টপিকঃ ২০১১ বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচও হবে ঢাকায়

অনেক আগেই ঠিক হয়ে আছে ২০১১ বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে ঢাকায়। এবার তার সঙ্গে উদ্বোধনী ম্যাচ আয়োজনের গুরুদায়িত্বও পেয়েছে বাংলাদেশের এই রাজধানী শহরটি। মঙ্গলবার নয়াদিল্লীতে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপ সাংগঠনিক কমিটির সভায় এই সিদ্ধান্ত হয়েছে। ওই সভায় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মাহবুব আনাম এবং পরিচালক শফিকুর রহমান মুন্নাও। সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ২০১১ সালের ১৯ ফেব্র"য়ারি ঢাকায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পরপরই উদ্বোধনী ম্যাচটিও হবে।

সভায় উপস্থিত দুই বোর্ড সদস্যের কাছ থেকে জেনে এবিষয়ে আরেকটু বিস্তারিত জানিয়েছেন বিসিবির মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস, "একদিন উদ্বোধনী অনুষ্ঠান করার পর আরেকদিন উদ্বোধনী ম্যাচ আয়োজন করলে উদ্বোধনের আবেশটা ঠিক থাকে না বলে মনে হয়েছে সভায় উপস্থিত কর্মকর্তাদের। এজন্যই এবার একইদিনে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ও ম্যাচ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ১৯ ফেব্র"য়ারি ঘন্টা দেড়েকের একটা উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পরপরই তাই মাঠে গড়াবে আসরের প্রথম ম্যাচটি।" জালাল ইউনুস বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম-কে আরো জানিয়েছেন, ২০১১ বিশ্বকাপের মোট পাঁচটি ম্যাচ আয়োজনের দায়িত্ব পেয়েছে বাংলাদেশ। এবং ইদানীং পাকিস্তানের নিরাপত্তা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ বাড়তে থাকায় সেখানকার ভেন্যুগুলোর বিকল্পও প্রস্তুত রাখতে বলেছে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)।

ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশ- এই চারটি দেশ ২০১১ বিশ্বকাপের যৌথ আয়োজক। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ও ম্যাচ আয়োজনের দায়িত্ব যেমন বাংলাদেশের, তেমনি ফাইনাল আয়োজন করবে ভারত। আর একটি করে সেমিফাইনাল হবে পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কায়।

http://www.bdnews24.com/bangla/details. … 9&hb=5

রুমেল'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: ২০১১ বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচও হবে ঢাকায়

আমরা ধন্য! আমার দেশ ধন্য। এই খুশিতে আজ আমরা হারিয়ে যাই বিশ্বকাপ ২০১১ তে।:clap::x:x

Blood group = O+ 
কিভাবে ভাল হওয়া যায়?  হিংষা মানুষকে পশু বানায় , লোভ বানায় অন্ধ।
ম্যানপাওয়ার করে বিদেশে যান বৈধ ভাবে এর জন্য যোগাযোগ করতে পারেন আমার সাথে।

Re: ২০১১ বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচও হবে ঢাকায়

আজ পত্রিকাতে দেখলাম। তবে উদ্বোধনী ম্যাচ কি একটা হবে নাকি অনান্য দেশেও (ভারত, পাকিস্থান বা শ্রীলংকা) হবে?

সবকিছুর জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি, এমনকি মৃত্যুর জন্যও...
রয়েল টেকনোলজি | সমকাল দর্পণ | আমার ফেসবুক প্র্রোফাইল | আমার ফেসবুক পেজ | আমার গুগল+

Re: ২০১১ বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচও হবে ঢাকায়

আগে থেকে জানতাম উদ্বোধনী ম্যাচ হবে বাংলাদেশে । উদ্বোধনী ম্যাচ আয়োজনের গুরুদায়িত্বও পেয়েছে বাংলাদেশ।শুনে খুবই খুশি হলাম।javascript:insert_text(':clap:',%20'');
=====================================
===================================
=====================================
ধন্য আমার দেশ।
আমি ভালো আছি, আপনি ভালো আছেন তো?

নামায সবার উপর ফরয করা হয়েছে

Re: ২০১১ বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচও হবে ঢাকায়

বাংলাদেশে উদ্ভোধনী ম্যাচ হবে।
এটাতো খুশির খবর।

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন উন্মাতাল_তারুণ্য (১৯-০২-২০০৯ ০১:৩১)

Re: ২০১১ বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচও হবে ঢাকায়

বাংলাদেশে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান? তাইলেই হইছে। গত ২০ বছর ধইরা যাই উদ্বোধন হইছে সবই তো খালি দেখলাম ট্রাকের উপর গান‌-বাজনা আর শারীরিক কোস্তাকুস্তি। এইটার অনুষ্ঠানও যদি এই রকম হয় তাইলেই হইছে ...!

