টপিকঃ বিজ্ঞানের অভিশাপ- পারমাণবিক বোমা

১৯০৫ সালে বিজ্ঞানী আলবার্ট আইনষ্টাইন তার আপেক্ষিক সূত্র ভর ও শক্তির মধ্যকার সম্পর্কটিকে প্রকাশকরলো এভাবে : E=mc2অর্থাৎ খুব অল্প পরিমান পদার্থ থেকে বিপুল পরিমান শক্তি পাওয়া সম্ভব। ১৯০৯ সালে বিজ্ঞানী আর্নেষ্ট রাদারফোর্ড অনুর নিউক্লিয়াস আবিস্কার করেন, এর পর ১৯৩৯ সালে িবজ্ঞানী ফ্রিৎজষ্ট্রসম্যান এবং অটোহ্যান আবিস্কার করলেন, ইউরেনিয়াম অনুকে দুই ভাগে ভেঙ্গে শক্তি উৎপন্ন করা সম্ভব, পরবর্তী সময়ে বিজ্ঞানী লিস মিটনার এবং বিজ্ঞানী অটো রবার্ট ফ্রিৎস এই পদ্ধতিটি ভালোভাবে ব্যাখ্যা করেন। অতঃপর ধারাবাহিক আবিস্কার, গবেষনা, পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধথ্যমে মানুষের হাতের মুঠোয় এলো আনবিক শক্তি, তৈরী করা হলো বিদ্যৎ, তৈরী হলো পারমাণবিক বোমা।এর ফরে পৃথিবী আজ দু'ভাবে বিভক্ত শোষক এবং শোষিত।

"We want Justice for Adnan Tasin"

Re: বিজ্ঞানের অভিশাপ- পারমাণবিক বোমা

কি বলবেন? তারা থাকলে তো তাদের কিছু বলা যেত, এখন কি আর করা? যাক দেখতে থাকেন আর কি হয়?

Re: বিজ্ঞানের অভিশাপ- পারমাণবিক বোমা

দুঃখ হয় এই ভেবে যে- বিজ্ঞানের এই দানের ফলে পৃথিবীকে শোষন করে চলেছে কোন কোন দেশ, আর মার খাচ্ছে কোন কোন দেশ।

"We want Justice for Adnan Tasin"

Re: বিজ্ঞানের অভিশাপ- পারমাণবিক বোমা

MY COUNTRY INDIA HAVE HYDROGEN BOMB !

INDIA NOT SIGN CTBT ! (CAN TEST H-BOMB IN FUTURE)

I AM PROUD OF MY 4TH POWERFUL COUNTRY !

Re: বিজ্ঞানের অভিশাপ- পারমাণবিক বোমা

souradip লিখেছেন:

MY COUNTRY INDIA HAVE HYDROGEN BOMB !

INDIA NOT SIGN CTBT ! (CAN TEST H-BOMB IN FUTURE)

I AM PROUD OF MY 4TH POWERFUL COUNTRY !

পাওয়ারফুল হলে 4th হওয়া যে কথা, 100th হওয়াও সেই একই কথা। বোমার পাওয়ার যেহেতু পৃথিবীর জন্য খারাবি বয়ে আনছে, সেহেতু 1st পাওয়ারফুল সবার জন্যই সমান ভয়ঙ্কর। এতে প্রাউড ফীল করার কিছু নেই।

অঃটঃ অভ্যর্থনা কক্ষে গিয়ে আপনার পরিচয় দিন। এটা একটা বাংলা ফোরাম। তাই বাংলা অক্ষর দিয়ে লিখুন।

Re: বিজ্ঞানের অভিশাপ- পারমাণবিক বোমা

souradip লিখেছেন:

MY COUNTRY INDIA HAVE HYDROGEN BOMB !

INDIA NOT SIGN CTBT ! (CAN TEST H-BOMB IN FUTURE)

I AM PROUD OF MY 4TH POWERFUL COUNTRY !

ভাই নিজের দেশের লোককে ঠিকমত খেতে পড়তে দিতে না পেরে বোমায় পাওয়ারফুল হয়ে কি লাভ বলুনতো

seeming is being