টপিকঃ মাহমুদউল্লাহ কেন আটে?

মাহমুদউল্লাহ কেন ৮ নম্বরে ব্যাট করেন—এটা বিশ্ব ক্রিকেটে বড় আলোচনার বিষয় হয়ে উঠল বলে! নাকি কালকের অনবদ্য সেঞ্চুরির পর তা হয়েই গেছে?
নিউজিল্যান্ডের সাংবাদিকেরা তো ভারতের বিপক্ষে আগের টেস্টে অপরাজিত ৯৬ দেখার পর থেকেই এ নিয়ে প্রশ্ন করতে শুরু করেছিলেন। ১৯৬ রানে ৬ উইকেট পড়ে যাওয়ার পর নেমে মাহমুদউল্লাহ যখন একের পর এক চোখ ধাঁধানো শট খেলতে শুরু করলেন, তাঁদের বিস্ময়টা আরও চরমে উঠল।
সংবাদ সম্মেলনে প্রশ্নও হলো এটা নিয়ে। ভারতের বিপক্ষে সিরিজে যা বলে এসেছেন, মাহমুদউল্লাহর সেই একই উত্তর, তাঁর কোনো চাওয়া-পাওয়া নেই, দল যা ভালো মনে করে তাই। যেখানেই ব্যাট করেন না কেন, দলে অবদান রাখতে পারলেই তিনি খুশি।
অবদান এর চেয়ে বেশি আর কী রাখবেন? অমোঘ নিয়তির মতো ধেয়ে আসছে ফলোঅন, দাঁড়িয়ে গেলেন বুক চিতিয়ে। ‘চিতিয়ে-টিতিয়ে’ শব্দগুলো মাহমুদউল্লাহর ব্যাটিংয়ের সঙ্গে একেবারেই যায় না। একটু আগে ব্যবহূত ‘চোখ ধাঁধানো’ শব্দটাও যেমন তাঁর ব্যাট চালানোর সঙ্গে বেমানান মনে হচ্ছে। মাহমুদউল্লাহর ব্যাটিং চোখ ধাঁধিয়ে দেয় না, চোখে মায়াঞ্জন বুলিয়ে দেয়। তাঁর প্রিয় ব্যাটসম্যান মহেন্দ্র সিং ধোনি। ভেঙ্কট লক্ষ্মণ হলে বেশি মানাত। অফ সাইডে যতবার ড্রাইভ করলেন, তাঁকে তো ‘লক্ষ্মণ’ বলেই মনে হলো ততবার! অলক কাপালির পর বাংলাদেশের ক্রিকেটে এমন দৃষ্টিনন্দন ব্যাটসম্যান আর আসেনি।
কাজটা খুব কঠিন ছিল। দৃষ্টিনন্দন ৩০-৪০ রানে হতো না। করতে হতো বড় কিছু। সেঞ্চুরির চেয়ে বড় আর কী হয়! হয়, ডাবল সেঞ্চুরি হয়। মাহমুদউল্লাহ বলতেই পারেন, ওপরে ব্যাটিং করলে হয়েও যেতে পারত। টেলএন্ডাররা এসে গেছে, আমাকে তো একটু বেশি ঝুঁকি নিতেই হতো।
বলবেন না। আদ্যন্ত টিমম্যান বলতে যা বোঝায়, তা-ই। যে কারণে আগের টেস্টের ওই তিক্ত অভিজ্ঞতার পরও বলতে পারেন, ‘সেঞ্চুরি পাব না, এটা মনে হয়নি। টেলএন্ডারদের ওপর আমার আস্থা ছিল।’
আস্থা ছিল নিজের ওপরও। নইলে হাতে ৪ উইকেট বাকি, ফলোঅন এড়াতে প্রয়োজন আরও ১৫৮ রান—এ অবস্থায় নামার সময় ও কথা ভাবেন কীভাবে? ‘সত্যি বলছি, ফলোঅন এড়াতে পারব বলে আমার বিশ্বাস ছিল। সাকিব ভালো ব্যাটিং করছিল। ওর সবচেয়ে বড় গুণ, ও সব সময় পজিটিভ খেলে। আমিও পজিটিভ থাকতে চেয়েছি। ঠিক করে নেমেছি, লুজ বল পেলেই মারব।’
মেরেছেনও। ১৭৭ বলে ১১৫ রানের ইনিংসে ১৭টি চার ও ২টি ছয়। সাকিবের ৮৭ রানের ইনিংসে চার ১৫টি। স্ট্রোক-ঝলমল ১৪৫ রানের জুটিটি উজ্জ্বল এক বিজ্ঞাপন হয়ে থাকল বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ের। এতটাই যে, ড্যানিয়েল ভেট্টোরি পর্যন্ত মুগ্ধ! ‘ওরা অসাধারণ ব্যাটিং করেছে। দুজনই ছিল আগ্রাসী, দেখতে খুব ভালো লেগেছে।’
