সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন সাইফুল_বিডি (০৪-০৩-২০১৩ ০২:০৫)

টপিকঃ বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা ব্যবহার ও বানানোর নিয়ম

জাতীয় পতাকা একটি রাষ্ট্রের পরিচয়, জাতীয়তা, স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের প্রতীক। স্বাধীন, সার্বভৌম বাংলাদেশের অস্তিত্বের প্রতীক হচ্ছে আমাদের প্রিয় লাল সবুজ পতাকা। কিন্তু আমাদের দেশে গুরুত্বপূর্ণ এ প্রতীক ব্যবহারের বিধি সম্পর্কে জনগণ জানে না কিংবা জেনেও মানে না; অথচ এর ব্যবহারের জন্য রয়েছে সুস্পষ্ট বিধিমালা।
জাতীয় পতাকা বিধিমালা-১৯৭২ (সংশোধিত ২০১০)-এ জাতীয় পতাকা ব্যবহারের বিভিন্ন বিধি-বিধান বর্ণিত হয়েছে।
(উপরের অংশটি প্রথম আলো থেকে নেওয়া)

http://upload.wikimedia.org/wikipedia/commons/f/f9/Flag_of_Bangladesh.svg
পতাকার রংঃ
১.সবুজ অংশের রং হবে Procion Brilliant Green H-2RS 50
২.লাল অংশের রং হবে Procion Brilliant Orange H-2RS 60

http://upload.wikimedia.org/wikipedia/commons/thumb/f/f5/Bangladesh_National_Flag_construct.svg/800px-Bangladesh_National_Flag_construct.svg.png

১.ভবনের জন্য পতাকার আকারঃ
(ক). ১০*৬ মিটার
(খ). ৫*৩ মিটার
(গ). ২.৫*১.৫ মিটার
(যদি কোন কারনে ভবনের মাপ অনুযায়ী আরো বড় সাইজের পতাকার প্রয়োজন হয় তবে , সরকারের আনুমতি সাপেক্ষে  দৈর্ঘ্য এবং প্রস্থ অনুপাত ঠিক রেখে পতাকা ব্যবহার / বানানো যেতে পারে)

২.যানবাহনের জন্য পতাকার আকারঃ
(ক). ১৫*৯ ইঞ্ছি , বড় গাড়ীর জন্য
(খ). ১০*৬ ইঞ্ছি , ছোট গাড়ীর জন্য

**দিপাক্ষিক / আন্তর্জাতিক সম্মেলনের “টেবিল পতাকার” আকার ১০*৬ ইঞ্ছি হতে হবে।

সে সব দিবসে জাতীয় পতাকা ঊত্তোলন করা যাবেঃ

১.নিম্নলিখিত দিন এবং অনুষ্ঠান বাংলাদেশ এর পতাকা অবশ্যই উত্তোলন করতে হবে এবং এই নিয়ম বাংলাদেশ জুড়ে সরকারি ও বেসরকারি ভবন এবং বাংলাদেশ কূটনৈতিক মিশন কার্যালয় প্রাঙ্গনে এর ক্ষেত্রে বহাল থাকবে।

(ক). মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সঃ) এর জন্মদিনে ( ঈদ-ই-মিলাদুন্নবি )
(খ). স্বাধীনতা দিবসে ( ২৬শে মার্চ )
(গ). বিজয় দিবস ( ১৬ই ডিসেম্বর )
(ঘ). সরকারী ভাবে প্রজ্ঞাপিত অন্যান্য দিন।

২. যে সকল দিবসে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত থাকবেঃ
(ক) ২১ ফেব্রুয়ারী শহীদ দিবস
(খ) সরকারী ভাবে প্রজ্ঞাপিত অন্যান্য দিন।

কিছু নিয়মাবলীঃ

১. ইচ্ছে করলেই যে কেউ গাড়িতে পতাকা ব্যবহার করতে পারে না। কেননা আইনে বলা হয়েছে, কোনো অবস্থায়ই গাড়ি কিংবা কোনো যান, রেল কিংবা নৌকার খোলে, ওপরিভাগে বা পেছনে পতাকা ওড়ানো যাবে না।

২.বাংলাদেশের পতাকার ওপরে অন্য কোনো পতাকা বা রঙিন পতাকা ওড়ানো যাবে না।

৩. অনেকেই জাতীয় পতাকায় নকশা করে ফ্যাশন হিসেবে ব্যবহার করেন। কিন্তু জাতীয় পতাকার ওপর কোনো কিছু লেখা বা মুদ্রিত করা যাবে না অথবা কোনো অনুষ্ঠান বা উপলক্ষে কোনো চিহ্ন অঙ্কন করা যাবে না; এমনকি জাতীয় পতাকাকে পোশাক হিসেবে ব্যবহার করা যাবে না এবং গায়ে জড়িয়ে রাখা যাবে না।

৪.অনুমতি ছাড়া ব্যবসা-বাণিজ্য বা অন্য কোনো উদ্দেশ্যে জাতীয় পতাকাকে ট্রেডমার্ক, ডিজাইন বা পেটেন্ট হিসেবে ব্যবহার করাও অপরাধ।

৫.কোনো অবস্থায়ই পতাকা নিচে অবস্থিত কোনো বস্তু যেমন—মেঝে, পানি ও পণ্যদ্রব্য স্পর্শ করবে না এবং কবরের ওপরে স্থাপন করার সময় পতাকাটি কবরে নামানো যাবে না কিংবা মাটি স্পর্শ করবে না। এ ছাড়া কোনো কিছু গ্রহণ, ধারণ বা বিলি করার জন্য পতাকাকে ব্যবহার করা যাবে না।

৬.পতাকা এমনভাবে উত্তোলন, প্রদর্শন বা মজুদ করা যাবে না, যাতে এটি সহজেই ছিঁড়ে যেতে পারে, মাটি লাগতে পারে বা নষ্ট হতে পারে।

৭।কোনো দেয়ালে দণ্ডবিহীন পতাকা প্রদর্শিত হলে তা দেয়ালের সমতলে এবং রাস্তায় প্রদর্শিত হলে উলম্বভাবে দেখাতে হবে।

৮.গণমিলনায়তন কিংবা সভায় পতাকা প্রদর্শন করা হলে বক্তার পেছনে ও ঊর্ধ্বে স্থাপন করতে হবে।

৯.জাতীয় পতাকা কোনো অবস্থায়ই সমতল বা সমান্তরালভাবে বহন করা যাবে না এবং উত্তোলনের সময় সুষ্ঠু ও দ্রুতলয়ে উত্তোলন করতে হবে এবং সসম্মানে অবনমিত করতে হবে।

১০.আনুষ্ঠানিকভাবে পতাকা উত্তোলনের সময় জাতীয় সংগীত গাইতে হবে এবং যখন জাতীয় সংগীত বাজানো হয় এবং প্রদর্শিত হয়, তখন উপস্থিত সবাইকে পতাকার দিকে মুখ করে দাঁড়াতে হবে।

১১.মোটরগাড়ি, নৌযান, উড়োজাহাজ ও বিশেষ অনুষ্ঠান ব্যতীত অন্যান্য সময় পতাকা সূর্যোদয় থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত উত্তোলিত থাকবে এবং সূর্যাস্তের পর কোনো মতেই পতাকা উড্ডীয়ন অবস্থায় থাকবে না।

১২.জাতীয় পতাকা শুধু একটি কাপড় নয়, এটি দেশের স্বাধীনতার প্রতীক। তাই পতাকার অবস্থা ব্যবহারযোগ্য না হলে তা মর্যাদাপূর্ণভাবে সমাধিস্থ করতে হবে। জাতীয় পতাকা ব্যবহারের এসব বিধি ভঙ্গ করা শাস্তিযোগ্য অপরাধ এবং কেউ ভঙ্গ করলে সর্বোচ্চ এক বছরের কারাদণ্ড বা পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা কিংবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

তথ্যসুত্রঃ
১. PEOPLE’S REPUBLIC OF BANGLADESH FLAG RULES
২. প্রথমআলো ( জাতীয় পতাকা ব্যবহারের নিয়ম )

এই ব্যাক্তির সকল লেখা কাল্পনিক , জীবিত অথবা মৃত কারো সাথে মিল পাওয়া গেলে তা সম্পুর্ন কাকতালীয়, যদি লেখা জীবিত অথবা মৃত কারো সাথে মিলে যায় তার দায় এই আইডির মালিক কোনক্রমেই বহন করবেন না। এই ব্যক্তির সকল লেখা পাগলের প্রলাপের ন্যায় এই লেখা কোন প্রকার মতপ্রকাশ অথবা রেফারেন্স হিসাবে ব্যবহার করা যাবে না।

Re: বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা ব্যবহার ও বানানোর নিয়ম

ছোটবেলায় কেন এক ক্লাসের বইতে পড়েছিলাম মনে নাই

Re: বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা ব্যবহার ও বানানোর নিয়ম

শরীফ আহম্মেদ লিখেছেন:

ছোটবেলায় কেন এক ক্লাসের বইতে পড়েছিলাম মনে নাই

আমাদের এপার্টমেন্ট এর কেয়ারটেকার সন্ধ্যার পরও পতাকা উড়িয়ে রাখে। আমি তাকে তা নামানোর জন্য বললে সে বলে যে এমন কোনো নিয়ম নাই যার ভিত্তিতে পতাকা সন্ধ্যার সময় নামিয়ে ফেলতে হবে। এক্ষেত্রে এই নিয়মে যা বলা হয়েছেঃ

মোটরগাড়ি, নৌযান, উড়োজাহাজ ও বিশেষ অনুষ্ঠান ব্যতীত অন্যান্য সময় পতাকা সূর্যোদয় থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত উত্তোলিত থাকবে এবং সূর্যাস্তের পর কোনো মতেই পতাকা উড্ডীয়ন অবস্থায় থাকবে না।

এই বিশেষ অনুষ্ঠানটা কি????

কেউ যদি স্কুল এর কোন ক্লাসের বইয়ে নিয়মটা আছে বলতে পারতেন তাহলে ওনাকে একটা শিক্ষা দিতে পারতাম

Re: বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা ব্যবহার ও বানানোর নিয়ম

খাইছে! পতাকা কি শুধু তাইলে ভিআইপিদের জন্য? আমি পতাকা ব্যবহার করতে পারব না?

প্রসঙ্গতই কয়েকটা প্রশ্ন মনে আসছে -

১। স্টেডিয়ামের গ্যালারিতে দর্শকরা যে পতাকা ব্যবহার করে, সেটা কি বৈধ?
২। বিশ্বকাপের সময় মানুষ যে বাসাবাড়ির ছাদে ভিনদেশী পতাকা উড়ায়, সেটা কি বৈধ?
৩। প্রজন্ম চত্বর থেকে সব জায়গায় পতাকা উত্তোলনের কথা বলা হল, সেটা কি বৈধ?
৪। এবং একটা ফানি প‌্রশ্ন - অ্যাভাটার হিসেবে যত্রতত্র পতাকা (অনুপাতবিহীন) ব্যবহার করা বৈধ?

