টপিকঃ মাশরাফির কাছে হেরে গেলেন আশরাফুল

একবার নয়, দু’বার আশরাফুলের লাল দলকে হারাল মাশরাফির সবুজ দল। দু’দিন প্র¯'তিহীন থাকার পর শনিবার ফের শুর“ হয়েছে বাংলাদেশ দলের অনুশীলন। এদিনও প্র¯'তি ম্যাচে ব্যাটিংয়ের সেই একই চেহারা। বিসিবি একাডেমি দলের বিপক্ষে যেমন, তেমনি এদিনও ভালো ব্যাটিংয়ে ব্যর্থ বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা। এবার খেলেছেন নিজেরাই দুই ভাগে ভাগ হয়ে। বাংলাদেশ দলের ১৫ জনের বাইরে আরও কয়েকজনকে নিয়ে টুয়েন্টি টুয়েন্টি ম্যাচ খেলা হয় দুটি। লাল দলের নেতৃত্বে ছিলেন আশরাফুল। সবুজ দলের অধিনায়কত্ব করেন মাশরাফি। প্রথম ম্যাচে পাঁচ উইকেটে এবং দ্বিতীয় ম্যাচে তিন রানে জয়ী হয় সবুজ দল। প্রথম ম্যাচে লাল দল টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নামে। শুর“তেই তারা তামিম ইকবাল (০) ও মুশফিকুর রহিমকে (৮) হারিয়ে বেকায়দায় পড়ে যায়। দ্র“ত ফিরে যান অধিনায়ক আশরাফুলও (৮)। এরপর দলকে তিন উইকেটে ৩৮ রান থেকে শতরানে নিয়ে যান অলক কাপালি (৪২) ও নাদিফ চৌধুরী (৩৭)। এ দু’জনের বিদায়ের পর একমাত্র ফরহাদ রেজা (২৩) দু’অংকের ঘরে পা রাখেন। লাল দলের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৮ উইকেটে ১৩৩ রান। ২০ ওভারের ম্যাচে যা মোটেও যথেষ্ট নয়। আর সেটা সবুজ দল সাত বল বাকি থাকতেই টপকে যায়। যদিও তাদের শুর“টা ভালো ছিল না। ৩০ রানের মধ্যে জুনায়েদ (৬), নাজিমুদ্দিন (১০), আফতাব (৭) ও সাকিব (৪) উল্টোপথে হাঁটেন। বিপর্যয়ে হাল ধরেন দুই তর“ণ মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ও জিয়াউর রহমান। তারা পঞ্চম উইকেটে ৮১ রান যোগ করে দলের জয়ের পথ তৈরি করেন। রিয়াদ ৩৫ বলে দুটি ছয় ও একটি চারের সাহায্যে অপরাজিত ৩৯ রান করেন। ২৯ বলে সর্বো”চ ৪৮ রান করে আউট হন জিয়া। চমকপ্রদ ব্যাটিং করেন অধিনায়ক মাশরাফি। তিনি মাত্র পাঁচ বলে ৩টি চার ও একটি ছয়ে তুলে নেন ১৯ রান। দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে টসে জেতে সবুজ দল। তারাও আগে ব্যাটিং নিয়ে বড় স্কোর গড়তে পারেনি। তবে তাদের নয় উইকেটে ১৪০ রানই যথেষ্ট প্রমাণিত হয়েছে সবুজ দলের অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের চমৎকার বোলিংয়ে। সাকিব চার ওভার বল করে ১২ রানে চার উইকেট নেন। মাশরাফি পান ২৮ রানে দুটি। কাপালির ২৩ ও আশরাফুলের ৩০ রানও লাল দলকে জয়ের মুখ দেখাতে পারেনি। আশরাফুল বোলিংয়েও ভালো করেন, ২১ রানে নেন তিন উইকেট। সবুজ দলের ওপেনার নাজিমুদ্দিন সর্বো”চ ৪১ রান করেন। ব্যাটিংয়ে ধারাবাহিকতায় রিয়াদ ২৬ বলে অপরাজিত ৩৩ রান পান।

"We want Justice for Adnan Tasin"