আহারে, আমার এখনো মনে পড়ে সাউথ আফ্রিকার বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটা। আমার দেখা ক্রিকেট বিশ্বকাপের সবচেয়ে ফাটাফাটি উদ্বোধনী অনুষ্ঠান।

" 'কত বড়ো আমি' কহে নকল হীরাটি। তাই তো সন্দেহ করি নহ ঠিক খাঁটি॥ " - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

উন্মাতাল_তারুণ্য'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-nd 3. এর অধীনে প্রকাশিত

Re: ২০১১ বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচও হবে ঢাকায়

২০১১ বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে   


Tue, Feb 24th, 2009 3:35 pm BdST
ঢাকা, ফেব্র"য়ারি ২৪ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)- বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে ২০১১ বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। উদ্বোধনী ম্যাচের বিষয়ে সিদ্ধান্তটা চূড়ান্ত না হলেও সেটা মিরপুর স্টেডিয়ামে আয়োজনের সম্ভাবনা বেশি। মঙ্গলবার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে সরকারের এই সিদ্ধান্তের ব্যাপারটা নিশ্চিত করেছেন ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী আহাদ আলী সরকার।

২০১১ বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান মিরপুরে হবে নাকি বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে, এই বিতর্কে গত কিছুদিন ধরেই উত্তাল বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গন। নানারকম মতামত শোনা গেলেও সরকারের মনোভাবটা জানা যাচ্ছিল না। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলার পর মঙ্গলবার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী নিশ্চিত করে জানালেন, ''প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটা বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামেই আয়োজন করতে চাই আমরা।''

তার রেশ ধরেই প্রশ্ন আসে উদ্বোধনী ম্যাচ নিয়ে, কারণ এবার আইসিসি চাইছে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পরপরই উদ্বোধনী ম্যাচ আয়োজন করতে। বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান আয়োজনে সমস্যা নেই, পুরোপুরি ফুটবলকে দিয়ে দেয়াতে ক্রিকেট ম্যাচ আয়োজন নিয়েই সমস্যা। ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীও সেরকমই মনে করেন, ''দেখুন এখানে ক্রিকেট ম্যাচ করতে গেলে বেশ কিছু সমস্যা হবে। অ্যাথলেটিকস ট্র্যাক তুলতে হবে, সেটা অনেক খরচের ব্যাপার।'' মানে পরিষ্কার ঘোষণা না করলেও মন্ত্রীর যে ইঙ্গিত তাতে মোটামুটি স্পষ্ট যে উদ্বোধনী ম্যাচটা মিরপুরে আয়োজনে তাদের কোনো আপত্তি নেই।

তারপরও সমস্যা থাকে একটা। আইসিসি যে চাইছে উদ্বোধনী ম্যাচ ও অনুষ্ঠান একইদিনে করতে? সেক্ষেত্রে একই দিনে দুটো দুই মাঠে করাটা তো একটা সমস্যা। ক্রিকেট বোর্ডের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মাহবুব আনাম অবশ্য আগেই জানিয়েছেন, ''আমরা আইসিসিকে প্রস্তাব দিয়েছি উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পরের দিন উদ্বোধনী ম্যাচ আয়োজনের। আশা করি তারা আমাদের প্রস্তাব মেনে নেবে।'' এই প্রস্তাব মেনে নিলে অবশ্য আর কোনো সমস্যা হবে না। সেক্ষেত্রে ২০১১ সালের ১৮ ফেব্র"য়ারি উদ্বোধনের পর ১৯ ফেব্র"য়ারি থেকে মাঠে গড়াবে খেলা। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে করে নির্বিঘেœ পরদিন মিরপুর স্টেডিয়ামে আয়োজন করা যাবে উদ্বোধনী ম্যাচ।

এরপরও অবশ্য সমস্যা থেকে যায়। কারণ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানও আয়োজন করতে গেলে ব্যাপক সংস্কার কাজের ঝক্কি যাবে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামের ওপর দিয়ে। সেজন্য ২০১০ সালের জানুয়ারি-ফেব্র"য়ারিতে ঢাকায় অনুষ্ঠেয় এসএ গেমসের পরপরই হস্তান্তর করে দিতে হবে এই ভেন্যু। তখন ফুটবল কোথায় যাবে? এ প্রশ্নে একটা গ্রহণযোগ্য সমাধান বের করার উদ্যোগের কথাই শোনা গেল ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর মুখ থেকে, "সবাইকে নিয়ে আলোচনায় বসলে নিশ্চয়ই সমাধান একটা বেরিয়ে আসবে। আমরা অচিরেই ক্রিকেট বোর্ড ও ফুটবল ফেডারেশনের কর্মকর্তাদের নিয়ে বসবো।"

সরকারের সিদ্ধান্ত নিয়ে অবশ্য প্রথমেই কোনো মন্তুব্য করতে রাজি হননি বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন। তবে তার কথায় অসন্তুষ্টিও গোপন থাকেনি, "আমি খবরটা জেনেছি। তবে এটা একটা একপাক্ষিক সিদ্ধান্ত। এটা নিয়ে এখনই কোনো মন্তব্য করতে চাই না।"

বাফুফে সভাপতির পরের কথায় ক্ষোভটা আরো পরিষ্কার, "মন্ত্রী যদি চান বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামেই উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে, তাহলে হবে। সেক্ষেত্রে এখানে ফুটবল হবে না। আর আমাকে তো এই সিদ্ধান্তটা কেউ জানায়নি। জানানোর প্রয়োজনও মনে করেনি।"

প্রসঙ্গত ভারত, পাকিস্তান, বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কায় যৌথভাবে আয়োজিত হবে ২০১১ বিশ্বকাপ। তার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান এবং উদ্বোধনী ম্যাচ আয়োজনের সুযোগই শুধু পাচ্ছে না বাংলাদেশ, কোয়ার্টার ফাইনালসহ মোট পাঁচটি ম্যাচ আয়োজনের দায়িত্বও বর্তেছে।

http://www.bdnews24.com/bangla/details. … 1&hb=4

রুমেল'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত