঝি না বুঝি না আমি মনের ব্যাকারন -২

দক্ষিণের-মাহবুব লিখেছেন:

কুদ্দুস মর্জিনাকে প্রচন্ডভাবে পছন্দ করে

কুদ্দুস আল্লাহ পাকের নাম তাই এই নামে কোন ব্যাক্তিকে ডাকা উচিৎ না। তার ওপরে বিশেষ উদ্দেশ্যে(মানে বোকা টাইপের লোকদের উদ্দেশ্য ) এই নাম ডাকা আরো বড় অপরাধ।

কুদ্দুস বা রাজ্জাক নামে কোন ব্যাক্তিকে ডাকতে হলে তার নামের আগে আব্দুর যোগ করা উচিৎ।

লেখাটি LGPL এর অধীনে প্রকাশিত

৩১

Re: বুঝি না বুঝি না আমি মনের ব্যাকারন -২

আমার যা মনে হছে ওই মেয়েকে বিশ্বাস করাটা উচিত হবে না, shame shame
আপনি যদি একটু খোজ নেন তাহলে ঠীকই ওর সম্পর্কে জানতে পারবেন যে কারো সাথে সম্পর্ক ছিল বা আছে কি না । isee
আর সবচেয়ে বড় কথা বিশ্বাস ছাড়া ভালোবাসা পুরোটাই অর্থহীন nailbiting nailbiting nailbiting nailbiting

৩২

Re: বুঝি না বুঝি না আমি মনের ব্যাকারন -২

দ্যা ডেডলক লিখেছেন:
দক্ষিণের-মাহবুব লিখেছেন:

কুদ্দুস মর্জিনাকে প্রচন্ডভাবে পছন্দ করে

কুদ্দুস আল্লাহ পাকের নাম তাই এই নামে কোন ব্যাক্তিকে ডাকা উচিৎ না। তার ওপরে বিশেষ উদ্দেশ্যে(মানে বোকা টাইপের লোকদের উদ্দেশ্য ) এই নাম ডাকা আরো বড় অপরাধ।

কুদ্দুস বা রাজ্জাক নামে কোন ব্যাক্তিকে ডাকতে হলে তার নামের আগে আব্দুর যোগ করা উচিৎ।

আমি বোকা বা বুদ্ধিমান বোঝানোর জন্য নামগুলো ব্যবহার করিনি। যাই হোক প্রথম লাইনটা মাথায় ছিল না, থ্যাংকু। smile

৩৩

Re: বুঝি না বুঝি না আমি মনের ব্যাকারন -২

মেয়ে আবার খেলা শুরু করছে আমার লগে  angry angry angry angry

আল্লাহ আপনি মহান

৩৪

Re: বুঝি না বুঝি না আমি মনের ব্যাকারন -২

শাহাদাত ০০৮ লিখেছেন:

মেয়ে আবার খেলা শুরু করছে আমার লগে  angry angry angry angry

মেয়েকে কিচ্ছু বলার দরকার নাই শাহাদাত ... মেয়ে যদি তোমাকে ভালোবাসে তাহলে তোমারই থাকবে  thumbs_up

শ্রাবন'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত

৩৫

Re: বুঝি না বুঝি না আমি মনের ব্যাকারন -২

নৌকো চালালে যেমন তা ডুববেই কোন না কোনদিন ।বৈশাখের খরতাপ মাড়িয়ে যেমন ঝড়হাওয়া বইবেই তেমনি মনঘটিত হৃদয় আদান-প্রদানে মাঝে তো কিছু অজৈব পদার্থ ব্যাঘাত ঘটাবেই ।সেগুলোকে দূরে ফেলে নিজেরা পরিস্কার করে কথা বলুন ।তাঁর কথা মন দিয়ে বুঝার চেষ্টা করুন তাঁর সাথেও আপনার মনের আকুতি কাকুতিগুলো প্রকাশ করুন ।দেখবেন সব ঠিক হয়ে গেছে ।

৩৬

Re: বুঝি না বুঝি না আমি মনের ব্যাকারন -২

শাহাদাত ভাই আপনি শুধু মেয়ের তামসা দেখেন ,  waiting waiting  বেশি হলে ৬ মাস এর পর একাই চুপ হয়ে যাবে, আর না হলে বিষইয়টা নিয়ে নতুন করে ভাওলেও ভাবতে পারেন। isee

৩৭

Re: বুঝি না বুঝি না আমি মনের ব্যাকারন -২

স্মার্ট বয় লিখেছেন:

শাহাদাত ভাই আপনি শুধু মেয়ের তামসা দেখেন ,  waiting waiting  বেশি হলে ৬ মাস এর পর একাই চুপ হয়ে যাবে, আর না হলে বিষইয়টা নিয়ে নতুন করে ভাওলেও ভাবতে পারেন। isee

শাহাদাৎ ভাই যদি মেয়েকে প্রচন্ডভাবে পছন্দ না করত তবে তাকে আপনার কথাটাই আমি বলতাম। কিন্তু ঐ মেয়ের সাথে যোগাযোগ থাকলে নতুন নতুন দুঃশ্চিন্তা এসে তার মাথায় ভর করবে। বিষয়টাকে উনি যত দ্রুত ওভারকাম করতে পারবেন তার জন্য ততই ভাল। তাই একটা সিদ্ধান্ত এসে তারপর সেই অনুসারে কাজ করতে বলেছি।