ভেট্টোরির তো ভালো লাগার কথা নয়। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে যে বাংলাদেশ আগে কখনো ২৬২-এর বেশি করতে পারেনি, তারাই ৪০৮। এই প্রথম তাঁর দলের বিপক্ষে বাংলাদেশের কোনো ব্যাটসম্যানের সেঞ্চুরি। ১৯৬ রানে ৬ উইকেট ফেলে দেওয়ার পর বাংলাদেশকে ফলোঅন করানো যখন একরকম নিশ্চিত, তখনই এমন প্রত্যাঘাত! ভেট্টোরির তো হকচকিত হয়ে পড়ার কথা।
অথচ নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক দাবি করছেন, এটা তাঁর কাছে অভাবনীয় কিছু বলে দেখা দেয়নি, ‘সাকিব কেমন প্লেয়ার, এটা আমার জানা ছিল। মাহমুদউল্লাহও যে টিপিক্যাল নাম্বার এইট নয়, এটাও জানতাম। ও ভালো ব্যাটসম্যান। ভারতের বিপক্ষে আগের টেস্টেই ও ৯৬ করে এসেছে।’ অকপটে স্বীকার করছেন, এই দুজনের জুটি কেমন চাপে ফেলে দিয়েছিল তাঁকে, ‘আমাদের বোলিং খুব ভালো হয়নি। তবে ওদের ওই জুটিতে খারাপ বোলিংয়ের চেয়েও ভালো ব্যাটিংয়ের বেশি ভূমিকা। খুব ভালো খেলেছে ওরা। লুজ বল মারতে ছাড়েনি। চাপটা আমাদের ওপর ফিরিয়ে দিয়েছে ওরা দুজন।’
খেলায় একচুল ছাড় দিতে রাজি নন, তবে খেলাটাকে খেলা হিসেবেই দেখেন। মাঠে ও মাঠের বাইরে নিপাট ভদ্রলোক ভেট্টোরি জানেন প্রতিপক্ষকেও প্রাপ্য প্রশংসা দিতেও। সেঞ্চুরি হওয়ার পর মাঠেই মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে হাত মিলিয়ে অভিনন্দন জানিয়েছেন। মাহমুদউল্লাহ যখন সংবাদ সম্মেলন শেষ করে উঠে যাচ্ছেন, হাত মেলালেন আবারও। সাকিবের বিতর্কিত আউটটির ব্যাপারেও পরিষ্কার তাঁর অবস্থান, ‘ব্রেন্ডন (ম্যাককালাম) পুরো নিশ্চিত নয় বলার পর আমি আম্পায়ারকে তা জানিয়েছিলাম। আর কী করার ছিল আমার?’ সাকিব যে চাইলে টিভি আম্পায়ারের কাছে রেফারেল চাইতে পারতেন, মনে করিয়ে দিলেন সেটাও।
সাকিব চাননি, কারণ সন্দেহই হয়নি তাঁর। নন-স্ট্রাইকার মাহমুদউল্লাহরও না, ‘আমার মনে হয়েছিল, ম্যাককালাম ঠিকভাবেই ক্যাচটা নিয়েছে। ড্রেসিংরুমে ফিরে জানতে পারলাম ঘটনা। সাকিবের জন্য খুব খারাপ লেগেছে। সেঞ্চুরিটা পেল না!’
যে টেস্টের পঞ্চম দিনটা অব্যবহূত থাকার জোর সম্ভাবনা জেগেছিল, সেই টেস্টেই এখন একটু হলেও নাটকীয়তার আভাস। বিকেলে নিউজিল্যান্ডের ৫ ওভার ব্যাটিংয়ের সময়ই সাকিবের দুর্দান্ত ফিল্ডিংয়ে রানআউট হয়ে গেছেন এক ওপেনার। হাতে ৯ উইকেট নিয়ে নিউজিল্যান্ড এগিয়ে ১৮৪ রানে। মাহমুদউল্লাহ, কী হবে এই টেস্টে? ইতিবাচকতা যেন তাঁর নামের প্রতিশব্দ, ‘কাল বিগ ডে। সকালে দ্রুত ২-৩টা উইকেট তুলে নিতে পারলে আমাদের সুযোগ আছে।’

সুযোগ যদি আসেই, দ্বিতীয় ইনিংসেও কিন্তু আপনার ব্যাটিংটা লাগবে মাহমুদউল্লাহ!

সুত্র: http://www.prothom-alo.com/detail/date/ … news/43224
আমার আরেকটা প্রশ্ন আছে:
আশরাফুলকে কেন দলে রাখা হয়েছে!!! খোদ কোচের বক্তব্য তার সম্পর্কে:
"সে অন্তত ধারাবাহিকভাবে ব্যর্থ"

Re: মাহমুদউল্লাহ কেন আটে?

আমার মনেহয় মাহমুদুল্লাহকে চার নাম্বারে,আর আশরাfool রে আট নাম্বারে নামার দরকার  hehe  hehe  hehe  hehe

"Whatever you do in life will be insignificant but it’s very important that you do it,because nobody else will"

█║▌│█│║▌║││█║▌│║▌║█║▌│█│║▌║││█║▌│║▌║█║▌│█│║▌║││█║▌│║▌║█║▌│█│║▌║││█║▌

লেখাটি CC by 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: মাহমুদউল্লাহ কেন আটে?

আশরাfool রে বাদ দেয়া উচিত। angry angry

কি বলেন সবাই?

লেখাটি CC by-nd 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: মাহমুদউল্লাহ কেন আটে?

মাথামোটা নির্বাচকরা আছে না? angry
টোয়েন্টি টোয়েন্টি তে নেয় রকিবুলরে আর টেস্টে আফতাব!  lol
আর এক আশরাফুল! ব্যাটারে তো দেখলেই মনে চায় পিডাই!
যাই হোক সাকিবও ফর্মে ফিরছে....আর আমার মতে রিয়াদকে ওয়ানডাউন বা টু ডাউনেই খেলানো উচিৎ!

OH DEAR NEVER FEAR SAIF IS HERE
BOSS অর্থাৎ সাইফ
Cloud Hosting BossHostBD

Re: মাহমুদউল্লাহ কেন আটে?

আমার মনে হয় বাংলাদেশের যেই আটে নামবে সেই ভালো খেলবে, কারণ তখন তার মনে থাকে যে তার পরে আর কোনো ভালো ব্যাটসম্যন নেই। তাই সে ভালো খেলে।

আট নাম্বারে যদি আশরাফুলকে নামায় আর মাহমুদউল্লাহকে ৪ এ, তাহলে দেখা যাবে আশরাফুল ভাল খেলছে আর মাহমুদউল্লাহ খারাপ খেলছে।

বাংলাদেশের টীম এর প্লানিং এই সমস্যা আছে। সাকিব কে বলতে শুনলাম ৬ না মারলে নাকি টি টোয়েন্টিতে ভালো স্কোর করা যায় না, অথচ আমি অন্য টিম কে ৪ মেরেই খেলতে দেখি। এতে রিস্ক কম আর রানও আসতে থাকে। প্লাস শক্তিও কম খরচ হয়।

বাংলাদেশে লাস্টের ব্যটসম্যনদের ভালো করার একটাই কারণ যে তারা এটা বুঝে যে তারপর আর কোনো ভালো ব্যটসম্যন নাই। তাই শুরুর দিকের ব্যটসম্যন দের মানসিক ভাবে স্ট্রং হতে হবে এবং পরের ব্যটসম্যনদের কথা চিন্তা না করে নিজের কথা ভাবতে হবে।

Re: মাহমুদউল্লাহ কেন আটে?

arnob216 লিখেছেন:

আট নাম্বারে যদি আশরাফুলকে নামায় আর মাহমুদউল্লাহকে ৪ এ, তাহলে দেখা যাবে আশরাফুল ভাল খেলছে আর মাহমুদউল্লাহ খারাপ খেলছে।

মানতে পারলাম না!
আশারফুল রে আপনি যেইখানেই নামান ! কোন লাভ নাই!  shame

OH DEAR NEVER FEAR SAIF IS HERE
BOSS অর্থাৎ সাইফ
Cloud Hosting BossHostBD

Re: মাহমুদউল্লাহ কেন আটে?

আশাfool এর আদর্শ জায়গা ১২ নং।
মাহমুদউল্লাহকে উপরে তুললেও মনে হয় লাভ নাই। তবে ২,১ ঘর আগানো যেতে পারে।

সাইফ দি বস ৭ লিখেছেন:

আর এক আশরাফুল! ব্যাটারে তো দেখলেই মনে চায় পিডাই!

thumbs_up thumbs_up thumbs_up
পুরাএক মত।
একটা পোল করা যেতে পারে এটা নিয়ে।

সারিম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: মাহমুদউল্লাহ কেন আটে?

আজকেও মাত্র ২ রান করে আউট হইসে আশরাফুল। angry angry angry

লেখাটি CC by-nd 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: মাহমুদউল্লাহ কেন আটে?

shitol69 লিখেছেন:

আজকেও মাত্র ২ রান করে আউট হইসে আশরাফুল।

দারুন খেলছে  clap...

১০

Re: মাহমুদউল্লাহ কেন আটে?

আশরাফুলকে নির্বাচকরা তুলনা করে ফর্মে না থাকা টেন্ডুলকারের মতো। তাদের মতে যেদিন আশরাফুল জেগে উঠবে সেদিন বিরোধী দলের হার নিশ্চিত। কিন্তু তারা বুঝে না যে, ভারতের অনেক ভালো‌ প্লেয়ার আছে দলে যারা টেন্ডুলকারের খারাপ সময়ে ভারতকে টেনে তুলে। কিন্তু আমাদের মত নিচের দিকের দলে একজন ফর্মহীন প্লেয়ারকে খেলানো বিলাসিতা ছাড়া কিছু নয় crying

১১

Re: মাহমুদউল্লাহ কেন আটে?

সাইফ দি বস ৭ লিখেছেন:

সাইফ দি বস ৭ লিখেছেন:

মাথামোটা নির্বাচকরা আছে না? angry
টোয়েন্টি টোয়েন্টি তে নেয় রকিবুলরে আর টেস্টে আফতাব!  lol
আর এক আশরাফুল! ব্যাটারে তো দেখলেই মনে চায় পিডাই!
যাই হোক সাকিবও ফর্মে ফিরছে....আর আমার মতে রিয়াদকে ওয়ানডাউন বা টু ডাউনেই খেলানো উচিৎ!


ভালো বলেছেন। lol2 lol2 lol2 lol2 lol2

সেই সব  শহীদদের দেই সালাম  যাদের জন্য আজ লিখতে পারছি  এই লাইনটি। তোমাদের আত্নার উপর শান্তি বর্ষিত হোক।