বাস্তবে এতো আইন-কানুন মেনে কি কেউ কোনকালে পতাকা উড়িয়েছে। আমার মতে আইন আরো শিথিল হওয়া উচিত। অবশ্য কিছু আইন অবশ্যই থাকা দরকার। তা না হলে অবস্থা লিবিয়ার মতো হয়ে যেতে পারে।

http://i345.photobucket.com/albums/p395/toha_mh/FlagOnShoeBox_zps3b7d6f66.jpg

বেয়াল্লিশ বছরের গাদ্দাফীর স্বৈরশাসন থেকে মুক্ত হয়ে পাওয়া নতুন পতাকা নিয়ে মানুষের উচ্ছ্বাস এতো বেশি ছিল যে, দুনিয়ার সব কিছুতেই তারা পতাকা ব্যবহার করতে শুরু করে। ফলাফল দেখতেই পারছেন।

https://www.facebook.com/tohamh
মোজাম্মেল হোসেন ত্বোহা
সিরত - লিবিয়া

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন দ্যা ডেডলক (০৪-০৩-২০১৩ ০৯:০৮)

Re: বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা ব্যবহার ও বানানোর নিয়ম

প্রজন্ম ফোরামে এই টাইপের আগের টপিক
জাতীয় পতাকা ব্যবহারের নিয়ম

লেখাটি LGPL এর অধীনে প্রকাশিত

Re: বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা ব্যবহার ও বানানোর নিয়ম

ভাল লাগলো এই টপিক surprised surprised surprised surprised surprised

Re: বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা ব্যবহার ও বানানোর নিয়ম

ঠিক এই লেখাটাই আমি লিখবো ভাবছিলাম। অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাকে।+

ত্বোহা লিখেছেন:

বিশ্বকাপের সময় মানুষ যে বাসাবাড়ির ছাদে ভিনদেশী পতাকা উড়ায়, সেটা কি বৈধ

১০০% অবৈধ।

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের ঝিঁঝি পোকার বাগানে নিমন্ত্রণ।

Re: বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা ব্যবহার ও বানানোর নিয়ম

ত্বোহা লিখেছেন:

১। স্টেডিয়ামের গ্যালারিতে দর্শকরা যে পতাকা ব্যবহার করে, সেটা কি বৈধ?
২। বিশ্বকাপের সময় মানুষ যে বাসাবাড়ির ছাদে ভিনদেশী পতাকা উড়ায়, সেটা কি বৈধ?
৩। প্রজন্ম চত্বর থেকে সব জায়গায় পতাকা উত্তোলনের কথা বলা হল, সেটা কি বৈধ?
৪। এবং একটা ফানি প‌্রশ্ন - অ্যাভাটার হিসেবে যত্রতত্র পতাকা (অনুপাতবিহীন) ব্যবহার করা বৈধ?

এসব সম্পর্কে কোথাও কিছু বলা নেই। তবে আমার মতে একাধিক দেশের কনটেক্সটে জাতীয় পতাকা ব্যবহার করা বৈধ হওয়ার কথা। নয়ত আমাদের দেশকে রিপ্রেজেন্ট করা যাবে না। নয়ত পতাকার মূল  উদ্যেশ্যই ব্যহত হবে। সেক্ষেত্রে ১ নম্বরে পতাকার ব্যবহারটাই আসল ব্যবহার। ২ নম্বর বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার ক্ষেত্রে খাটে না যেহেতু ওটা ভিনদেশী পতাকা। তবে আমার মনে হয় এটা উচিৎ না। ৩ নম্বর কখনই বৈধ হবার কথা না। কারণ পতাকা উত্তোলনের কথা বলার জন্য তারা কেউ না। বাংলাদেশ ৭১ এই স্বাধীন হয়েছে। ২০১৩ তে না। ৪ নম্বর সম্ভবত অবৈধ।

বাংগালীরা এমনিতেই নিয়ম মানতে চায় না। ১০০ টা নিয়মের মধ্যে তারা ০ টা নিয়ম মানে। কেউ যদি তাদের বলে আপনি ১ টা নিয়ম মানছেন না। তখন সে বলবে "১ নিয়ম না মানলে কি হয় ভাই?"। তারপর আবার যখন বলে, "আপনি অনেকগুলো নিয়ম মানছেন না"। তখন বলবে, "সমস্যা কি? আমার পিছনে কেন লাগছেন?"। তাই আমার মতে নিয়ম বেশিই হওয়া উচিৎ। তাতে কিছু নিয়ম হয়ত মানা হবে।  নিয়মকে বাংগালীরা বোঝা মনে করে না। তারা ভাবে, "নিয়ম থাকলে অনিয়ম থাকবেই"।  তো নিয়মের চিন্তা করার কি দরকার।

