টপিকঃ কমনওয়েলথ শ্যুটিংয়ে শারমিন-সাদিয়ার সোনা জয়

‘আমি তো এখন আন্তর্জাতিক তারকা হয়ে গেলাম। আমাকে নিয়ে এখানকার মিডিয়ায় সেকি মাতামাতি! এত চ্যানেল, এত সাংবাদিক’—ফোনের ও প্রান্তে থাকা মানুষটার উচ্ছ্বাস বোঝা যাচ্ছিল। কমনওয়েলথ শ্যুটিংয়ে মেয়েদের ১০ মিটার এয়ার রাইফেলে দলগত সোনা জেতার কান্ডারি শারমিন আক্তার (রত্না) হাসির দমকে ঠিকমতো কথাই বলতে পারছিলেন না। একই অবস্থা তাঁর সতীর্থ সাদিয়া সুলতানারও। দুজনের সমন্বিত স্কোরে (৭৯০) দক্ষিণ এশীয় গেমসের পর আবারও সাফল্য এল বাংলাদেশের শ্যুটিংয়ে।
শ্যুটিং ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ইশতিয়াক আহমেদ জানিয়েছেন, দলীয় সোনা জেতার সঙ্গে সঙ্গে ৪৯ জন শ্যুটারের মধ্যে সর্বোচ্চ স্কোর (৩৯৬) করে ব্যাচের সোনাও জিতেছেন শারমিন, দ্বিতীয় সর্বোচ্চ (৩৯৪) করে রুপার পদক গলায় তুলেছেন সাদিয়া।
১০ মিটার এয়ার রাইফেলে এ মাসেই ঢাকাতে এসএ গেমসে সোনা জিতেছেন শারমিন ও সাদিয়া। ব্যক্তিগত সোনা ও রুপা জেতার পাশাপাশি দলগত সোনাও এনে দেন দেশকে। সেই রেশটা কাটতে না কাটতেই আবারও সোনা জয়ের আনন্দ। ভারতের প্রিয়া আগরওয়াল ও নেহা সাপতেকে হারিয়ে সোনা জিতে কাল নিজেরাই যেন একটু বিস্মিত হলেন। সোনা এসেছেই, এসেছে সেটি কমনওয়েলথ শ্যুটিংয়ে দলগত রেকর্ড গড়ে।
১০ শটের চারটি সিরিজের প্রথমটিতে ৯৯, দ্বিতীয়টিতে পুরো ১০০ এবং তৃতীয় ও চতুর্থ সিরিজে ৯৯ ও ৯৮ স্কোর করেন শারমিন। সব মিলিয়ে তাঁর স্কোর দাঁড়ায় ৩৯৬। ৯৯, ৯৬, ১০০ ও ৯৯ মিলিয়ে সাদিয়া মোট স্কোর করেন ৩৯৪। সব মিলিয়ে ৭৯০ স্কোর করা বাংলাদেশের নামের পাশে জমা পড়ে সোনা। রুপাজয়ী ভারতের প্রিয়া ৩৯৩ ও নেহা ৩৮৯ স্কোর করেন, যা মিলিয়ে হয় ৭৮২। ৭৮০ স্কোর করে ব্রোঞ্জ জিতেছেন ইংল্যান্ডের শিরি কক্স (৩৯০) ও রিয়ান ফ্লয়েড (৩৯০)।
দিল্লিগামী বিমানে ওঠার আগেই ‘ভালো কিছু’ করার প্রত্যয় জানিয়ে গিয়েছিলেন শারমিন। বলে গিয়েছিলেন, ওখানে এসএ গেমসের স্কোর করতে পারলেই খুশি থাকবেন। সেটা অবশ্য হয়নি। এসএ গেমসে ৩৯৮ স্কোর করা শারমিন দিল্লিতে এর চেয়ে ২ পয়েন্ট কম পেয়েছেন। কিন্তু তাতে কি? ওটাই সোনা জয়ের জন্য যথেষ্ট হয়ে গেল বলে মাগুরার মেয়েটি খুশি, ‘এখানে শক্তিশালী অনেক দেশ এসেছে। তা ছাড়া কোনো দলকেই দুর্বল মনে হয়নি।’ সোনা জয়ের সঙ্গে সঙ্গেই আনন্দের সংবাদ সুদূর দিল্লি থেকে পৌঁছে দিয়েছেন মাগুরায়। সোনা জেতার পরপরই মাকে ফোন করেছিলেন শারমিন। মা খুশি, পাড়া-প্রতিবেশী খুশি। দেশ থেকে প্রচুর শুভেচ্ছাবার্তা পাচ্ছেন এসএমএসে। সঙ্গে সঙ্গে দেশ থেকে টেলিফোনে অভিনন্দন জানিয়েছেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী আহাদ আলী সরকার। অভিনন্দন জানিয়েছেন শ্যুটিং ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ইশতিয়াক আহমেদ। কিন্তু এই অভিনন্দন আর খুশির জোয়ারে শারমিন-সাদিয়ারা বাকি কাজটার কথা ভুলে যাচ্ছেন না। আজ ১০ মিটার এয়ার রাইফেলের ব্যক্তিগত ইভেন্ট তাঁদের। আজকেও সোনা জেতার প্রত্যাশা শারমিনের, ‘আশা করি একটা কিছু হয়েও যেতে পারে।’ সাফল্যের প্রত্যাশায় আছেন সাদিয়াও। চট্টগ্রাম পুলিশ লাইন স্কুলের দশম শ্রেণীর ছাত্রী সাদিয়া বললেন, ‘এসএ গেমসে একটুর জন্য সোনা হাতছাড়া হয়ে গিয়েছিল। আগামীকাল (আজ) আমার লক্ষ্য থাকবে সোনা জয়।’
দলগত ইভেন্টের সাফল্য কীভাবে এল সেটি ভেবে সাদিয়া খুব রোমাঞ্চিত বোধ করছেন, ‘প্রথমবার করলাম ৯৯। কিন্তু দ্বিতীয়বার ৯৬ স্কোর করেই ভেবেছিলাম এই বুঝি শেষ, আমরা এবার পিছিয়ে পড়লাম। হতাশ হয়ে পড়েছিলাম আমি। তবে রেঞ্জ থেকে বেরিয়ে নিজের স্কোরে চোখ পড়তেই দেখি আমি দ্বিতীয় স্থানে আছি। এরপর হাঁপ ছেড়ে বাঁচলাম।’ দলগত সোনা জিতে এসএ গেমসের সাফল্য ধরে রাখতে পেরে দারুণ খুশি সাদিয়া। তাঁর কোচ মোহাম্মদ আলমগীর খবর শুনেই ফোন করেছিলেন তাঁকে। পরে সাদিয়া নিজে চট্টগ্রামে বাবা সৈয়দ সরওয়ার আলমকে এই আনন্দের সংবাদ শোনান।
১০ মিটার এয়ার রাইফেলে ছেলেদের ইভেন্টে দলগত ব্রোঞ্জ জেতা আসিফ হোসেন কালই দিল্লি ছেড়েছেন। দেশে আসার আগে এই সুসংবাদ শুনে দারুণ খুশি হয়েছেন তিনি। বলেছেন, ‘ওরা দেশের মান রেখেছে। সোনা জিতেছে। খুবই ভালো লাগছে।’
এদিকে ৫০ মিটার থ্রি-পজিশনে ছেলেদের ব্যক্তিগত ইভেন্টেও যথেষ্ট ভালো করেছে বাংলাদেশ। ৪৭ জন প্রতিযোগীর মধ্যে ১২৩৯.৬ স্কোর করে পঞ্চম হয়েছেন তৌফিক শাহরিয়ার। ১২৩৫.৩ স্কোর করা আবদুল্লাহ হেল বাকি ষষ্ঠ। ভারতীয় শ্যুটার সঞ্জীব রাজপুত ১২৭২.৫ স্কোর করে সোনা জিতেছেন। গগন নারাং (১২৬৯.৩) ও ইমরান হাসান খান (১২৫৯.৬) জিতেছেন রুপা ও ব্রোঞ্জ।

সুত্র: প্রথম আলো

একটু যত্ন নিলেই বাংলাদেশ ক্রিয়াজগতে নাম করতে পারবে, আবারও প্রমান করলো বাংলাদেশের অবহেলিত খেলোয়াড়রা। যেখানে ভারতীয়রা লাখ লাখ টাকার স্পন্সর পায় সেখানে সারা বছর ঠিকমতো চলার জন্য টাকাও পায় না শুটাররা। অথচ একটু যত্নতেই বাংলাদেশের নাম উজ্জ্বল করে!! সময় এসেছে ক্রিকেট থেকে মনোযোগ কিছুটা হলেও সরিয়ে অন্য খেলায় দেওয়ার

Re: কমনওয়েলথ শ্যুটিংয়ে শারমিন-সাদিয়ার সোনা জয়

ভাল বাংলাদেশ এগিয়ে গেল ।

মনটা আগুনে জলতেছে কি করব । ব্যান ব্যান

Re: কমনওয়েলথ শ্যুটিংয়ে শারমিন-সাদিয়ার সোনা জয়

বাংলাদেশের পক্ষ থেকে ওদের জন্য অভিবাদন clap

শাবাকাত
ওয়েব: www.shabakat.co.cc

Re: কমনওয়েলথ শ্যুটিংয়ে শারমিন-সাদিয়ার সোনা জয়

অভিনন্দন  clap

Re: কমনওয়েলথ শ্যুটিংয়ে শারমিন-সাদিয়ার সোনা জয়

সেভারাস লিখেছেন:

একটু যত্ন নিলেই বাংলাদেশ ক্রিয়াজগতে নাম করতে পারবে, আবারও প্রমান করলো বাংলাদেশের অবহেলিত খেলোয়াড়রা।

শব্দটা "ক্রিয়াজগতে" হবে? নাকি "ক্রীড়াজগতে" হবে?

Re: কমনওয়েলথ শ্যুটিংয়ে শারমিন-সাদিয়ার সোনা জয়

অভিনন্দন শারমিনদের।