Feed থেকে ফোরাম সিগনেচার, imgsign.com
ব্লগ: shiplu.mokadd.im
মুখে তুলে কেউ খাইয়ে দেবে না। নিজের হাতেই সেটা করতে হবে।

শিপলু'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা ব্যবহার ও বানানোর নিয়ম

ত্বোহা লিখেছেন:

১। স্টেডিয়ামের গ্যালারিতে দর্শকরা যে পতাকা ব্যবহার করে, সেটা কি বৈধ?
২। বিশ্বকাপের সময় মানুষ যে বাসাবাড়ির ছাদে ভিনদেশী পতাকা উড়ায়, সেটা কি বৈধ?
৩। প্রজন্ম চত্বর থেকে সব জায়গায় পতাকা উত্তোলনের কথা বলা হল, সেটা কি বৈধ?
৪। এবং একটা ফানি প‌্রশ্ন - অ্যাভাটার হিসেবে যত্রতত্র পতাকা (অনুপাতবিহীন) ব্যবহার করা বৈধ?

এটা দেখুন , এটা পতাকার ব্যবহার সম্পর্কিত সরকারী ডকুমেন্ট ।

এই ব্যাক্তির সকল লেখা কাল্পনিক , জীবিত অথবা মৃত কারো সাথে মিল পাওয়া গেলে তা সম্পুর্ন কাকতালীয়, যদি লেখা জীবিত অথবা মৃত কারো সাথে মিলে যায় তার দায় এই আইডির মালিক কোনক্রমেই বহন করবেন না। এই ব্যক্তির সকল লেখা পাগলের প্রলাপের ন্যায় এই লেখা কোন প্রকার মতপ্রকাশ অথবা রেফারেন্স হিসাবে ব্যবহার করা যাবে না।

১০

Re: বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা ব্যবহার ও বানানোর নিয়ম

দ্যা ডেডলক লিখেছেন:

প্রজন্ম ফোরামে এই টাইপের আগের টপিক
জাতীয় পতাকা ব্যবহারের নিয়ম

আমিও ভেবেছিলাম। কিন্তু পরে দেখলাম যে এখানে জাতীয় পতাকার নির্মান কৌশলও আছে যা নাকি আগের টপিকে ছিল না।

ত্বোহা লিখেছেন:

১। স্টেডিয়ামের গ্যালারিতে দর্শকরা যে পতাকা ব্যবহার করে, সেটা কি বৈধ?
২। বিশ্বকাপের সময় মানুষ যে বাসাবাড়ির ছাদে ভিনদেশী পতাকা উড়ায়, সেটা কি বৈধ?
৩। প্রজন্ম চত্বর থেকে সব জায়গায় পতাকা উত্তোলনের কথা বলা হল, সেটা কি বৈধ?
৪। এবং একটা ফানি প‌্রশ্ন - অ্যাভাটার হিসেবে যত্রতত্র পতাকা (অনুপাতবিহীন) ব্যবহার করা বৈধ?

১) আমার জানামতে পতাকার অনুপাত যদি ঠিক থাকে তবে তা ব্যবহার করা যাবে। শুধু মাটিতে স্পর্শ না করলেই হয়
২) এক্ষেত্রে নিয়ম হচ্ছে ঐ পতাকার সাথে অবশ্যই বাংলাদেশের পতাকা উড়াতে হবে এবং বাংলাদেশ এর পতাকাকে মাঝে রাখতে হবে দুই এর অধিক পতাকার ক্ষেত্রে। আর বাংলাদেশের পতাকা সহ আরেকটা পতাকা থাকলে বাংলাদেশ এর পতাকা ডান দিকে রাখতে হবে। আর অবশ্যই বাংলাদেশ এর পতাকা অন্যান্য পতাকা থেকে একটু উপরে থাকবে।
৩) পতাকা উত্তোলনের কথা বলা হলে সেটা বৈধ কিন্তু পালন যে করতেই হবে তা কিন্তু নয়।
৪) এসম্পর্কে বলতে গেলে বলা যায় যে,

The ‘Flag’ except with the permission in writing of and in accordance with the conditions, if any, imposed by the Government of the People’s Republic of Bangladesh shall not be used in any trade-mark or design or the title of any patent or for the purpose of any trade, business, calling or profession or for any other purpose whatsoever.

তবে অবশ্যই অনুপাত ঠিক রেখে

আমার প্রশ্নের উত্তর কেউ দিলো নাঃ

সেভারাস লিখেছেন:
শরীফ আহম্মেদ লিখেছেন:

ছোটবেলায় কেন এক ক্লাসের বইতে পড়েছিলাম মনে নাই

আমাদের এপার্টমেন্ট এর কেয়ারটেকার সন্ধ্যার পরও পতাকা উড়িয়ে রাখে। আমি তাকে তা নামানোর জন্য বললে সে বলে যে এমন কোনো নিয়ম নাই যার ভিত্তিতে পতাকা সন্ধ্যার সময় নামিয়ে ফেলতে হবে। এক্ষেত্রে এই নিয়মে যা বলা হয়েছেঃ

মোটরগাড়ি, নৌযান, উড়োজাহাজ ও বিশেষ অনুষ্ঠান ব্যতীত অন্যান্য সময় পতাকা সূর্যোদয় থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত উত্তোলিত থাকবে এবং সূর্যাস্তের পর কোনো মতেই পতাকা উড্ডীয়ন অবস্থায় থাকবে না।

এই বিশেষ অনুষ্ঠানটা কি????

কেউ যদি স্কুল এর কোন ক্লাসের বইয়ে নিয়মটা আছে বলতে পারতেন তাহলে ওনাকে একটা শিক্ষা দিতে পারতাম

১১

Re: বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা ব্যবহার ও বানানোর নিয়ম

সেভারাস লিখেছেন:

এই বিশেষ অনুষ্ঠানটা কি????

কেউ যদি স্কুল এর কোন ক্লাসের বইয়ে নিয়মটা আছে বলতে পারতেন তাহলে ওনাকে একটা শিক্ষা দিতে পারতাম

সরকার ঘোষিত কোন অনুষ্ঠান ,যেখানে সূর্যাস্তের পর পর্যন্ত অনুষ্ঠান চলতে থাকে সেখানে এই নিময়টি প্রযোজ্য।

এই ব্যাক্তির সকল লেখা কাল্পনিক , জীবিত অথবা মৃত কারো সাথে মিল পাওয়া গেলে তা সম্পুর্ন কাকতালীয়, যদি লেখা জীবিত অথবা মৃত কারো সাথে মিলে যায় তার দায় এই আইডির মালিক কোনক্রমেই বহন করবেন না। এই ব্যক্তির সকল লেখা পাগলের প্রলাপের ন্যায় এই লেখা কোন প্রকার মতপ্রকাশ অথবা রেফারেন্স হিসাবে ব্যবহার করা যাবে না।

১২

Re: বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা ব্যবহার ও বানানোর নিয়ম

সাইফুল_বিডি লিখেছেন:
সেভারাস লিখেছেন:

এই বিশেষ অনুষ্ঠানটা কি????

কেউ যদি স্কুল এর কোন ক্লাসের বইয়ে নিয়মটা আছে বলতে পারতেন তাহলে ওনাকে একটা শিক্ষা দিতে পারতাম

সরকার ঘোষিত কোন অনুষ্ঠান ,যেখানে সূর্যাস্তের পর পর্যন্ত অনুষ্ঠান চলতে থাকে সেখানে এই নিময়টি প্রযোজ্য।

এর মানে কি বিজয় মাস হিসাবে সারা ডিসেম্বর রাতের পর রাত পতাকা ওড়ানো যাবে না??? আমিও তাই জানি, কিন্তু একেবারে ক্লিয়ার করে বলা নেই বলে আমাদের কেয়ারটেকার কে বলতে পারছি না

১৩

Re: বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা ব্যবহার ও বানানোর নিয়ম

ত্বোহা ভাই এভাটারে পতাকা সহ যে পোজ দিছেন সেটা কি বৈধ?? tongue tongue

১৪ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন কাজী আলী নূর (০৪-০৩-২০১৩ ১৪:৪৭)

Re: বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা ব্যবহার ও বানানোর নিয়ম

জাতীয় পতাকার প্রতি অবহেলার জন্যই এর এত অপব্যবহার হয়ে থাকে। এই জাতীয় পতাকা হচ্ছে জাতীয় চেতনার প্রতীক। তাই জাতির পরিচয় বহনকারী পতাকার প্রতি সন্মান ও শ্রদ্ধা সকলের ক্ষেত্রে সমভাবে প্রযোজ্য।

হে আল্লাহ, তুমি সকলের মঙ্গল কর; তোমার রহমতের আশ্রয়ে আশ্রিত কর..... আমীন
সঠিক পদ্ধতিতে ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করুন এবং আপনার ওয়ার্ডপ্রেস সাইটটিকে সুরক্ষিত রাখুন

কাজী আলী নূর'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত

১৫

Re: বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা ব্যবহার ও বানানোর নিয়ম

সেভারাস লিখেছেন:

এর মানে কি বিজয় মাস হিসাবে সারা ডিসেম্বর রাতের পর রাত পতাকা ওড়ানো যাবে না??? আমিও তাই জানি, কিন্তু একেবারে ক্লিয়ার করে বলা নেই বলে আমাদের কেয়ারটেকার কে বলতে পারছি না

না যাবে না , কিন্তু ব্যাপারটা হল মানুষের আবেগ এখানে তারা আইন মানতে রাজী নন। আমি অনেকেকে দেখেছি পতাকা মাথায় গামচার / তোয়ালের মত বেধে ঘুরতে। ১৬ই ডিসেম্বর পতাকা উড়ানো ব্যাধ্যতামুলক , কিন্তু রাতে না সেটা দিনে।

এই ব্যাক্তির সকল লেখা কাল্পনিক , জীবিত অথবা মৃত কারো সাথে মিল পাওয়া গেলে তা সম্পুর্ন কাকতালীয়, যদি লেখা জীবিত অথবা মৃত কারো সাথে মিলে যায় তার দায় এই আইডির মালিক কোনক্রমেই বহন করবেন না। এই ব্যক্তির সকল লেখা পাগলের প্রলাপের ন্যায় এই লেখা কোন প্রকার মতপ্রকাশ অথবা রেফারেন্স হিসাবে ব্যবহার করা যাবে না।

১৬

Re: বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা ব্যবহার ও বানানোর নিয়ম

ফায়ারফক্স লিখেছেন:

ত্বোহা ভাই এভাটারে পতাকা সহ যে পোজ দিছেন সেটা কি বৈধ?? tongue tongue

হেঃ হেঃ ওটার জন্য লিবিয়ার আইন দেখতে হবে।

https://www.facebook.com/tohamh
মোজাম্মেল হোসেন ত্বোহা
সিরত - লিবিয়া

১৭

Re: বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা ব্যবহার ও বানানোর নিয়ম

আমারে এক জাপানী জিজ্ঞাসা করেছিল, তোমাদের পতাকার মাঝের লাল বৃত্তটার অবস্থান একবারে কেন্দ্রবিন্দুতে নয় কেন?
কারো জানা আছে এই প্রশ্নের উত্তর?
এটা কী কেবলই ডিজাইনের ইচ্ছা অনুযায়ী নাকি এর পেছনে কোন ব্যাখ্যা আছে?

তোমাকে ভালবাসি, তোমারই চরণে ঠাঁই,
মা,
তোমার ভালবাসার কোন তুলনা নাই।

১৮ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন সাইফুল_বিডি (০৪-০৩-২০১৩ ১৫:৫৩)

Re: বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা ব্যবহার ও বানানোর নিয়ম

তপু লিখেছেন:

আমারে এক জাপানী জিজ্ঞাসা করেছিল, তোমাদের পতাকার মাঝের লাল বৃত্তটার অবস্থান একবারে কেন্দ্রবিন্দুতে নয় কেন?
কারো জানা আছে এই প্রশ্নের উত্তর?
এটা কী কেবলই ডিজাইনের ইচ্ছা অনুযায়ী নাকি এর পেছনে কোন ব্যাখ্যা আছে?

http://upload.wikimedia.org/wikipedia/commons/0/09/Flag_of_Bangladesh_%281971%29.svg

http://upload.wikimedia.org/wikipedia/commons/f/f9/Flag_of_Bangladesh.svg
শিবনারায়ন দাশ বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার প্রথম ডিজাইনার।আর স্বাধীন হয়ার পর পতাকার ডিজাইন করেন কামরুল হাসান , তিনি কেবল মাঝের মানচিত্রটা সরিয়ে দেন। আর জাতীয় পতাকার এই বৃত্তের কারন হিসাবে হিসাবে কোন তথ্য পাওয়া যায় নাই। আমার ব্যাক্তিগত ধারনা জাপানের পতাকার বৃত্ত কেন্দ্রবিন্দুতে থাকায় আমাদের পতাকায় এটা  করা হয়েছে।

এই ব্যাক্তির সকল লেখা কাল্পনিক , জীবিত অথবা মৃত কারো সাথে মিল পাওয়া গেলে তা সম্পুর্ন কাকতালীয়, যদি লেখা জীবিত অথবা মৃত কারো সাথে মিলে যায় তার দায় এই আইডির মালিক কোনক্রমেই বহন করবেন না। এই ব্যক্তির সকল লেখা পাগলের প্রলাপের ন্যায় এই লেখা কোন প্রকার মতপ্রকাশ অথবা রেফারেন্স হিসাবে ব্যবহার করা যাবে না।

১৯

Re: বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা ব্যবহার ও বানানোর নিয়ম

শাহবাগে যেই জাতীয় পতাকাটা ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে - তার মাপ আনুমানিক কত বাই কত হতে পারে?

নিজে শিক্ষিত হলে হবে না- প্রথমে বিবেকটাকে শিক্ষিত করতে হবে

২০

Re: বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা ব্যবহার ও বানানোর নিয়ম

আউল লিখেছেন:

শাহবাগে যেই জাতীয় পতাকাটা ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে - তার মাপ আনুমানিক কত বাই কত হতে পারে?

একটু কষ্ট করে দেখে অনুমান করে আসুন অথবা যারা ঝুলিয়েছে তাদের কাছে জানতে চান।

এই ব্যাক্তির সকল লেখা কাল্পনিক , জীবিত অথবা মৃত কারো সাথে মিল পাওয়া গেলে তা সম্পুর্ন কাকতালীয়, যদি লেখা জীবিত অথবা মৃত কারো সাথে মিলে যায় তার দায় এই আইডির মালিক কোনক্রমেই বহন করবেন না। এই ব্যক্তির সকল লেখা পাগলের প্রলাপের ন্যায় এই লেখা কোন প্রকার মতপ্রকাশ অথবা রেফারেন্স হিসাবে ব্যবহার করা যাবে না।